Categories
অপরাধ বিশ্ব

প্রেমিককে ভবন থেকে ফেলেই খুন করল বার নর্তকী প্রেমিকা

বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরে প্রেমিককে চার তলা থেকে ঠেলে ফেলে খুনের অভিযোগ উঠল বার নর্তকী প্রেমিকার বিরুদ্ধে। ১৮ জানুয়ারি বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্ড়ের বাউড়িয়ার বুড়িখালি এলাকায়। মৃত ওই প্রেমিকের নাম শশিকান্ত মালিক (৩২)। বৃহস্পতিবার শশিকান্তের স্ত্রী মামনি মালিকের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত বার নর্তকী কেয়া সরকার ওরফে টিনাকে গ্রেফতার করেছে বাউড়িয়া থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অঙ্কুরহাটির একটি হোটেলে গান গাইতেন শশিকান্ত। ওই হোটেলেই নর্তকী হিসাবে কাজ করতেন টিনা। শশিকান্তের স্ত্রীর দাবি, সেখানেই টিনার সঙ্গে আলাপ হয় তার স্বামীর। তার পর তারা সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এমনকি বছর খানেক আগে থেকে শশিকান্ত টিনাকে নিয়ে বাউড়িয়ায় থাকতে শুরু করেন। মামনির আরও অভিযোগ, বুধবার রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ টিনা ফোন করে জানান শশিকান্ত চার তলার ছাদ থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তবে টিনার কথায় বিশ্বাস করেননি তিনি।

মামনি পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন, পরিকল্পনা করেই তাঁর স্বামীকে খুন করেছে করেছেন নর্তকী টিনা। ওই অভিযোগের ভিত্তিতে বাউড়িয়া থানার পুলিশ খুনের মামলায় টিনাকে গ্রেফতার করে। বৃহস্পতিবার ধৃতকে উলুবেড়িয়া মহকুমা আদালতে তোলা হয়। বিচারক তাঁকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
অপরাধ সারাদেশ

সেন্টমার্টিনে মাদক পাচারকারী-কোস্টগার্ড গোলাগুলি, ইয়াবা ও মেশিনগান উদ্ধার

সেন্টমার্টিনের ছেঁড়াদ্বীপ সংলগ্ন সমুদ্র এলাকায় মাদক পাচারকারীদের সঙ্গে কোস্টগার্ডের গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ১১ লাখ ৯৫ হাজার ৬’শত পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৩০ রাউন্ড গোলাসহ ২ টি ম্যাগাজিন ও ১টি বিদেশী অত্যাধুনিক অটোমেটিক সাব মেশিনগান জব্দ করা হয়েছে।

১৮ জানুয়ারি মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে সেন্টমার্টিনের ছেঁড়া দ্বীপ সংলগ্ন আড়াই নটিক্যাল মাইল দক্ষিন-পুর্বে সমূদ্র এলাকায় এঘটনা ঘটে।

৮-১০ জনের একটি পাচারকারি দল সাগরে লাফ দিয়ে মিয়ানমার সীমান্তে পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি বলে জানান কোস্ট গার্ড কর্মকর্তা টেকনাফ স্টেশন কমান্ডার লেঃ কমান্ডার এম নাঈম উল হক।

এ ব্যাপারে রাত ৮টার দিকে বিসিজি স্টেশন টেকনাফ কোস্টগার্ড স্টেশনে সংবাদ সম্মলনের আয়োজন করা হয়।

এ সময় টেকনাফ স্টেশন কমান্ডার লেঃ কমান্ডার এম নাঈম উল হক জানান, গোপন সংবাদ পেয়ে তার নেতৃত্বে সেন্টমার্টিনের ছেঁড়া দ্বীপ সংলগ্ন দক্ষিন-পুর্বে সমূদ্র এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান চলাকালীন আনুমানিক দুপুর ২ টায় একটি ট্রলারের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে কোস্ট গার্ড সদস্যগণ ট্রলারটি থামার জন্য সংকেত দেয় ।

সংকেত পেয়ে না থেমে কোস্ট গার্ড এর সদস্যদের লক্ষ্য করে উক্ত ট্রলার থেকে এলোপাথাড়ি গুলি ছোঁড়ে পাচারকারীরা। আত্মরক্ষার্থে কোস্ট গার্ড সদস্যগণও ২৫ রাউন্ড পাল্টা গুলি করে। এক পর্যায়ে ট্রলার হতে ইয়াবা পাচারকারীদল সমুদ্রে লাফ দেয় এবং সাঁতরিয়ে মিয়ানমার সিমান্তের দিকে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে কোস্টগার্ড সদস্যগণ ট্টলারটি তল্লাশী করে ১১ লাখ ৯৫ হাজার ৬০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৩০ রাউন্ড গোলাসহ ২টি ম্যাগাজিন ১টি বিদেশী অত্যাধুনিক অটোমেটিক সাব মেশিন গান ও একটি ট্রলার জব্দ করে।

জব্দকৃত অস্ত্র , গোলা ও ম্যাগাজিন এবং ইয়াবা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তরের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান ওই কর্মকর্তা।

ভয়েস টিভি/আরকে

Categories
অপরাধ

সাইবার ট্রাইব্যুনালে সেফুদার বিচার শুরু  

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার অভিযোগে প্রবাসী সেফাতউল্লাহ ওরফে সেফুদার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। এর ফলে মামলাটির আনুষ্ঠানিকভাবে বিচার শুরু হলো।

১৯ জানুয়ারি বুধবার ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস-সামছ জগলুল হোসেন এ আদেশ দিয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট ট্রাইবুনাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

২০১৯ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন একই ট্রাইব্যুনালের বিচারক।

এর আগে ২০১৯ সালের ১০ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের উপ-পরিদর্শক পার্থ প্রতিম ব্রহ্মচারী আসামি সেফাতউল্লাহ সেফুদার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮-এর ২৫, ২৯ ও ৩১ ধারার অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় প্রতিবেদন দাখিল করেন।

প্রতিবেদনে তদন্তকারী কর্মকর্তা জানান, আসামি সেফাতউল্লাহ ওরফে সেফুদা অনলাইনে একাধিকবার বিভিন্নভাবে ভিডিও আপলোড করেছেন, যা ভাইরাল হয়েছে। তিনি এসব ভিডিও’র মাধ্যমে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ অনেকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য ও গালিগালাজ করেছেন। এর মাধ্যমে তিনি মিথ্যা বা ভীতি প্রদর্শক, তথ্য-উপাত্ত প্রকাশ, মানহানিকর তথ্য প্রকাশ এবং একাধিক গোষ্ঠীর মধ্যে মতবিরোধ সৃষ্টি করেছেন।

এ কারণে দেশের আইনশৃঙ্খলার অবনতি হয়েছে, যা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮-এর ২৫, ২৯ ও ৩১ ধারার অপরাধের শামিল বলে উল্লেখ করে তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রতিবেদনে জানান,  তাই তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আদালতের বরাবর প্রতিবেদন পাঠানো হলো।

এদিকে গত ২০১৯ সালের ২৩ এপ্রিল ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনাল ঢাকা বারের আইনজীবী আলীম আল রাজী (জীবন) মামলাটি দায়ের করেন। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
অপরাধ

উত্তরায় বিপুল পরিমাণ ইয়াবা-ফেনসিডিলসহ গ্রেফতার ৪

উত্তরায় বিপুল পরিমাণ ইয়াবা-ফেনসিডিলসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। ১৯ জানুয়ারি মঙ্গলবার পৃথক এই অভিযানে গ্রেফতার হওয়া মাদক কারবারিদের মধ্যে তিন জন পুরুষ ও এক জন নারী রয়েছেন।

১৯ জানুয়ারি বুধবার দুপুরে র‍্যাব-১ এর সহকারি পরিচালক (মিডিয়া অফিসার) সহকারি পুলিশ সুপার নোমান আহমদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- রনি ইসলাম (২৪), নূর মোহাম্মাদ (৩৫), সোহেল রানা (২১), ও জুলেখা আক্তার (২০)।

সহকারি পুলিশ সুপার নোমান আহমদ বলেন, মঙ্গলবার বিকেলে সাড়ে ৩টার দিকে র‍্যাব-১ এর একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজধানীর তুরাগ থানার নয়নিচালা এলাকার এমএস লতিফ অ্যান্ড সন্স ফিলিং ষ্টেশনের সামনে অভিযান চালায়। অভিযানে মাদক কারবারি রনি ইসলাম ও নূর মোহাম্মাদকে গ্রেফতার করে।

এ সময় তাদের কাছ থেকে ১৫ হাজার পিস ইয়াবা ও একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হওয়া মাদকদ্রব্য ও গ্রেফতারদের সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

অন্যদিকে গতকাল বিমানবন্দর থানা এলাকা থেকে ফেনসিডিলসহ দুই মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করে র‍্যাব-১ এর পৃথক দল। বিকেলে র‍্যাব-১ এর একটি দল বিমানবন্দর এলাকার ফুটওভার ব্রিজের নিচে একটি ফাস্টফুডের দোকানের সামনে অভিযান চালায়।

এ সময় ১৭৩ বোতল ফেনসিডিলসহ সোহেল রানা ও জুলেখা আক্তার নামে দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়।

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
অপরাধ

বন্ধুকে জবাই করে হত্যার দায়ে আসলামের মৃত্যুদণ্ড

বরিশালের বাকেরগঞ্জে বন্ধুকে হত্যার দায়ে আসলাম ওরফে নিজাম তালুকদার নামে একজনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ১৮ জানুয়ারি মঙ্গলবার বিকালে জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক টি এম মুসা আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

নিহত অটোচালক হলেন- মো. রোমান। তিনি নগরীর সাগরদী ধান গবেষণা এলাকার হান্নান জমদ্দারের ছেলে। নিহত রোমান ও আসামি আসলাম নগরীর বাংলা বাজার এলাকার বাসিন্দা সাইফুল ইসলাম রিফাতের গাড়ির চালক ছিলেন। এ ঘটনায় ২০২০ সালের ১০ জুলাই রিফাত বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসলাম নগরীর চাঁদমারী মাদ্রাসা গলিতে বসবাস করতেন। সে ভোলার চরমনোষা এলাকার সরদার বাড়ির মো. সিদ্দিকের ছেলে।

ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ সহকারী জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০২০ সালের ২৯ জুন রাতে আসলাম তার বন্ধু অটোচালক রোমানকে নিয়ে শ্বশুর বাড়ি বাকেরগঞ্জ উপজেলার দুধল ইউনিয়নের পিকেপি স্কুল সংলগ্ন এলাকায় যান। এ সময় অটোতে আসলাম, তার স্ত্রী খাদিজা ও শাশুড়ি শাহিদা বেগম ছিলেন। ওই রাতে বৃষ্টি হওয়ায় আসলাম অটো রেখে রোমানকে নিয়ে স্কুল সংলগ্ন রাঙ্গামাটি নদীতে হাত-পা ধুতে যান। এরপর সুযোগ বুঝে গরু জবাইয়ের ছুরি দিয়ে রোমানকে জবাই করে নদীতে ফেলে দেন। অটোর কাছে ফিরে এলে আসলামের স্ত্রী স্বামীকে সঙ্গে নিয়ে আবার ঘাটে যায়। সেখানে গিয়ে রোমানের লাশ ঘাটের পাশে দেখতে পান।’

তিনি আরও বলেন, ‘এরপর দুই জনে মিলে রোমানের পেট কেটে নদীতে ঠেলে দেয়। তারা দুই জন অটোতে এলে শাশুড়ি শাহিদা রোমানের সন্ধান জানতে চান। তখন আসলাম সরাসরি জবাব দেন, তাকে জবাই করেছি। আর এ কথা কাউকে বললে তোকেও (শাশুড়ি) জবাই করবো। আসলাম ও তার স্ত্রী খাদিজা গ্রেফতার হওয়ার পর ১৬৪ ধারা জবানবন্দিতে রোমানকে জবাইয়ের কথা স্বীকার করেন। পরে বাকেরগঞ্জ থেকে জবাই করা ছুরি ও অটো উদ্ধার করে পুলিশ। তবে রোমানের লাশ উদ্ধার হয়নি।’

২০২১ সালের ৩১ মে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই শাহজালাল মল্লিক আসলাম ও তার স্ত্রী খাদিজাকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট জমা দেন। এ মামলায় শাশুড়ি শাহিদাসহ ১৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বিচারক আসলামকে ফাঁসি এবং তার স্ত্রী খাদিজাকে বেকসুর খালাস দেন।

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
অপরাধ

শাহবাগের ডাস্টবিনে মিললো নবজাতকের লাশ

রাজধানীর শাহবাগ থানার শেখ রাসেল টাওয়ারের পাশের ডাস্টবিন থেকে ২ দিন বয়সী এক নবজাতকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

১৮ জানুয়ারি মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় ওই নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে এলে কর্তব‍্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শাহবাগ থানায় উপ-পরিদর্শক (এসআই) এসআই সুদীপ কুমার জানান, খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে যান। পরে ডাস্টবিন থেকে আনুমানিক ২ দিন বয়সী এক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করেন। সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আশপাশের মানুষের কাছে খোঁজ নিয়ে কোনো কিছু জানতে পারিনি। আমরা ওই এলাকার আশপাশের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে কে বা কারা এই নবজাতকে ফেলে গেছে সেটি জানার চেষ্টা করছি।

ঢামেক হাসপাতালে পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া  বলেন, মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি শাহবাগ থানা তদন্ত করছে।

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
অপরাধ জাতীয়

অপহরণের ৫ দিন পর উদ্ধার হলো ইতালি প্রবাসী কিশোরী

মাদারীপুর শহরের শকুনী এলাকায় ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ৫দিন আগে অপহৃত হয়েছিলেন ইতালি প্রবাসী কিশোরী। ১৪ জানুয়ারি শুক্রবার জেলা শহরের কলেজগেট এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, এক আত্মীয়ের মৃত্যুর খবরে আট বছর পর মা-বাবার সঙ্গে ইতালি থেকে মাদারীপুর শহরের শকুনী এলাকায় আসে ওই কিশোরী। গত সোমবার সকালে ফুপুর বাড়ির সামনের সড়ক থেকে দেশীয় অস্ত্র ঠেকিয়ে তাকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় কয়েকজন যুবক।

ঘটনার পরদিন পাঁচ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও চার জনের বিরুদ্ধে সদর মডেল থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগীর বাবা। অভিযান চালিয়ে একদিন পর দুই জনকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠায় পুলিশ।

এদিকে শুক্রবার রাতে ওই কিশোরী ও প্রধান অভিযুক্ত আফজাল হোসেন শাওনের অবস্থান জানতে পেরে কলেজ গেট এলাকায় অভিযান চালানো হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় শাওন। এ সময় একটি বাসা থেকে ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করা হয়।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুল ইসলাম মিঞা জানান, অপহরণের পর থেকেই আমরা তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করে যাচ্ছিলাম। থানায় মামলার পর দুই জনকে গ্রেফতার করা হয়। তথ্যপ্রযুক্তির সহযোগিতায় অপহৃত কিশোরীর অবস্থান শনাক্ত করে কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়েছে। স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে তাকে আদালতে নেওয়া হবে। পরে জবানবন্দি শেষে আদালতের সিদ্ধান্তে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হতে পারে।

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
অপরাধ

ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৫১

রাজধানী ঢাকায় মাদক বিরোধী অভিযানে বিক্রি ও সেবনের অপরাধে ৫১ জনকে আটক করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

১৪ জানুয়ারি শুক্রবার সকাল ছয়টা থেকে ১৫ জানুয়ারি শনিবার সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) হাফিজ আল আসাদ বলেন, আটকের সময় তাদের কাছ থেকে ১ হাজার ৯০২ পিস ইয়াবা, ৯৩ গ্রাম ১০৫ পুরিয়া হেরোইন, ১৫ কেজি ৩৬০ গ্রাম গাঁজা ও ১২ ক্যান বিয়ার জব্দ করা হয়।

তিনি বলেন, আসামিদের বিরুদ্ধে ডিএমপির থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৪১ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ভয়েসটিভি/ এএস

Categories
অপরাধ সারাদেশ

নারী সেজে প্রেম করে ভারত থেকে দেশে এনে আসামি ধরল পুলিশ

সিলেটের জৈন্তাপুরে ধর্ষণ মামলার আসামি সুজিত নম বিশ্বাস (২২) নামের এক তরুণের সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নারী সেজে প্রেম করে তাঁকে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের ১৮ জুন জৈন্তাপুরের চারিকাটা ইউনিয়নের এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে সুজিতের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। এর পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন। পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তারে নানা অভিযান চালিয়েও ব্যর্থ হয়।

একপর্যায়ে পুলিশ জানতে পারেন, তিনি জৈন্তাপুরের সীমান্ত দিয়ে অবৈধ পথে ভারতে পালিয়ে গেছেন।

একপর্যায়ে সুজিতের সঙ্গে ফেসবুকে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জৈন্তাপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শফিক আহমদ। প্রেমের একপর্যায়ে সুজিতের সঙ্গে দেখা করার কথা বলেন নারী পরিচয় দেওয়া পুলিশ কর্মকর্তা। এরই সূত্র ধরে মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে জৈন্তাপুরের শ্রীপুর এলাকা দিয়ে অবৈধভাবে ভারত থেকে বাংলাদেশের সীমান্তে প্রবেশ করেন তিনি। এ সময় ওই এলাকায় অবস্থান করা সাদাপোশাকের পুলিশ সদস্যরা তাকে গ্রেপ্তার করেন। এ সময় তার কাছ থেকে ভারতীয় পরিচয়পত্র পাওয়া যায়।

গ্রেপ্তার অভিযানে অংশ নেওয়া এসআই কাজী শাহেদ আহমদ বলেন, সুজিত প্রাথমিকভাবে জানিয়েছেন, মামলার পর তিনি অবৈধ পথে ভারতে প্রবেশ করেন। ভারতের মেঘালয়ে তার বোনের বাড়িতে আত্মগোপন করেন তিনি। সেখানে রনি রায় নামের ভারতীয় পরিচয়পত্র (নাগরিকত্ব নম্বর KJT 9239182) তৈরি করেন তিনি। তিনি আরও বলেন, ‘পরিচয়পত্রটি আমরা যাচাই করতে পারিনি। গ্রেপ্তারকৃত আজ বুধবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
অপরাধ

থানা বেষ্টনীর মধ্যেই ধর্ষণ করলো পুলিশ!

নোয়াখালী সদর উপজেলার সুধারাম থানার বেষ্টনীর মধ্যেই তরুণীকে (২৩) ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে এক ট্রাফিক কনস্টেবলের (মুন্সি) নামে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত ট্রাফিক কনস্টেবলসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

৭ জানুয়ারি শুক্রবার দুপুরে তাদের আসামি করে সুধারাম মডেল থানায় ধর্ষণের অভিযোগে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

এর আগে, ৬ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার বিকেলে সুধারাম থানার বেষ্টনীর মধ্যে জেলা ট্রাফিক পুলিশের কোয়ার্টারে বাবুর্চি আবুল কালামের রুমে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর রাতেই অভিযুক্ত ৪ জনকে আটক করে পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মাদলা গ্রামের আব্দুল ওহাবের ছেলে ও নোয়াখালী সদরের ট্রাফিক পুলিশ কনস্টেবল (কং/২৬৪) মকবুল হোসেন (৩২), বেগমগঞ্জ উপজেলার নাজিরপুর গ্রামের মৃত আমান উল্যার ছেলে সিএনজি অটোরিকশাচালক মো. কামরুল (২৫), অনন্তপুর গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে নুর হোসেন কালু (৩০) এবং সদর উপজেলার দাদপুর গ্রামের মৃত মফিজ উল্যার ছেলে আবদুল মান্নান (৪৯)।

অপরদিকে ভিকটিম নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার আটিয়া বাড়ি গ্রামের বাসিন্দা।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সুধারাম মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান পাঠান জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে ভিকটিম ঢাকা থেকে ব্যক্তিগত কাজে মাইজদী আসেন। সেখানে অবস্থানকালে অর্থ সঙ্কট দেখা দিলে তিনি পূর্ব পরিচিত সিএনজি অটোরিকশাচালক মো. কামরুলের সঙ্গে দেখা করেন।

একপর্যায়ে কামরুল ও তার দুই সহযোগী আবদুল মান্নান ও নুর হোসেন কালু ভিকটিমকে সদর ট্রাফিক পুলিশের কনস্টেবল (মুন্সি) মকবুল হোসেনের কাছে নিয়ে যায়। এসময় তাদের সহযোগিতায় মুন্সি মকবুল হোসেন ভিকটিমকে ট্রাফিক পুলিশের বাবুর্চি আবুল কালামের কক্ষে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। ঘটনার পরপরই ভিকটিম পাশের সুধারাম থানা পুলিশকে বিষয়টি জানায়।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাহেদ উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। মামলার ৪ আসামিকেই গ্রেফতারের পর আদালতে পাঠানো হয়েছে। নোয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভিকটিমের শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

ভয়েসটিভি/এএস