Categories
রাজনীতি

বিএনপি গণতন্ত্রকে নস্যাৎ করতে নানামুখী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি গণতন্ত্রকে নস্যাৎ করার নানামুখী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘স্বৈরশাসনের গর্ভে জন্ম নেওয়া বিএনপির গায়ে গণতন্ত্রের আস্তিন জড়ালেও তাদের আস্তিনের মধ্যেই রয়েছে গণতন্ত্রের টুঁটি চেপে ধরা দানবীয় রূপ।’

২৪ জানুয়ারি সোমবার ঐতিহাসিক গণঅভ্যুত্থান দিবস উপলক্ষে এক বিবৃতিতে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

স্বৈরতন্ত্রের প্রতিভূ বিএনপি’র গোপন অভিপ্রায়ে রয়েছে গণতন্ত্রকে নস্যাৎ করার নানামুখী ষড়যন্ত্রের নীলনকশা-এমন মন্তব্য করে কাদের বলেন, ‘বাঙালির স্বাধিকার ও স্বাধীনতা সংগ্রামে যে দেশদ্রোহী অপশক্তি স্বৈরাচার আইয়ুব-মোনেমের পক্ষে তথা বাঙালির স্বাধীনতা এবং মুক্তির বিপক্ষে ছিল তাদের উত্তরাধিকার আজও বাংলাদেশের গণতন্ত্র-উন্নয়ন অগগ্রতি-মুক্তি ও সমৃদ্ধির পথে প্রধান অন্তরায়। সেই অপশক্তির প্রতিভূ বিএনপি-জামায়াত বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক অভিযাত্রাকে ব্যাহত করতে নানামুখী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং তাদের দল বিএনপি ভুল রাজনীতির কারণে এখন চরম দুর্দিনের ছায়ায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়েছেন। নিজেদের রাজনৈতিক ব্যর্থতায় বিএনপি আজ গভীর সংকটে নিপাতিত। রাজনৈতিক দৈন্যতায় চরম দুর্দিনের কালো অন্ধকারের হতাশা-আবসাদ জেঁকে বসেছে তাদের মনে। সেই সংকট ঢাকতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জাতিকে দুর্দিনের আষাঢ়ে গল্প শোনানোর পাঁয়তারা করছেন।’

বিভিন্ন সময় বিএনপি শাসনামলের দুঃসহ নির্যাতন-নিষ্পেষণ এখনও দেশবাসীর স্মৃতিতে দগদগে ক্ষতের স্মারক বহন করছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বাংলার জনগণ সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ ক্ষুধা-দারিদ্র্য ও চরম অনিশ্চয়তার দুর্বিসহ সময়ে ফিরে যেতে চায় না। সেই অন্ধকারময় সময় কাটিয়ে বাংলার জনগণ বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে আলোকজ্জ্বল আগামীর পথে এগিয়ে চলেছে। সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার কালজয়ী নেতৃত্বে স্বৈরতন্ত্রের প্রতিভূ বিএনপি-জামায়াতের সব ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত মোকাবিলা এবং পারিপার্শ্বিক সব ধরনের প্রতিবন্ধকতা জয় করে উন্নয়ন-সমৃদ্ধি ও অগ্রগতির পথে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এগিয়ে যাবে। বাংলাদেশ তার কাঙ্ক্ষিত অভিষ্ঠে পৌঁছাবেই।’

এ সময় বিবৃতিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বাঙালির মুক্তি সংগ্রামের ইতিহাসে ২৪ জানুয়ারি এক ঐতিহাসিক দিন। এই দিনে তৎকালীন স্বৈরশাসক আইয়ুব খানের পতনের লক্ষ্যে দুর্বার গণআন্দোলনে শহীদ হন কিশোর মতিউর রহমান, রুস্তমসহ অনেকেই। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে দিনটি অনন্য গুরুত্ব বহন করে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষিত বাঙালির মুক্তির সনদ ৬-দফা ভিত্তিক আন্দোলনে সোচ্চার হয় সমগ্র জাতি। ৬-দফা দাবির আন্দোলন দমন করতে স্বৈরাচার আইয়ুব খান আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা দায়ের করে বঙ্গবন্ধুসহ অনেককে গ্রেফতার করে।

তিনি বলেন, বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড দেওয়াই ছিল পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর দুরভিসন্ধি। প্রহসনের এই বিচারের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন গড়ে তোলে বাংলার জনগণ। ৬-দফা ভিত্তিক আন্দোলনের আদর্শকে ধারণ করে ছাত্রলীগসহ ৪টি প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠন ১৯৬৯ সালের ৪ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গড়ে তোলে এবং ১১-দফা দাবি ঘোষণা করে।’

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
রাজনীতি

ইসি গঠনের আইন নিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে বিএনপি

রাজনীতির মাঠে পরাজিত বিএনপি এখন নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠন আইন নিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে অপতৎপরতায় লিপ্ত হয়েছে বলে মন্তব্য করছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

২৩ জানুয়ারি রোববার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন তিনি। দলটির দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিবৃতি পাঠানো হয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শুধু এই আইনকে নয়, তারা বরাবরের মতো নির্বাচন ও নির্বাচনী প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করার পাঁয়তারা করছে। তারই ধারাবাহিকতায় নির্বাচনী প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করার লক্ষ্যে প্রচুর পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ ও বিদেশে লবিস্ট নিয়োগের মাধ্যমে ষড়যন্ত্রের নতুন নতুন নাটক মঞ্চায়ন করেও বিএনপির মরা গাঙ্গের খরা কাটেনি। তাই তারা উদ্ভ্রান্তের মতো প্রলাপ বকতে শুরু করেছে।

তাই বিএনপি নেতাদের মিথ্যাচার এবং বিভ্রান্তিকর মন্তব্য পরিহার করে দায়িত্বশীল আচরণ ও বক্তব্য প্রদানের আহ্বান জানান কাদের।

তিনি বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে নির্বাচন কমিশন গঠনে একটি আইন প্রণয়নের দাবি সর্বমহল থেকে উঠে এসেছে। দেশের সব রাজনৈতিক দল ও নাগরিক সমাজের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও নির্বাচন কমিশন নিয়োগ আইন-২০২২’ নামে আইনের একটি খসড়া মন্ত্রীসভায় অনুমোদন দিয়েছে।

আইন প্রণয়নের উদ্যোগকে ইতোমধ্যে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সুশীল সমাজের পক্ষ থেকে স্বাগত জানানো হয়েছে বলে দাবি করেন কাদের।

সেতুমন্ত্রী বলেন, এই আইন পাসের মধ্য দিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে জটিলতা নিরসনে সমাধানের স্থায়ী পথ উন্মুক্ত হতে চলেছে। এরই ধারাবাহিকতায় মহান জাতীয় সংসদে বিলটি উত্থাপিত হয়েছে।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন গঠন আইন সম্পর্কিত বিলটির উপর জাতীয় সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী সব রাজনৈতিক দল আলোচনা করবেন এবং নিজেদের মতামত ব্যক্ত করবেন। সাংবিধানিক বিধান অনুযায়ী আইন প্রণয়নের ক্ষমতা মহান জাতীয় সংসদের উপর ন্যস্ত রয়েছে। সে মোতাবেক সংসদে উত্থাপিত বিলটি যথাযথ প্রক্রিয়া ও সাংবিধানিক রীতি-নীতির মধ্য দিয়েই পাস হবে বলে আশা রাখি।

কাদের বলেন, বিএনপি নেতারা উত্থাপিত আইনটি সম্পর্কে সম্পূর্ণরূপে না জেনে এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে এই প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করার অভিপ্রায়ে নানা ধরনের বিভ্রান্তিকর মন্তব্য ও অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। কেননা গণতান্ত্রিক কাঠামো ও আইনি প্রক্রিয়ার প্রতি তাদের কোনো শ্রদ্ধাবোধ নেই।

তিনি বলেন, বন্দুকের নলের মুখে অসাংবিধানিক ও অবৈধ পন্থায় ক্ষমতা দখল করে যাদের নেতা নিজেকে রাষ্ট্রপতি ঘোষণা করতে পারে আইনি কাঠামোর প্রতি তাদের আস্থা থাকবে না এটাই স্বাভাবিক। সংবিধান ও আইন লঙ্ঘনের মধ্য দিয়ে যাদের জন্ম তাদের কাছে যে কোনো আইনি কাঠামোই তামাশা মনে হবে। কারফিউ মার্কা গণতন্ত্রের যে প্রহসনের বীজ তাদের অস্থিমজ্জায় প্রথিত তা থেকে এখনো তারা বেরিয়ে আসতে পারেনি।

Categories
রাজনীতি

আইভীর মাথায় হাত রেখে দোয়া করলেন তৈমূর

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকারের বাসায় মিষ্টি নিয়ে গিয়েছেন নবনির্বাচিত মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

১৭ জানুয়ারি সোমবার বিকেলে কুশল বিনিময় করতে তৈমূরের বাসায় যান তিনি। এ সময় দুই প্রার্থীর পরিবারের সদস্যসহ গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। তারপর তৈমূরকে মিষ্টিমুখ করান বিজয়ী প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী।

আইভী সাংবাদিকদের বলেন, আমরা একই এলাকার ও একই পরিবারের সদস্য। সকলের সহযোগিতা নিয়ে একটি সুন্দর নারায়ণগঞ্জ উপহার দিতে চাই আমি।

নবনির্বাচিত মেয়রকে স্বাগত জানিয়ে তৈমূর আলম বলেন, তার সাথে আমার সম্পর্ক খুবই আন্তরিক। আইভীর পরিবারের সঙ্গে আমাদের সুসম্পর্ক রয়েছে। এজন্যই কুশল বিনিময়। এ সময় আইভীর মাথায় হাত রেখে দোয়া করেন তৈমূর।

আইভীও বলেন, তৈমূর তার পরিবারেরই সদস্য, এজন্যই মিষ্টি নিয়ে এসেছেন। সবাইকে মিষ্টি খাওয়াচ্ছেন। এ সময় দুই প্রার্থীকে একই সঙ্গে বসে থাকতে দেখা গেছে।

১৬ জানুয়ারি নাসিক নির্বাচনে টানা তৃতীয় মেয়াদে মেয়র হন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা তৈমূরের চেয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে মেয়র নির্বাচিত হন আইভী।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
রাজনীতি

তৈমূরের বাসায় মিষ্টি নিয়ে আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে পরাজিত মেয়র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকারের বাসায় মিষ্টি নিয়ে গেলেন বিজয়ী প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

১৭ জানুয়ারি সোমবার বিকেল ৫টার দিকে দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে শহরের মাসদাইর এলাকায় তৈমূরের বাসভবনে যান তিনি।

১৬ জানুয়ারি রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত নাসিক নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলে। এরপর নাসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার ফল ঘোষণা করেন। সন্ধ্যা নাগাদই আইভীর জয়ের আভাস মিলতে থাকে। শেষ পর্যন্ত তার জয়েরই খবর আসে।

ঘোষিত ১৯২টি কেন্দ্রের বেসরকারি ফলাফলে দেখা যায়, মেয়র পদে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মনোনীত আইভী নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন এক লাখ ৫৯ হাজার ৯৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার হাতি প্রতীকে পেয়েছেন ৯২ হাজার ১৬৬ ভোট।

এর আগে ২০১১ সালে প্রথমবার এবং ২০১৬ সালে দ্বিতীয়বার মেয়র পদে জয়ী হয়েছিলেন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
রাজনীতি

নির্বাচন থেকে পালিয়ে গেলেও বিএনপি ভিন্ন অবয়বে ছিল: তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বিএনপি নির্বাচন থেকে পালিয়ে গেলেও ভিন্ন অবয়বে ছিল। দৃশ্যত তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করলেও ভিন্ন অবয়বে সব জায়গায় নির্বাচনে ছিল। তারা নিশ্চয় বুঝতে পেরেছে তাদের জনপ্রিয়তা কোন জায়গায় আছে।

এ সময় মন্ত্রী নির্বাচন নিয়ে কোনো ধরণের বিভ্রান্ত ছড়ানো থেকে  বিরত থাকতে সবাইকে অনুরোধ করেন।

১৭ জানুয়ারি সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম হলে ‘ভোরের আকাশ’ পত্রিকার নবরূপে আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘গতকাল নারায়াণগঞ্জ সিটিতে একটি সুন্দর নির্বাচন হয়েছে। এতে নির্বাচনি প্রচারণা থেকে শুরু করে নির্বাচনের দিন পর্যন্ত কোনও ধরনের বিশৃঙ্খলা হয়নি। সারাদেশে যে ৫টি পৌর নির্বাচন হয়েছে, তা ভালোই হয়েছে। পার্লামেন্ট আসনের নির্বাচনও হয়েছে। সব জায়গায় সুন্দর নির্বাচন হয়েছে।’

আগামী জাতীয় নির্বাচন নাসিক নির্বাচনের মতো সুষ্ঠু হবে জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘গতকাল নাসিক নির্বাচন যেমন সুন্দর সুষ্ঠু হয়েছে, ইনশাল্লাহ আগামী সংসদ নির্বাচনও সুন্দর সুষ্ঠু হবে। গতকালের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে এটি স্পষ্ট হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা আগের চেয়ে বেড়েছে।’

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সাংবাদিক ভাইদের অনুরোধ জানাবো, কোনও জায়গায় যদি কোনও কিছুর বিচ্যুতি, অনিয়ম হয়; সেটা অবশ্যই পত্রিকায় আসবে। কিন্তু দেশটা যে এত এগিয়ে গেলো, আমাদের মাথাপিছু আয় ভারতকেও ছাড়িয়ে গেলো, সেটা নিয়ে দেশে যে রকম মাতামাতি হওযার প্রয়োজন ছিল, সেরকম কিছু হয়নি।

তিনি বলেন, এই করোনার মধ্যে মাত্র ২০টি দেশের জিডিপি হার পজিটিভ বৃদ্ধি হয়েছে, তার মধ্যে বাংলাদেশ একটি। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান তৃতীয় সেটি নিয়ে তো আমাদের পত্রপত্রিকায় মাতামাতি হয়নি। অনিয়ম ও ব্যত্যয় কোনও কিছু হলে সেটি যেমন আসতে হবে, জাতির এগিয়ে যাওয়ার গল্পটাও জানাতে হবে। এটা নৈতিক দায়িত্ব।’

ভোরের আকাশের সম্পাদক খালেদ ফারুকীর সভাপতিত্বে আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক উপদেষ্টা অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী। বিশেষ বক্তা ছিলেন, বিএফইউজের সভাপতি ওমর ফারুক এবং ডিইউজের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ।

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
রাজনীতি

নাসিক নির্বাচনে উন্নয়নবিমুখ রাজনীতির ভরাডুবি হয়েছে: ওবায়দুল কাদের

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নেতিবাচক ও উন্নয়নবিমুখ রাজনীতির চরম ভরাডুবি হয়েছে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

১৭ জানুয়ারি সোমবার নিজ বাসভবনে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরবর্তী ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ষড়যন্ত্র এবং অপপ্রচারের সংস্কৃতিতে যারা বিশ্বাসী তাদের ঘটেছে বিপর্যয়। এ নির্বাচনে জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ এবং উৎসবমুখরতা সুস্পষ্টভাবে গণতন্ত্রের বিজয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে চলমান গণতান্ত্রিক অভিযাত্রার এ বিজয়।

তিনি বলেন, ইভিএম-এ ভোট দেওয়া এবং নির্বাচন কমিশনের যারা সমালোচনা করেছিল তারা এখন এ নির্বাচনকে সেরা নির্বাচন বলছেন। বছরের শুরুতেই একটি বড় নির্বাচন ছিল নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন।

এ সময় অংশগ্রহণমূলক, শান্তিপূর্ণ এবং অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য জনগণ ও নির্বাচন কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান ওবায়দুল কাদের।

ভয়েসটিভি/আরকে  

Categories
রাজনীতি সারাদেশ

Protected: নাসিক নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা

This content is password protected. To view it please enter your password below:

Categories
জাতীয় রাজনীতি

যেকোনো মূল্যে ভোট সুষ্ঠু হওয়া দরকার: কৃষিমন্ত্রী

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে হেরে গেলে কোনো যায় আসে না। কোনো অবস্থাতেই সরকারের গ্রহণযোগ্যতাকে বিলীন হতে দেওয়া যাবে না। যেকোনো মূল্যেই ভোট সুষ্ঠু হওয়া দরকার। তাহলেই জনগণ জিতে যাবে।

১৬ জানুয়ারি রোববার যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলারের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের কাছে এ সব কথা বলেন মন্ত্রী।

সেখানে যাই ফল আসুক আওয়ামী লীগ মেনে নেবে বলেও এ সময়  মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

তিনি জানান, বাংলাদেশ যেন মানবাধিকার রক্ষায় আরও সতর্ক হয় বা পরিস্থিতির উন্নতি হয়, এ কারণেই নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বলে দাবি করেছেন বিদায়ী মার্কিন রাষ্ট্রদূত।

রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যের বিষয়ে মন্ত্রী আরও বলেন, মার্কিন প্রশাসন বিশ্বব্যাপী মানবাধিকারের বিষয়টি গুরুত্ব দিচ্ছে। র‍্যাব, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রসঙ্গে (রাষ্ট্রদূত) বলেন, কিছু কিছু ক্ষেত্রে মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে। ভবিষ্যতে যাতে আর এমন না হয়। কোনো পানিশমেন্ট নয়, সংশোধনের জন্য এই নিষেধাজ্ঞা বলে দাবি করেন তিনি।

ভয়েসটিভি/আরকে

Categories
রাজনীতি

জি এম কাদেরের করোনা পজিটিভ

জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান জি এম কাদের কোভিড-১৯ পজিটিভ। সংসদ অধিবেশনে যোগ দেওয়ার জন্য দেওয়া নমুনা পরীক্ষায় তার পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে। বর্তমানে তিনি বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান এর প্রেস সেক্রেটারি-২ খন্দকার দেলোয়ার জালালী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান করোনা পজেটিভ। নেতিবাচক কোনো উপসর্গ ছাড়াই তিনি ভালো আছেন, সুস্থ্ আছেন। সংসদ অধিবেশনে যোগ দেওয়ার জন্য গতকাল ১৫ জানুয়ারি কোভিড পরীক্ষা করলে আজ তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। শারীরিক সুস্থতার পাশাপাশি তার মনোবল অটুট আছে।

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের চিকিৎসক-এর পরামর্শ অনুযায়ী নিজ বাসভবনে বিশ্রামে আছেন। নিয়মিত ওষুধ ও খাবার গ্রহণ করছেন।

প্রেস সেক্রেটারি আরও জানান, করোনামুক্তির জন্য জাপা চেয়ারম্যান দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
রাজনীতি

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে আ. লীগের প্রতিনিধি যারা

নির্বাচন কমিশন গঠন ইস্যুতে দলীয় সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১০ সদস্যদের প্রতিনিধি দল রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সঙ্গে সংলাপে অংশ নেবেন। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে প্রতিনিধি দলের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। অবশ্য করোনার পরীক্ষার প্রেক্ষাপটে শেষ সময়ে কিছুটা রদবদল হতে পারে।

১৭ জানুয়ারি সোমবার বিকাল ৪টায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলটি বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠকে বসবেন।

নির্বাচন কমিশন গঠনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠকে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা হলেন- আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক এবং আব্দুর রহমান।

এর আগে ৯ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের প্রেস অনুবিভাগ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব (জন বিভাগ) সম্পদ বড়ুয়ার পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে ১৭ জানুয়ারি সংলাপে অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানানো হয়। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ ১০ জনকে বঙ্গভবনে যাওয়ার অনুরোধ করা হয়।

করোনা সংক্রমণের কারণে এবার সংলাপে প্রতিনিধি সংখ্যা সীমিত করার পাশাপাশি সবার কোভিড-১৯ পরীক্ষার নেগেটিভ সনদ থাকার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

ভয়েসটিভি/এএস