Categories
সারাদেশ

চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জমি অধিগ্রহণ নিয়ে অপপ্রচার ও বাস্তবতা

চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ব বিদ্যালয়ের জমি অধিগ্রহণ নিয়ে সাম্প্রাতিক সময়ে নানা অপপ্রচার, গুজব ও গুঞ্জন শুরু হয়েছে। রাজনৈতিক ফয়দা হাসিলের জন্যে অবাস্তব কল্প কাহিনী সাজানো হচ্ছে, চলছে নানা বিভ্রান্তি। এ নিয়ে বাস্তব অনুসন্ধানে দেখা যায় ভিন্ন চিত্র। পাঠকদের জন্যে তা তুলে ধরা হলো।

১। চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য নির্ধারিত জমি অধিগ্রহনের ক্ষেত্রে জমির মূল্য নির্ধারন জমির মালিকের করার সুযোগ নেই। জেলা প্রশাসনই উভয় প্রাক্কলন তৈরী করেছে।

২। স্থাবর সম্পত্তি অধিগ্রহন ও হুকুম দখল আইন, ২০০৭ এর ৯(১) ধারা অনুযায়ী প্রাক্কলন প্রস্তুত করা হয়।

৩। আইন অনুযায়ী ৪ ধারার নোটিশ জারির পূর্ববতী ১২ মাসের গড় মূল্যে নির্ধারিত নিয়মে হিসাব করতে হবে।

৪। প্রথম প্রাক্কলন সে হিসেবে দাঁড়ায় ৫৫৩ কোটি টাকা।

৫। পরবর্তীতে ৪ ধারার নোটিশ জারির পূর্ববতী ১২ মাসের সম্পাদিত সকল দলিলের গড় মূল্যের পরিবর্তে ১৮২ টি দলিলের মধ্যে ১৩৯ টি দলিল বাদ দিয়ে শুধুমাত্র ৪৩টি দলিলের (সর্বনিন্ম মূল্যের) গড় মূল্যকে বিবেচনায় নিয়ে দ্বিতীয় প্রাক্কলনটি প্রস্তুত করা হয়, যার মূল্য দাঁড়ায় ১৯৩ কোটি টাকা।

৬। আইনে ৪ ধারার নোটিশ জারির পূর্ববর্তী ১২ মাসের গড় মূল্যের ভিত্তিতে বাজার মূল্য নির্ধারনের বিধান থাকা সত্ত্বেও ৪ ধারার নোটিশ জারির পূর্ববর্তী ৩ বছরের গড় মূল্যকে বিবেচনায় নেয়া হয়।

৭। জমির যথাযথ মূল্য না পাওয়ার আশংকায় জমির মালিকদের মধ্য থেকে ৩ জন হাইকোর্টে ২ টি রিট মামলা দায়ের করেন যা বর্তমানে কোর্টের বিবেচনাধীন রয়েছে।

৮। ডাঃ দীপু মনি-এর চাঁদপুরে কোন জমিতে কোথাও ক্রয়সূত্রে কোন মালিকানা নেই। অর্থাৎ তিনি কখনোই চাঁদপুরে কোন জমি ক্রয় করেননি। ডা: দীপু মনি এম. পি. এর পরিবারের কোন সদস্যের কোন জমি উক্ত অধিগ্রহণ এলাকায় নেই। কাজেই জমির মূল্য থেকে তাদের লাভবান হবার বা অনৈতিক কোন সুবিধা গ্রহণেরও কোন প্রশড়ব উঠতে পারে না।

৯। ডাঃ দীপু মনি এম. পি. এর বড় ভাই বিশিষ্ট বিশেষজ্ঞ শল্য চিকিৎসক ডাঃ জাওয়াদুর রহিম ওয়াদুদ লক্ষীপুর ইউনিয়নে নদীর পাড়ে হাসপাতাল ও বৃদ্ধাশ্রম স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়ে বেশ কিছুদিন থেকে অল্প অল্প করে জমি কিনেছিলেন। চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য প্রাথমিকভাবে চিন্তা করা ২টি স্থানের মধ্যে লক্ষীপুর ইউনিয়নের স্থানটি চূড়ান্তভাবে নির্ধারণ করে অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পরে ডাঃ জাওয়াদুর রহিম ওয়াদুদ তার পূর্বে ক্রয়কৃত সকল জমি হস্তান্তর করে দেন। কারন তার ছোটবোন শিক্ষামন্ত্রী এবং তার ক্রয়কৃত জমি অধিগ্রহণ করা হলে তিনি আর্থিকভাবে লাভবান হবেন যা Conflict of interest হিসেবে বিবেচিত হতে পারে।

১০। বাংলাদেশে যেকোন জায়গায় কোন উল্লেখ্যযোগ্য স্থাপনা নির্মানের ক্ষেত্রে জমি অধিগ্রহনের পূর্বেই বহু মানুষ উক্ত স্থানে বা তার আশেপাশে জমি কিনে থাকেন বা কোন স্থাপনা নির্মান করেন। তা কখনো আর্থিকভাবে লাভবান হবার জন্য, কখনো বড় বা ভালো কোন স্থাপনার কাছে থাকবার জন্য। চাঁদপুরের কেউ একইভাবে লক্ষ্মীপুরে জমি কিনে থাকতে পারেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য অধিগ্রহনের নিমিত্ত নির্ধারিত জায়গায় কে বা কারা জমি ক্রয় করেছেন বা করছেন তা ডা: দীপু মনি-র জানবার কথা না। তিনি জানেনও না।

১১। শুধুমাত্র তাঁর বড় ভাইয়ের হাসপাতাল ও বৃদ্ধাশ্রম স্থাপনের জন্য ক্রয়কৃত এবং অধিগ্রহনের পূর্বেই হস্তান্তরকৃত (দলিল নং৮০৪০, ৬/১২/২০২১) জমির বিষয়ে তিনি অবহিত ছিলেন।

১২। উল্লেখ্য যে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য দ্বিতীয় দফায় আরও ২২ একর জমি অধিগ্রহনের প্রস্তাব উত্থাপন করে নথি শিক্ষামন্ত্রীর কাছে উপস্থাপিত হলে তিনি সে প্রস্তাব নাকচ করে দেন। তিনি নথিতে লিখে দেন যে চাঁদপুর নদীভাঙ্গন কবলিত এলাকা হওয়ায় সেখানে জমি অপ্রতুল। এছাড়া একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য ৬২ একর জমি, যা ইতোমধ্যে অধিগ্রহনের জন্য অনুমোদন করা হয়েছে, তাই যথেষ্ট।

১৩। ডা: দীপু মনি ও তাঁর বড় ভাইয়ের কেউ কখনো কোন আর্থিক অনিয়ম বা দুর্নীতির সাথে কোনদিন জড়িত ছিলেন না বা নেই। তার নির্বাচনী এলাকায় গত বছরে এম পি হিসেবে তার সততা ও স্বচ্ছতা সর্বজন বিদিত।

১৪। অধিগ্রহণের জন্য নির্ধারিত জমির মূল্য ইচ্ছাকৃত ভাবে বৃদ্ধি করার জন্য বেশী মূল্যে জমি হস্তান্তরের ঘটনা যদি ঘটে থাকে তবে সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন বলে ডা: দীপু মনি মনে করেন।

১৫। স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা, ত্যাগ ও সংগ্রামের লম্বা পথ পাড়ি দিয়ে একজন সৎ ও সফল রাজনীতিবিদ হিসেবে দেশে বিদেশে পরিচিত ডা: দীপু মনিকে কি উদ্দেশ্যে জমি অধিগ্রহন সংক্রান্ত মিথ্যা অভিযোগে অভিযুক্ত করে তার মত একজন রাজনীতিবিদের সুনাম সম্মান নষ্ট করার জন্য অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে তা উদঘাটিত হওয়া প্রয়োজন।

১৬। জেলা প্রশাসন কর্তৃক দুটি প্রাক্কলনই প্রস্তুত করা হয়। জেলা প্রশাসন কর্তৃক প্রথম প্রাক্কলনকৃত মূল্য ৫৫৩ কোটি টাকা যা জমির মূল্য বাড়িয়ে দেয়ার কারনে ঘটেছে বলে উল্লেখ করা হচ্ছে। জেলা প্রশাসন কর্তৃক দ্বিতীয় প্রাক্কলনকৃত মূল্য ১৯৩ কোটি টাকা যা বাজার মূল্য বলে উল্লেখ করা হচ্ছে। একইসাথে বলা হচ্ছে বাজারমূল্যের ২০ গুন বেশী দাম ধরা হয়েছিল পূর্ববর্তী প্রাক্কলনে। ১৯৩ কোটি টাকার ২০ গুন কি করে ৫৫৩ কোটি টাকা হয় তাও বোধগম্য নয়।

১৭। এছাড়াও অভিযোগ করা হচ্ছে যে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের নিমিত্তে অধিগ্রহনের জন্য নির্ধারিত স্থানটি অনুপযুক্ত এবং ভাঙ্গনের ঝুঁকি রয়েছে। চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জায়গা নির্ধারনের জন্য যে বিষয়গুলোর উপর গুরুত্ব দেয়া হয় তা হলো- বিশ্ববিদ্যালয়টি যেন শহরের প্রাণকেন্দ্র থেকে বেশি দূরে না হয়। বিশ্ববিদ্যালয়টির সাথে আশেপাশের জেলাগুলোর যোগাযোগ ব্যবস্থা যেন ভালো থাকে। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় যেন কোন হাইওয়ে সড়কের পাশে না হয়, তার অন্যতম কারণ প্রায়শ: দেখা যায় কোন ছাত্র অসন্তোষ দেখা দিলে ছাত্ররা হাইওয়ে অবরোধ করে দেন ও যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিপর্যয় ঘটে। এ সকল দিক বিবেচনা করে লক্ষ্মীপুরের জায়গাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য প্রস্তাব করা হয় কারন লক্ষ্মীপুর ইউনিয়ন শহর থেকে মাত্র ৩ কি:মি: দূরে এবং লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের সাথে শরিয়তপুর, মাদারীপুর, লক্ষ্মীপুর জেলার যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো। নির্ধারিত স্থানটি স্থায়ী বাঁধ এবং পানি উনড়বয়ন বোর্ডের বেড়ী বাঁধের ভিতরে অবস্থিত। গত দশ বছরের অধিককালে সেখানে কোন ধরনের ভাঙ্গনের কোন ঘটনা ঘটেনি। পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রতিবেদনেও এখানে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা যায় মর্মে মত দেয়া হয়েছে।

১৮। ডা: দীপু মনি এম পি এর বিগত ১৩ বছরে তার নির্বাচনী এলাকায় বহু সরকারি স্থাপনা নির্মিত হয়েছে এবং এসকল স্থাপনার জন্য জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে। এর কোন অধিগ্রহণকৃত জমিতে কোথাও কখনো ডা: দীপু মনি বা তার পরিবারের কোন জমি কখনো ছিলো না। চাঁদপুর হাইমচরে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণ করান তিনি। সেখানে জমির মূল্য শতাংশ প্রতি ৫ হাজার টাকা থেকে কয়েক লক্ষ টাকায় উনড়বীত হয়। সেখানেও ডা: দীপু মনি বা তার পরিবার কোন জমি কখনো ক্রয় করেননি।

১৯। গত ১৩ বছরে কোন নিয়োগে, কোন টি আর, কাবিখা বিতরণে, কোন প্রকল্পের টেন্ডার প্রক্রিয়ায় বা অন্য কোন কার্যক্রমে ডা: দীপু মনি বা তার পরিবারের কোন ধরনের আর্থিক অস্বচ্ছতা বা অনিয়ম কোন দিন ছিল না এ বিষয়ে জেলার সরকারি, বেসরকারি কর্মকর্তাসহ জেলার রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ ও সাধারণ জনগন সবাই অবগত আছেন। কি উদ্দেশ্য হঠাৎ করেই আজ ডা: দীপু মনিকে অসৎ প্রতিপক্ষ করবার, হেয় করবার চেষ্টা করা হচ্ছে তা খতিয়ে দেখা প্রয়োজন।

২০। যে বা যারা কোন কোন গনমাধ্যম বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ডা: দীপু মনি বা তাঁর পরিবারকে জড়িয়ে জঘন্য মিথ্যাচার করছে তাদের আসল উদ্দেশ্য উদঘাটিত হওয়া অতীব জরুরী।

২১। এটি শুধু ডা: দীপু মনির সততাকে প্রশড়ববিদ্ধ করা নয়, জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে শেখ হাসিনা সরকারকে অপদস্থ করারও ঘৃন্য অপচেষ্টা বলে অনেকেই আশংকা করছেন।

ভয়েসটিভি/এমএম

Categories
সারাদেশ

নড়াইলে অস্ত্র মামলায় ১ জনের যাবজ্জীবন

নড়াইলে অস্ত্র মামলায় নাসির শেখ ওরফে গোফরান নামে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মুন্সী মো. মশিয়ার রহমান।

২৪ জানুয়ারি সোমবার দুপুরে এ আদেশ দেন তিনি। নাসির শেখ যশোর জেলার অভয়নগর থানার ধুলগ্রাম গ্রামের তছির শেখের ছেলে। রায় ঘোষণার সময় কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি পলাতক ছিলেন।

মামলার অপর দুই আসামি একই গ্রামের বাবু লালের ছেলে বায়েজীদ ও রহমান সর্দারের ছেলে মফিজ সর্দারকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৪ সালের ৩ ডিসেম্বর নড়াইল জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারের অভিযান পরিচালনা করেন। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে নড়াইল-যশোর মহাসড়কের সীতারামপুর ব্রীজের ওপর যানবাহন তল্লাশিকালে খুলনা মেট্রো ল-১১-৩২৭৮ নং ইয়াহামা এফজেড মোটরসাইকেল চালিয়ে আসামি নাসির শেখ ওরফে গোফরান ওরফে দুর্জয়কে আসতে দেখে থামার সংকেত দেয় পুলিশ।

এ সময় আসামি মোটরসাইকেলের গতি কমিয়ে হঠাৎ করে আবার গতি বাড়িয়ে নড়াইল শহরের দিকে চলে যেতে থাকে। এ সময় গোয়েন্দা পুলিশ ও পুলিশের অন্য একটি দল তাকে ধাওয়া করে এবং স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় নড়াইল বউবাজার ভওয়াখালী পাগলের বটতলা নামক স্থানে তাকে আটক করে। সাক্ষীদের সামনে তার শরীর তল্লাশী করে একটি বিদেশি পিস্তল (মেইড ইন চায়না), ম্যাগজিন, সাত রাউন্ড গুলি এবং একটি ইয়াহামা এফজেড মোটরসাইকেল জব্দ করে।

পরে পুলিশ বাদী হয়ে নড়াইল সদর থানায় অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এ রায় দেন।

এছাড়া জব্দকৃত আলামত রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করে জেলা পুলিশ লাইন্সের অস্ত্রাগারে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
সারাদেশ

সোনাগাজীতে অস্ত্রসহ যুবক আটক

ফেনীর সোনাগাজীতে তিনটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ এক যুবককে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ ।

ধৃত যুবকের নাম নুর ইসলাম রাসেল (৩৪)। সে উপজেলার চর খোয়াজ গ্রামের মাঝি বাড়ীর আব্দুল করিমের ছেলে।

ফেনী গোয়েন্দা পুলিশের ওসি মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার ভোররাতে সোনাগাজী উপজেলার চর খোয়াজ গ্রামের মাঝি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে রাসেলকে আটক করা হয়। এ সময় তার ঘর তল্লাশি করে দেশীয় তৈরি দুটি এলজি, একটি একনালা বন্দুক ও একটি বড় রামদা উদ্ধার করা হয়।

ওসি আরো জানান, সোমবার সকালে অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করে ধৃতকে সোনাগাজী থানার মাধ্যমে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সোনাগাজী সদর ইউপি চেয়ারম্যান শামসুল আরেফিন জানান, রাসেল তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসী । দীর্ঘদিন পলাতক ছিল। ইউপি নির্বাচনে তাকে ব্যবহার করেছে এক চেয়ারম্যান প্রার্থী। সে চুরি ডাকাতি ও অস্ত্র ব্যবসার সাথে জড়িত ছিল। তার গ্রেপ্তারের খবরে জনমনে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
সারাদেশ

উখিয়ায় ভূয়া র‍্যাব সদস্য গ্রেফতার

উখিয়ার বালুখালী এলাকায় ভোর পৌনে ৫ টার দিকে র‍্যাব জ্যাকেট পরিহিত অবস্থায় সুমন মুন্সি নামের এক ভূয়া র‍্যাব সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১৫। র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-১৫ কক্সবাজার কার্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ২৪ জানুয়ারি সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

গ্রেফতার সুমন গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার রাজপাট ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড রাজপাট গ্রামের আকবর আলী মুন্সি’র ছেলে।

জানা যায়, কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানাধীন পালংখালী ইউনিয়নস্থ বালুখালী বাজারে বিভিন্ন দোকানে একজন ব্যক্তি র‍্যাব পরিচয় দিয়ে চাঁদা দাবি করে আসছে। প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে রোববার ২৩ জানুয়ারি আনুমানিক পৌনে ৫ টার দিকে র‍্যাব -১৫ এর এক আভিযানিক দল ওই এলাকায় যায়। এ সময় র‍্যাবের উপস্থিতি বুঝতে পেরে পালানোর চেষ্টা করলে সুমন মুন্সিকে (৩০) র‍্যাব জ্যাকেট পরিহিত অবস্থায় গ্রেফতার করা হয়।

আরও পড়ুন : মাধবপুরে মাদক উদ্ধার অভিযানে গিয়ে হামলার শিকার র‍্যাব, আহত ৩

পরে দেহ তল্লাশী করে তার কাছ থেকে একটি ভূয়া র‍্যাব আইডি কার্ড, একটি হ্যান্ডকাপ ও চাঁদাবাজি করে আদায়কৃত একটি স্বর্ণের চেইন, একটি স্বর্ণের রিং, তিনটি মোবাইলফোন এবং নগদ ৪ হাজার একশ টাকা উদ্ধার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে সুমন জানায় সে একজন চাকুরিচ্যুত সেনা সদস্য। দীর্ঘদিন যাবৎ র‍্যাব সদস্য পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন এলাকা হতে চাঁদাবাজি করে অর্থ ও সম্পত্তি আদায় করে আসছে।

র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-১৫ কক্সবাজার কার্যালয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল এন্ড মিডিয়া) ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আবু সালাম চৌধুরী ভয়েস টেলিভিশনকে জানান, আটককৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উখিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।

ভয়েসটিভি/এমএম

Categories
সারাদেশ

চাঁদপুরে বেড়েছে করোনা শনাক্তের সংখ্যা ও হার

চাঁদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদিন মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩০৪টি। নমুনা পরীক্ষা অনুযায়ী শনাক্তের হার ৩৭.৫০ শতাংশ।

চাঁদপুর সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে প্রাপ্ত খবরে বলা হয়,এর আগের দিন ৮৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সেদিন নমুনা পরীক্ষা অনুযায়ী শনাক্তের হার ছিল ৩৬.৯৭ শতাংশ। সেই হিসাবে জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের সংখ্যা ও হার বেড়েছে।

চাঁদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় যারা শনাক্ত হয়েছেন, তাদের মধ্যে সদর উপজেলার ৭৮ জন, ফরিদগঞ্জের ১৬ জন, হাজীগঞ্জের ৫ জন, মতলব উত্তরের ৩ জন, কচুয়ার ১ জন, হাইমচরের ১ জন, শাহরাস্তির ৮ জন ও মতলব দক্ষিণের ২ জন রয়েছেন। একই দিনে ৩০ জনকে সুস্থ ঘোষণা করা হয়েছে।

জানা যায়, জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ হাজার ৭৯৪ জন। এর মধ্যে মৃতের সংখ্যা ২৪২ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ ঘোষণা করা হয়েছে ১৫ হাজার ৮০ জনকে। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ৪৭২জন। আক্রান্তদের মধ্যে ৪ জন হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ও বাকীরা হোম আইসোলেশনে আছেন।

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
সারাদেশ

ট্রেনের ইঞ্জিনের সঙ্গে ভটভটি আটকে নিহত ৩

চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের আলীনগর এলাকায় অরক্ষিত রেল ক্রসিংয়ে ট্রেনের ইঞ্জিনের সঙ্গে ভটভটি আটকে তিনজনের প্রাণ গেছে। সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে একটি লোকাল ট্রেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশন থেকে ঈশ্বরদী যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেন স্টেশন মাস্টার শহীদুল আলম।

নিহতরা হলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার ভুতপুকুর মহল্লার মৃত গরীবুল্লাহর ছেলে ফুলচান (৫৫), আলীনগর মহল্লার রইস উদ্দিনের ছেলে সেহের আলী (৪৪) ও সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের আমনুরা কেন্দুল গ্রামের মানিক চাঁদের ছেলে নাইমুল ইসলাম (৩৫)। এরা সবাই পেশায় মাছ ব্যবসায়ী।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক ছাবের আলী জানান, ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশন ছেড়ে আলীনগর রেল ক্রসিংয়ে পৌঁছালে একটি ভটভটি হঠাৎ রেললাইনে উঠে ট্রেনের সামনে পড়ে যায়। সংঘর্ষের পর ট্রেনের ইঞ্জিনের সঙ্গে ওই ভটভটি আটকে যায়। ওই অবস্থায় বেশ কিছু দূর ছেঁচড়ে যায়। তাতে ঘটনাস্থলেই ভটভটিতে থাকা তিনজনের মৃত্যু হয়। পরে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থল থেকে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেন।

‘ওই ক্রসিংয়ে কোনো রেলগেট ছিল না। ভটভটি চালকের অসাবধানতার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে মনে হচ্ছে,’ যোগ করেন ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক।

ভয়েসটিভি/এমএম

Categories
সারাদেশ

চাঁদপুরের উন্নয়ন যজ্ঞ : প্রতিহিংসার অপপ্রচার

আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় টানা এক যুগের অধিক সময়। এই সময় চাঁদপুর জেলায় হয়েছে ব্যাপক উন্নয়ন। এর মধ্যে দৃশ্যমান বড় বড় উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন হয়েছে চাঁদপুর সদর ও হাইমচরে। এই আসনের টানা তৃতীয় বারের মতো সংসদ সদস্য দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি।

একজন ক্লিন ইমেজের রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও বর্তমান সফল শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপির ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় চাঁদপুরের রেকর্ড পরিমাণ উন্নয়ন হয়েছে। পরিচ্ছন্ন রাজনীতিক কমকাণ্ডের কারণে জেলার প্রায় সকল জনপ্রতিনিধি এবং রাজনীতিক নেতাদের চেয়ে দীপু মনির অবস্থান কেন্দ্রে এবং নিজ এলাকায় অনেক বেশি সুসংহত। এতে আতে ঘা লাগছে বিরোধী দলীয় নেতাদের পাশাপাশি নিজ দলের জনবিচ্ছিন্ন কিছু নেতার। যার কারণে দীপু মনি এমপির প্রচেষ্টায় বড় কোনো উন্নয়ন কমকাণ্ড শুরু হলে পাগলপ্রায় হয়ে যায় ওই অপশক্তি। এরা নানা ভাবে চেষ্টা করে দীপু মনির ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার জন্যে, কিন্তু বরাবরই ব্যর্থ হয়। কথা গুলো বলছিলেন, চাঁদপুরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পুরান বাজার ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ রতন কুমার মজুমদারসহ বেশ কয়েকজন ব্যক্তি ও সাধারণ মানুষ।

শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপির নিরন্তর প্রচেষ্টায় এবং সরকার প্রধান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি এবং আন্তরিকতায় চাঁদপুরে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়িত হয়েছে এবং হচ্ছে। স্থায়ী বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ হয়েছে। চাঁদপুর ও হাইমচরে নদী ভাঙ্গন বন্ধ হয়েছে ৯৫ ভাগ। ৪টি সরকারি বেসরকারি বিদ্যুৎ কেন্দ্র হয়েছে, রেকর্ড সংখ্যক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাকা ভবন হয়েছে, শত শত কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা পাকা হয়েছে, সড়ক, রেলেরও ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে, কয়েক হাজার মানুষের আশ্রয় হয়েছে আশ্রয়ন প্রকল্পে। ।
একের পর এক দৃশ্যমান উন্নয়নে বদলে যাওয়ার চাঁদপুরের উন্নয়ন যজ্ঞ বাঁধাগ্রস্ত করার নানা অপচেষ্টা হচ্ছে।

সংসদ নির্বাচনের আগে সবাই প্রতিশ্রুতি দিতো নির্বাচিত হলে নদী ভাঙন প্রতিরোধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। স্বাধীনতার পর প্রতিটি সংসদ নির্বাচনের আগেই এমন আশ্বাস দেয়া হতো। কিন্তু ভোটে জিতে আর নদী ভাঙ্গন প্রতিরোধে কেউ কাজ করে নাই। কিন্তু ডা. দীপু মনি এমপি নির্বাচিত হয়েই নদী ভাঙন রোধে স্থায়ী সংরক্ষণ কাজ শুরু করলেন। অথচ এই নদী ভাঙন প্রতিরোধে স্থায়ী প্রতিরক্ষা বাঁধ যখন নির্মাণ হয় তখনও একটি চক্র বাঁধ নির্মাণে লুটপাট হচ্ছে, এ জন্যে তৎকালীন সফল পররাষ্ট্র মন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপির উন্নয়ন যজ্ঞে কালিমা দিতে চেয়েছেন। অথচ এক যুগের অধিক সময় টিকে আছে বাঁধ। কোথাও বাঁধ ভেঙ্গে যায়নি। স্থায়ী বাঁধের কারণে হাইমচরে ৫ হাজার টাকা শতাংশ জমির দাম হয়েছে ৩ লাখ টাকা। উপকৃত হয়েছে অঞ্চলের মানুষ। জানালেন হাইমচরে নব নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান পাটোয়ারী।

চাঁদপুর শহর লাগোয়া বাগাদী ইউনিয়নের ডাকাতিয়া নদীর তীরে প্রস্তাবিত মেডিকেল কলেজ এর জন্য প্রাথমিক প্রস্তাবিত জায়গার ৫শ গজের মধ্যে বিশাল এলাকা জুড়ে সরকারি মেরিন ইনস্টিটিউট স্থাপিত হয়েছে। সেই সাথে বেসরকারি উদ্যোগে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপিত হয়েছে। বহু মানুষ বাড়ি ঘর, পাকা স্থাপনা নির্মাণ করছে। ভাঙন আতংক বা নদী ভাঙ্গনের আশংকা থাকলে কি গেলো এসব স্থাপন হতো। অবশ্যই হতো না। অথচ অপপ্রচার করা হচ্ছে যে, বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশ হয়েছে ডাকাতিয়া নদীর ভাঙনের হুমকির মুখে প্রস্তাবিত মেডিকেল কলেজের প্রস্তাবিত স্থান চক্রান্তকারীদের আপপ্রচার আর বিভ্রান্তির কারণে গেলো চার বছরেও অধিগ্রহণ হয়নি চাঁদপুর মেডিকেল কলেজের ভূমি। দৃশ্যমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভবন তো এখনো অলিক কল্পনা।

চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান বলেন, চাঁদপুর ও হাইমচরে যে উন্নয়ন হয়েছে গেলো এক যুগে তা ইতিহাসে বিরল। স্বাধীনতার পরে কোন এমপি কিংবা মন্ত্রী এতো উন্নয়ন করে নাই যতো উন্নয়ন হয়েছে গত এক যুগে ডা. দীপু মনির প্রচেষ্টায়।

চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুযায়ী জেলার চাঁদপুর সদর উপজেলাতেই স্থাপন করতে হতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়। সেই লক্ষ্যে সদর উপজেলার লক্ষীপুর মডেল ইউনিয়নে ফ্লিম সিটির জন্যে নির্ধারিত এলাকায় চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্যে প্রাথমিক স্থান নির্ধারণ করে জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জায়গা নির্ধারণের পর থেকেই শুরু হয় নতুন করে চক্রান্ত ।

প্রথমে আপপ্রচার শুরু হয় নদীতে ভেঙ্গে যাবে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্যে প্রস্তাবিত এলাকা। পরবর্তীতে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বিশেষজ্ঞ টিম জরিপ এবং পর্যবেক্ষণ করে মতামত দেয় প্রস্তাবিত স্থান নদী ভাঙনের ঝুঁকি মুক্ত। এর পর ওই চক্র বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থান সদর উপজেলার থেকে পরিবর্তন করে বাহিরের অন্য উপজেলায় স্থাপনের জন্যে উঠে পড়ে লাগে। সেই চেষ্টা ব্যর্থ হবার পর এবার শুরু হয়েছে নতুন করে দুর্নীতির অভিযোগ! ভূমি অধিগ্রহণ করা হলে ভূমির মূল্য বা ক্ষতিপূরণ আইন অনুয়ায়ী পেয়ে থাকে ক্ষতিগ্রস্তরা। জমি অধিগ্রহণ হয়নি, দেয়া হয়নি কোনো অর্থ ছাড় তবুও প্রপাগাণ্ডা রটানো হচ্ছে কোটি কোটি টাকা লুটপাট করা হয়েছে।

এ বিষয়ে লক্ষীপুর মডেল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সেলিম খান জানান, লক্ষীপুরের অনেক বড় একটি জায়গা নিয়ে ফ্লিম সিটি করার জন্যে নির্ধারিত ছিলো। ওই ভুমিতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ব বিদ্যালয় স্থাপনের জন্যে প্রাথমিকভাবে প্রত্যাশী সংস্থা ও জেলা প্রশাসন পছন্দ করে নির্ধারণ করে। ভুমি অধিগ্রহণ এখনো হয়নি। আইন অনুযায়ী ভূমি অধিগ্রহণের জন্যে ভূমির মূল্য জেলা ভূমি বরাদ্ধ কমিটি নির্ধারণ করে থাকে। এখানে যাদের জমি তাদের দাম নির্ধারনের কোন সুয়োগ নেই। ভুমি অধিগ্রহণের জন্যে কোনো অর্থ ছাড়ও দেয়া হয়নি। মানে কেউ জমির মূল্যে পায়নি। অথচ একটি কুচক্রি মহল সাম্প্রতিক সময়ে নানা প্রপাগাণ্ডা শুরু করেছে যে ভূমি অধিগ্রহণের নামে কোটি কোটি টাকা লুটপাট হয়েছে। যা সত্যিকার অর্থে হাস্যকর।

এদিকে হাইমচরের মেঘনার পশ্চিম তীরে চরে সরকার অর্থনৈতিক অঞ্চল করার উদ্যোগ নেয়। মেঘনা নদীর তীরে ৮ হাজার ১শত ২ একর জমিতে অর্থনৈতিক অঞ্চল করার লক্ষ্যে ইতোমধ্যে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) কে জমি দীর্ঘমেয়াদী বন্দোবস্ত প্রদান করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অথনৈতিক অঞ্চল নদী গর্বে বিলীন হয়ে যাবে বলে আপপ্রচারকারীরা কথিত কিছু মিডিয়ায় নানা বিভ্রান্তিকর রিপোর্ট প্রকাশ করার কারণে সেই প্রকল্পের কাজেও চলে এসেছে ধীরো গতি।

জেলা ছাত্রলীগের একাধিক ত্যাগী নেতা জানান, দীপু মনি তার কর্মে লাখো মানুষের হৃদয়ে ঈর্ষণীয় ভাবে স্থান করে নিয়েছেন। যাদের রাজনীতির কোন ভিত্তি নেই তারাই ষড়যন্ত্র আর অপপ্রচার করে যাচ্ছে।

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শহীদ পাটোয়ারী জানান, একের পর এক বিভ্রান্তি, অপপ্রচার করে বারবার বাঁধাগ্রস্ত করার অপচেষ্ট করা হচ্ছে চাঁদপুর-হাইমচরের উন্নয়ন। তবে সব সময় সত্যেয় জয় হয়েছে।

ভয়েসটিভি/এমএম

Categories
সারাদেশ

রাজধানীতে ট্রাকের ধাক্কায় ভ্যানচালকের মৃত্যু

রাজধানীর বেইলি রোডে ট্রাকের ধাক্কায় এক ভ্যানচালক নিহত হয়েছেন। তার নাম নুরে আলম (৪০)। এদিকে তুহিন হোসেন (৩৮) নামের আরেক ভ্যানচালক আহত হয়েছেন।

২৪ জানুয়ারি সোমবার ভোরে বেইলি রোডে সার্কিট হাউজ মসজিদের সামনের রাস্তায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত নুরে আলমের বাড়ি দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলায়। তার বাবার নাম মেহেরাব হোসেন। তিনি তেজগাঁও রেলস্টেশন সংলগ্ন ডিমের আড়তে বসবাস করতেন।

রমনা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মুহাইমিনুল হাসান এ বিষয়ে জানিয়েছেন, সোমবার সকালে বেইলি রোডে সার্কিট হাউজের সামনে দিয়ে দু’টি ভ্যান গাড়ি ডিম নিয়ে যাওয়ার পথে একটি সিমেন্ট কোম্পানির ট্রাক তাদেরকে ধাক্কা দেয়। এ সময় গুরুতর আহত হন নুরে আলম। দ্রুত খবর পেয়ে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি জানান, মরদেহটি মর্গে রাখা হয়েছে। অপর ভ্যানচালক তুহিন পায়ে ব্যাথা পেয়েছেন। তাকে জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। তবে চালক পালিয়ে গেছে।

ভয়েস টিভি/আরকে

Categories
সারাদেশ

কলা খেয়ে নাফিসের গিনেস রেকর্ড

নীলফামারী সৈয়দপুর ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের বাংলা ভার্সণের দশম শ্রেণির ছাত্র নাফিস ইসতে তৌফিক অন্তু।

মহামারী করোনায় বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড গড়ার ভুত চাপে অন্তুর ঘাড়ে। বারবার চেষ্টা করে ব্যর্থ হলেও হাল ছাড়েনি কখনই।

করোনাকালে স্কুল বন্ধ থাকায় গিনেস রেকর্ড গড়ার ইচ্ছা জাগে অন্তুর। প্রথমে স্ট্যাপলারের পিন দিয়ে শিকল তৈরি করে রেকর্ড গড়ার চেষ্টা করে সে।

পরে যুক্তরাষ্ট্রের জর্জ পিলের ৭.৩৫ সেকেন্ডের রেকর্ড ভেঙে মাত্র ৭.১৬ সেকেন্ডে পরিধান করে ১০টি সার্জিক্যাল মাস্ক অন্তু।

পাশাপাশি হাতের ব্যবহার ছাড়াই মুখ দিয়ে কলার খোসা ছাড়িয়ে ৩০.৭১ সেকেন্ডে খেয়ে কানাডার মাইক জ্যাকের ৩৭.৭ সেকেন্ডের রেকর্ড ভেঙে দেন।

এর ফলস্বরূপ অন্তু ১৯ ডিসেম্বর হাতে পেয়েছে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের দুটি সনদপত্র।

অল্প বয়সে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড গড়ায় আনন্দিত অন্তুর পরিবারের সদস্য ও বিদ্যালয়ের সহপাঠীসহ শিক্ষকমণ্ডলী।

গিনেস বুক রেকর্ডধারী অন্তু বলে, করোনাকালীন পড়ালেখার পাশাপাশি টেলিভিশনে দেখে ইচ্ছে জাগে গিনেস ওয়ার্ল্ডে রেকর্ড গড়ার। তারপর সে অনেক পরিশ্রম করতে হয়েছে।

আল্লাহ তায়ালার অশেষ মেহেরবানিতে দুটি রেকর্ড গড়তে সক্ষম হয়েছি। আর একটি রেকর্ড গড়ার প্রস্তুতি চলছে। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন আমি যেন আমার শেষ ইচ্ছেটা পূরণ করতে পারি।

নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার নীলকুঞ্জ আবাসিক এলাকার ইউনূছ আলী ও নাসমুন নাহার দম্পতির দুই সন্তানের মধ্যে বড় সন্তান নাফিস ইসতে অন্তু।

অন্তুর বাবা একটি মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিতে মার্কেটিং বিভাগে চাকরি করেন এবং মা গৃহিনী। পড়াশোনার পাশাপাশি ঘরে বসে বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রপাতি দিয়ে বিভিন্ন উপাদান উদ্ভাবনের চেষ্টা করে অন্তু।

তবে ছোট বেলা থেকেই অন্তুর স্বপ্ন একজন ইঞ্জিনিয়ার হওয়া।

Categories
সারাদেশ

কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকতে আরও এক মৃত ডলফিন

পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকতে আরও একটি মৃত ডলফিন ভেসে এসেছে। রোববার সকালে জোয়ারে সৈকতের পশ্চিম দিকের অংশে এটি ভেসে আসে। ইরাবত প্রজাতির ডলফিনটি উদ্ধার করেছেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ব্লুগার্ড সদস্যরা।

উপকূলের জীববৈচিত্র্য নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠান ওয়ার্ল্ডফিশ বাংলাদেশের ইকো ফিশ-২ অ্যাকটিভিটির পটুয়াখালীর সহযোগী গবেষক সাগরিকা স্মৃতি জানান, ডলফিনটি সদ্য মৃত বলে মনে হয়েছে। এর দৈর্ঘ্য ৪ ফুট ৫ ইঞ্চি, ওজন ৪০ কেজি। এর বাঁ পাশের পাখনাটি কেটে ফেলা হয়েছে। তার ধারণা, জেলেদের জালে আটকা পড়লে ডলফিনটির কান, পাখনা ও ঠোঁট কেটে জাল থেকে ছাড়িয়ে নেওয়ার চেষ্টার সময় ডলফিনটি গুরুতর জখম হয়।
সাগরিকা বলেন, ডলফিনসহ সমুদ্রের জীববৈচিত্র্যের নিরাপদ আশ্রয় নিশ্চিত করা দরকার। বহুদিন ধরেই তারা এ দাবি জানিয়ে আসছেন। দ্রুত এদিকে নজর না দিলে সমুদ্রের প্রাণীকুল আরও হুমকিতে পড়বে।

পটুয়াখালী জেলা বন কর্মকর্তার নির্দেশে ব্লুগার্ড সদস্যরা ডলফিনটি মাটিচাপা দেন। জেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ডলফিন মৃত্যুর ঘটনায় তারা উদ্বিগ্ন। ডলফিন রক্ষায় বেশ কয়েকবার জেলেদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

কুয়াকাটা সৈকতে ২০২১ সালে ২৩টি মৃত ডলফিন পাওয়া গেছে। তবে চলতি বছর এটাই প্রথমবার। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মনিরুল এইচ খান বলেন, আইন অনুযায়ী সাগরের সংরক্ষিত এরিয়াগুলো দেখভালের মতো সরকারের লোকবল এবং অবকাঠামো নেই। ব্যবস্থাপনায়ও আছে দুর্বলতা।

আরও পড়ুন : কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে ভেসে এলো মৃত ডলফিন

ভয়েসটিভি/এমএম