Categories
জাতীয় সারাদেশ

ট্রেন টিকিট বিক্রি হবে অনলাইনে

ভয়েস রিপোর্ট: করোনা মহামারীর কারণে দুই মাসেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর আগামীকাল রোববার থেকে সীমিত পরিসরে ট্রেন চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।
কাল (৩১ মে) থেকে ৮টি আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল করবে বিভিন্ন রুটে। তবে ট্রেনের সব টিকিট অনলাইন বিক্রি করা হবে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী মো. নুরুল ইসলাম সুজন।
শনিবার রেলভবনে সংবাদ সম্মেলন করে মন্ত্রী জানান, আগামীকাল রোববার থেকে সোনার বাংলা এক্সপ্রেস, সূবর্ণ এক্সপ্রেস, কালনী, পাহাড়িকা এক্সপ্রেস, বনলতা এক্সপ্রেস, চিত্রা এক্সপ্রেস, পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ও লালমনি এক্সপ্রেস ঢাকার বাইরে চলাচল করবে।
রেলমন্ত্রী আরও বলেন, রেলের ভাড়ছে না। সব টিকিট অনলাইনে বিক্রি হবে। ট্রেনের খাবার ব্যবস্থা থাকবে না। ট্রেনের এক দরজা দিয়ে উঠতে হবে এবং নামতে হবে অন্য দরজা দিয়ে।
টিকিট ছাড়া যেন কেউ প্লাটফর্মে প্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়টি শতভাগ নিশ্চিত করা হবে বলে জানান তিনি।
এছাড়া আগামী ৩ জুন থেকে ১১টি ট্রেন চলাচল করবে বলে জানান নুরুল ইসলাম সুজন।
এই ট্রেনগুলো হচ্ছে- ঢাকা দেওয়ানগঞ্জবাজার রুটে তিস্তা এক্সপ্রেস, ঢাকা-বেনাপোল রুটে বেনাপোল এক্সপ্রেস, ঢাকা-চিলাহাটি রুটে লসাগর এক্সপ্রেস, খুলনা-চিলাহাটি রুটে রূপসা এক্সপ্রেস, খুলনা-রাজশাহী রুটে কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস, রাজশাহী-গোয়ালন্দ ঘাট রুটে মধুমতি এক্সপ্রেস, চট্টগ্রাম-চাঁদপুর রুটে মেঘনা এক্সপ্রেস, ঢাকা-কিশোরগঞ্জ রুটে কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস এবং ঢাকা-নোয়াখালী রুটে উপকূল এক্সপ্রেস।
সংবাদ সম্মেলন থেকে জানানো হয়, এখন থেকে বিমানবন্দর রেল স্টেশন, জয়দেবপুর ও নরসিংদী রেল স্টেশনে কোনও ট্রেন থামবে না।
করোনার কারণে গত ২৫ মার্চ থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে মালবাহী ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

Categories
জাতীয় সারাদেশ

ত্রাণে অবৈধ হস্তক্ষেপ : ৭২ জনপ্রতিনিধি বরখাস্ত

ভয়েস রিপোর্ট :  মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারের জরুরি ত্রাণ বিতরণে অবৈধ হস্তক্ষেপ, বাঁধা দেয়া, আত্মসাৎ চেস্টা করায় এখন পর্যন্ত সারা দেশে ৭২ জন জনপ্রতিনিধিকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হবার পর এ নিয়ে মোট ৭২ জন জনপ্রতিনিধিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। এদের মধ্যে ২৩ জন ইউপি চেয়ারম্যান, ৪৫ জন ইউপি সদস্য, ১ জন জেলা পরিষদ সদস্য, ২ জন পৌর কাউন্সিলর এবং ১ জন উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান।

স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে জনস্বার্থে বিভিন্ন সময়ে পৃথক পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করে সাময়িকভাবে সাময়মিক ভাবে উল্লেখিত জনপ্রতিনিধিদের বরখাস্ত করা হয়।

অর্থাৎ সরকার করোনাকালে ত্রান সাহয়তা বিতরেন কোন প্রকার অনিয়ম সহ্য করছে না । সেই সাথে অনিয়ম কঠোর হস্তে দমন করছে ।

সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার ত্রাণকাজ পরিচালনায় বাধা দেওয়ায় এবং টাঙ্গাইল সদর উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও)-কে মারধর ও লাঞ্ছিত করার অভিযোগে টাঙ্গাইল সদর উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান নাজমুল হুদা (নবীন)-কে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

Categories
সারাদেশ

সাতক্ষীরায় ঘূর্ণিঝড় আম্পানের পর বেড়েছে করোনা আতঙ্ক

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরায় ঘূর্ণিঝড় আম্পানের পর বেড়েছে করোনা আতঙ্ক। এ জেলায় ঘূর্ণিঝড়ের আগে যে হারে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ হচ্ছিলো, বর্তমানে সে হার খানিকটা বেশি। এ বিষয়ে আরো জানতে দেখুন ভিডিওটি:

Categories
সারাদেশ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় লিচুর বাম্পার ফলন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এবার লিচুর বাম্পার ফলন হয়েছে। কিন্তু দেশজুড়ে অঘোষিত লকডাউন থাকায় এ লিচু বিভিন্ন জেলায় পাঠানো যাচ্ছে না। এ কারণে লোকসানের আশঙ্কা করছেন লিচু চাষিরা। বিস্তারিত দেখুন ভিডিওতে।

Categories
সারাদেশ

করমজলে ৫২টি ডিম দিয়েছে কুমির জুলিয়েট

মোংলা প্রতিনিধি: পূর্ব সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে এবার কুমির জুলিয়েট ৫২টি ডিম দিয়েছে। শুক্রবার সকালে কেন্দ্রের কুমির প্রকল্পের পুকুর পাড়ে এ ডিম দেয় কুমিরটি। এ নিয়ে জুলিয়েট ডিম দিলো মোট ১৫ বার। গত বছর ডিম দিয়েছিল ৪৪টি।
করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন ও পর্যটন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আজাদ কবির জানান, ৫২টি ডিমের মধ্যে ১৪ টি ডিম বাচ্চা ফুটানোর জন্য জুলিয়েটের বাসায়, ২৬টি পুরাতন ইনকিউবেটরে আর ১২টি নতুন ইনকিউবেটরে রাখা হয়েছে। ৮৫ থেকে ৯০ দিনের মধ্যে ডিম থেকে বাচ্চা ফুটে বের হবে।
আজাদ কবির আরো জানান, করমজলের কুমির প্রজনন কেন্দ্রে বর্তমানে ছোট বড় মিলিয়ে মোট ১৯৫টি কুমির রয়েছে। এরমধ্যে জুলিয়েট ও পিলপিল নামের দুইটি নারী কুমির এবং রোমিও নামে একটি পুরুষ কুমির দিয়ে করমজলে কুমিরের প্রজনন কার্যক্রম চলছে। বিলুপ্ত প্রায় লবণ পানির প্রজাতির কুমিরের প্রজনন ও বংশ বিস্তারের লক্ষ্যেই ২০০০ সালে করমজলে এই কুমির প্রজনন কেন্দ্রটি চালু হয়। এ প্রজনন কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত বয়স্ক ৯৭টি কুমির সুন্দরবনের নদ-নদীতে অবমুক্ত করেছে বনবিভাগ।

Categories
সারাদেশ

কক্সবাজারে বন্দুকযুদ্ধে এক ডাকাত নিহত

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কে র্যা বের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত মোহাম্মদ ইসহাক নিহত হয়েছে। শুক্রবার রাত ২ টার দিকে খোনকার পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
র্যা ব কর্মকর্তাদের দাবি, নিহত ইসহাক টেকনাফের শালবাগান কেন্দ্রিক রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রুপ জকির বাহিনীর মাষ্টার মাইন্ড ছিলো। শুক্রবার দুপুরে কক্সবাজার র্যা ব-১৫ এর সহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, টেকনাফের খোনকার পাড়ায় ইসহাকের অবস্থানের খবর পেয়ে গ্রেফতার করতে যায় তারা। এসময় তার সহযোগীরা র্যা বকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। আত্মরক্ষায় র্যা বও পাল্টা গুলি চালায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে দুটি ওয়ান শুটারগান, ৬ রাউন্ড গুলি ও তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় র্যা বের তিন সদস্য আহত হয়েছে। এ ব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানায় সংশ্লিষ্ঠ ধারায় মামলা করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Categories
ভিডিও সংবাদ সারাদেশ

নোয়াখালীতে স্ত্রীকে খুন, কুড়িগ্রামে যুবক হত্যা

ভয়েস ডেস্ক: নোয়াখালী সদর উপজেলায় পরকীয়ার জেরে গৃহবধূ বিবি মরিয়ম ও শিশু সন্তান মাইমুনা আক্তারকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত স্বামী আকবর আলী বাবরসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন পালিয়ে গেছে।
শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার নোয়াখালী ইউনিয়নের সল্লা গ্রামের মুন্না মিয়ার বাগান বাড়ির একটি গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় বিবি মরিয়ম ও পাশের পুকুর থেকে শিশু মাইমুনার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বাবরের পরকীয়ায় জের ধরেই এই হত্যাকাণ্ড বলে অভিযোগ করেন নিহতের ভাই আব্দুল করিম।

কুড়িগ্রামের উলিপুরে জমির ধান গরুর খাওয়া নিয়ে বিবাদের জেরে দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে সিদ্দিকুর নামে এক যুবককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।
বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার দূর্গাপুর ইউনিয়নের অর্জুনডারা গ্রামে এ গটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানায়, মাহমুদের গরুর বাছুর প্রতিবেশী আইনুল ইসলামের জমির ধান খেলে ঝগড়া শুরু হয়। এ ঘটনায়বৃহস্পতিবার রাতে আইনুলের পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালালে সিদ্দিকুর মাথায় আঘাত পায়। তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নওগাঁর রাণীনগরে রঞ্জু মন্ডল নামে এক ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তাকে নিজ বাড়িতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। নিহত রঞ্জু মন্ডল রানীনগর উপজেলার রাতোয়াল গ্রামের শুকুর আলী মন্ডলের ছেলে।
রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ জহুরুল হক জানান, বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে একদল দুর্বৃত্ত রঞ্জু মন্ডলের বাড়িতে ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে যায়। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে শুক্রবার সকালে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় সাদ্দাম হোসেন নামে একজনকে গেফতার করা হয়েছে।

এদিকে, নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলায় দ্রুতগামী ট্রাক ও ধান বোঝাই ট্রাক্ট্ররের সংঘর্ষে দুই ভাই মারা গেছে।শুক্রবার সকালে পত্নীতলা উপজেলার পত্নীতলা-সাপাহার সড়কের খড়াইল মোড়ে সড়ক দুর্ঘটনাটি হয়। নিহত দুই ভাই পত্নীতলা উপজেলার চকমমিন গ্রামের মৃত এজাহার আলীর ছেলে মাহাবুব হোসেন এবং আনোয়ার হোসেন।

Categories
ভিডিও সংবাদ সারাদেশ

সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণে গণপরিবহণ চালানোর আহ্বান যাত্রী কল্যাণ সমিতির

ভয়েস রিপোর্ট: করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আংশিক নয়, গণপরিবহণ পুরোপুরি খুলে দিয়ে সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণে চালানোর আহ্বান জানিয়েছেন যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী। আর বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. মোহাম্মদ কফিল উদ্দিন রায়হান বলছেন, মেগাসিটি ঢাকায় অসংখ্য মানুষকে নিজ সুরক্ষায় নিজেকেই সবচেয়ে বেশি সচেষ্ট থাকতে হবে। গণপরিবহণে দুরত্ব বজায় রাখার চেষ্টার পাশাপাশি জীবানুমুক্তকরণ উপকরণ সাথে রাখারও পরামর্শ তাদের।

মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, জনার্কীণ রাজধানী ঢাকায় এখন দেড় কোটিরও বেশি মানুষের বসবাস। এরমধ্যে বেশিরভাগই জীবন জীবিকার কারণে এ শহরে এসেছে। কর্মস্থলে যেতে যাদের নিয়মিত সঙ্গী যানজট আর যাতায়াতের মাধ্যম গণপরিবহণ।

তার মতে, গণপরিবহণে বাদুরঝোলা হয়ে কর্মজীবীদের ছুটে চলার শহরে সীমিত পরিসরে এতো মানুষের চলাচল নিরাপদ হবে না। একারণে সব গণপরিবহণই খুলে দেয়ার দাবি যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিবের। একইসাথে করোনার এই দুর্যোগের সময় সেনাবাহিনীর বিশেষ নিয়ন্ত্রণ দরকার গণপরিবহণে।
তবে ডা. মোহাম্মদ কফিল উদ্দিন রায়হান মনে করেন, গণপরিবহণে চলাচলের ক্ষেত্রে এবং কর্মস্থলে বিশেষ সতর্কতা জরুরি। প্রত্যেক নাগরিকের সচেতনতা এই রোগের বিস্তার ঠেকাতে পারে। আর মাস্ক ও হাত ধোয়ার বিষয়টি সবসময় মেনে চলতে হবে।

সাধারন মানুষের অর্থসামাজিক বাস্তবতায় বৃহস্পতিবার এক প্রজ্ঞাপণের মাধ্যমে অঘোষিত লকডাউন তুলে নিয়ে অফিস আদালত খোলার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে সরকার।

Categories
সারাদেশ

দক্ষিণাঞ্চলের ৩৪ জেলায় লঞ্চ চলাচল শুরু রোববার

ভয়েস রিপোর্ট: প্রায় দুই মাস বন্ধ থাকার পর দেশের দক্ষিণাঞ্চলে ঢাকা-বরিশালসহ ৩৪টি জেলায় লঞ্চ ও স্টিমার চলাচল শুরু হচ্ছে রোববার।
ঢাকার সদরঘাট এলাকায় দীর্ঘদিন অলস পড়ে থাকা লঞ্চ ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) স্টিমারগুলো পরিষ্কার করে চলাচলের জন্য প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।
রোববার সকাল ৮টায় গ্রীন লাইন ওয়াটার সার্ভিস ঢাকার লালকুঠি এলাকা থেকে বরিশালের উদ্দেশে রওনা হবে। এরপর ঢাকা থেকে চাঁদপুর ও শরীয়তপুরগামী সব লঞ্চ চলাচল শুরু হবে।
বিকেল ৫টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত বরিশাল, ভোলা, পটুয়াখালী ও পিরোজপুরের উদ্দেশে লঞ্চগুলো ঢাকা ত্যাগ করবে। এছাড়া সন্ধ্যা ৬টায় সরকারি স্টিমার মধূমতি বাদামতলী ঘাট থেকে বরিশাল, মোড়লগঞ্জ ও খুলনার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।
বিআইডব্লিউটিএ’র যুগ্ন পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন জানান, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী লঞ্চ মালিক ও নৌ পরিবহন মন্ত্রাণালয় এবং বিআইডব্লিউটিএ যৌথভাবে লঞ্চ ও স্টিমার চালু করবে।
এছাড়া ঢাকা, বরিশাল, চাঁদপুর, শরীয়তপুর, মুলাদী, ভোলা, পটুয়াখালী, বরগুনা, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, ভান্ডারিয়া, খুলনা ও মোড়লগঞ্জসহ ৩৪টি নৌরুটে নিয়মিত যাত্রী সেবায় নৌযান চলাচল করবে বলেও জানান তিনি।
করোনা মোকাবিলা ও এর বিন্তার রোধে যাত্রীদের দূরত্ব বজায় রাখার লক্ষ্যে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে অর্ধেক যাত্রী বহন করার জন্য লঞ্চের মাস্টার ও স্টাফদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

Categories
বিনোদন সারাদেশ

৪ শর্তে শুরু হচ্ছে নাটকের শুটিং

বিনোদন ডেস্ক : করোনা মাহামারীতে বন্ধ থাকার পর আবার শুরু হচ্ছে নাটকের শুটিং । স্বাস্থ্য বিধি মেনে ৪ শর্ত মনে আগামী ১ জুন থেকে টিভি নাটকের শুটিং করতে পারবেন নির্মাতা-অভিনয়শিল্পীরা। টেলিভিশন নাটকের ১৯ সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত সংগঠন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ।

এর আগে ২২ মার্চ থেকে দেশের করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় টিভি নাটকের শুটিং বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় টিভি নাটকের আন্তঃসংগঠনগুলো।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ৩১ মে থেকে সরকারি অফিস, আদালত, গণপরিবহন খুলে দেওয়ার সরকারি সিদ্ধান্তের পর শর্তসাপেক্ষে স্বাস্থ্য বিধি মেনে টিভি নাটকে শুটিং শুরু করবে সংগঠনগুলো।

১ জুন থেকে শুটিং শুরুর ৪ শর্ত

১. করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। সামনের দিনগুলোতে আরও ভয়াবহ অবস্থা হবে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। আন্তঃসংগঠন ও শুটিং করার বিষয়ে নিরুৎসাহিত করছেন। তবে যাদের কাজ করা অত্যন্ত জরুরি হয়ে পড়েছে তারা সাময়িকভাবে জীবন-জীবিকা চলমান রাখার স্বার্থে আন্তঃসংগঠনের দেওয়া স্বাস্থ্য বিধি মেনে যদি কেউ শুটিং কার্যক্রমে নিজ দায়িত্বে অংশ নিতে চান তাহলে তিনি তা করতে পারবেন।

২. সংশ্লিষ্ট ইউনিট শুটিং শুরু করার আগেই পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা ছাড়াও স্থানীয় প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে শুটিং কার্যক্রম শুরু করবেন। এ ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা সৃষ্টি হলে সংশ্লিষ্ট শুটিং ইউনিটকে তার সম্পূর্ণ দায় বহন করতে হবে।

৩. প্রতিটি শুটিং ইউনিটের শিল্পী-কলাকুশলী প্রাথমিকভাবে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা হচ্ছে কিনা তা খতিয়ে দেখবেন। সমস্যা দেখা দিলে প্রযোজনা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির সহায়তা নিয়ে তারা তা নিজ উদ্যোগে সমাধান করবেন।

৪. এই ঘোষণা সরকারের ছুটি ও লকডাউন বিষয়ক ঘোষণার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। পরিস্থিতি বিবেচনায় শুটিং কার্যক্রম যে কোনো সময় স্থগিত অথবা সম্পূর্ণ ভাবে বাতিল হতে পারে।