Categories
ধর্ম

হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু : মিনায় পৌঁছেছেন হাজীরা

মহামারি করোনার মধ্য দিয়ে ব্যাপক স্বাস্থ্য সতর্কতা ও নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ১৪৪১ হিজরির পবিত্র হজ শুরু হলো। হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা হিসেবে বুধবার ২৯ জুলাই হজের প্রথম দিন মক্কা থেকে ইহরাম বেধে এক হাজার হাজী মিনায় পৌঁছেছেন।

নিয়ম অনুযায়ী পবিত্র নগরী মক্কা থেকে ৭ কিলোমিটার দূরে মিনায় এ দিন জোহরের আগেই হজে অংশগ্রহণকারীদের সবাইকে মিনায় পৌছানোর কথা। সেখানে তারা ৫ ওয়াক্ত (জোহর, আসর, মাগরিব, ইশা ও হজের দিন ফজর) নামাজ আদায় করবেন।

সৌদি হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়ের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় যথাযথ নিরাপত্তার মাধ্যমে হজে অংশগ্রহণকারীদের পবিত্র নগরী মক্কা থেকে মিনায় নেয়া হচ্ছে।

মিনায় গিয়ে অবস্থানকারী হজ পালনকারীরা বৃহস্পতিবার সকাল সকাল আরাফাতের ময়দানে গিয়ে অবস্থান নেবে। সেখানে তারা সকাল থেকে দিনভর ইবাদত-বন্দেগি ও রোনাজারিতে সময় অতিবাহিত করবে। সূর্যাস্ত পর্যন্ত আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করবেন তারা।

মক্কা থেকে ৭ কিলোমিটার দূরে প্রায় ২৫ লাখ লোকের জন্য তাবু স্থাপিত শহর মিনায় এবার স্বল্প সংখ্যক হজপালনকারীরা অবস্থান নেবে। মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এবার সীমিত পরিসরে অল্প সংখ্যক লোক হজে অংশগ্রহণ করেছে।

এ বছর হজের উদ্দেশ্যে মক্কায় আসা নির্বাচিত হজপালনকারীদের আগে থেকেই তাপ পরীক্ষা করে আলাদা আলাদা স্থানে রাখা হয়েছে। স্বাস্থ্যকর্মীরা তাদের ব্যাগপত্র জীবানুমুক্ত করার কাজ সম্পন্ন করেছে।

স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা কর্মীরা পবিত্র নগরী কাবা শরিফের চারদিকে জীবানুমুক্তকরণ করতে বিশেষভাবে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করেছে।

এবারের হজে অংশগ্রহণকারীদের নিরাপত্তায় এবং কাবা শরিফের পরিচ্ছন্নতায় কাবা শরিফের চারদিক ঘেরাও করে দেয়া হয়েছে। কোনো হজপালনকারীকেই কাবা শরিফ স্পর্শ করতে দেয়া হবে না। যথাযথ দূরত্ব বজায় (১.৫ মিটার তথা ৫ ফিট) রেখে তাওয়াফ, নামাজে অংশগ্রহণ ও সাঈসহ হজের সব কার্যক্রম পালন করতে হবে।

মিনায় পাথর নিক্ষেপসহ সব কাজের সময় মাস্ক ব্যবহার ও দূরত্ব বজায় রাখা বাধ্যতামূলক। মিনায় পাথর নিক্ষেপের নুড়ি হজ কর্তৃপক্ষ বিশেষ ব্যাগের মাধ্যমে সরবার করবে।

৩০ জুলাই মোতাবেক ৯ জিলহজ (বৃহস্পতিবার সকাল সকাল সব হজ পালনকারী আরাফাতের ময়দানে উপস্থিত হবেন। সৌদি সরকারে এমন কঠোর স্বাস্থবিধি ও নিরাপত্তা মেনে হজ ব্যবস্থাপনার জন্য হজে অংশগ্রহণকারীরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

ভযেস টিভি/নিজস্ব প্রতিবেদক/ডিএইচ

Categories
জাতীয় ধর্ম

সন্ধ্যায় কুরবানির ঈদের তারিখ নির্ধারণে সভা

ঢাকা : আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা অর্থাৎ কুরবানির ঈদের তারিখ নির্ধারণে সভা করবে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি। জিলহজ মাসের চাঁদ দেখার সংবাদ পর্যালোচনা এবং এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে ২১ জুলাই মঙ্গলবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে (বাদ মাগরিব) এই সভা হবে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানিয়েছে। বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পূর্ব সাহানে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে। উল্লেখ্য, সৌদি আরব কুরবানির ঈদের তারিখ নির্ধারণ করেছে চলতি মাসের ৩১ তারিখ।

মুসলমানদের দ্বিতীয় বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা। এ বিষয়ে ইসলাম ধর্ম মতে, প্রায় চার হাজার বছর আগে আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের জন্য হজরত ইব্রাহিম (আ.) তার ছেলে হজরত ইসমাইল (আ.)-কে কোরবানি করতে গিয়েছিলেন। আল্লাহর কুদরতে হজরত ইসমাইলের (আ.) পরিবর্তে একটি দুম্বা কোরবানি হয়। হজরত ইব্রাহিমের (আ.) এই ত্যাগের মহিমার কথা স্মরণ করে মুসলিম সম্প্রদায় জিলহজ মাসের ১০ তারিখে আল্লাহ তাআলার অনুগ্রহ লাভের আশায় পশু কোরবানি করে থাকেন।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নূরুল ইসলাম আজকের সভায় সভাপতিত্ব করবেন। বাংলাদেশের আকাশে কোথাও পবিত্র জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেলে তা নিম্নোক্ত টেলিফোন ও ফ্যাক্স নম্বরে অথবা সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা প্রশাসক অথবা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানানোর জন্য অনুরোধ করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

টেলিফোন নম্বর- ৯৫৫৯৪৯৩, ৯৫৫৫৯৪৭, ৯৫৫৬৪০৭ ও ৯৫৫৮৩৩৭।

ফ্যাক্স নম্বর-৯৫৬৩৩৯৭ ও ৯৫৫৫৯৫১

ভয়েসটিভি/নিজস্ব প্রতিবেদক/এএস

Categories
ধর্ম

ঈদের নামাজ আদায়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের জরুরি বিজ্ঞপ্তি

আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজের জামাত আদায় প্রসঙ্গে জরুরি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়। ১৪ জুলাই মঙ্গলবার ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. সাখাওয়াৎ হো‌সেন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়।

এতে বলা হয়, কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাব অপরিবর্তিত থাকায় আসন্ন ঈদুল আজহার নামাজ আদায় সংক্রান্ত বিষয় দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেম ওলেমা এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সাথে গত ১২ জুলাই জুম ক্লাউড ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সভার আয়োজন করা হয়।

সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক জামাত অনুষ্ঠানের বিষয়ে জনস্বাস্থ্য বিবেচনায় স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণপূর্বক নিম্নবর্ণিত শর্তসাপেক্ষে ঈদুল আজহার নামাজের জামাত মসজিদে আদায়ের জন্য আহ্বান জানানো হলো-

১. বর্তমানে সারা বিশ্বসহ আমাদের দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিজনিত ওজরের কারণে মুসল্লিদের জীবন ঝুঁকি বিবেচনা করে এ বছর ঈদুল আজহার জামাত ঈদগাহ বা খোলা জায়গার পরিবর্তে নিকটস্থ মসজিদে আদায় করতে হবে। প্রয়োজনে একই মসজিদে একাধিক জামাত আদায় করা যাবে;

২. ঈদের নামাজের জামাতের সময় মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। নামাজের আগে সম্পূর্ণ মসজিদ জীবানুনাশক দ্বারা পরিষ্কার করতে হবে। মুসল্লিরা প্রত্যেকে নিজ নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসবেন;

৩. প্রত্যেককে নিজ নিজ বাসা থেকে অজু করে মসজিদে আসতে হবে এবং অজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে;

৪.করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধ নিশ্চিতকল্পে মসজিদে অজুর স্থানে সাবান/হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে;

৫.মসজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার/হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে;

৬.ঈদের নামাজের জামাতে আগত মুসল্লিকে অবশ্যই মাস্ক পরে মসজিদে আসতে হবে। মসজিদে সংরক্ষিত জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না;

৭.ঈদের নামাজ আদায়ের সময় কাতারে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে দাঁড়াতে হবে এবং এক কাতার অন্তর অন্তর কাতার করতে হবে;

৮.শিশু, বৃদ্ধ, যে কোনো ধরনের অসুস্থ ব্যক্তি এবং অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তি ঈদের নামাজের জামাতে অংশগ্রহণ করবেন না;

৯.সর্বসাধারণের সুরক্ষার নিমিত্ত স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ, স্থানীয় প্রশাসন এবং আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণকারী বাহিনীর নির্দেশনা অবশ্যই অনুসরণ করতে হবে;

১০.করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধ কল্পে মসজিদে জামায়াত শেষে কোলাকুলি এবং পরস্পর হাত মেলানো পরিহার করতে হবে;

১১.করোনাভাইরাস মহামারি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজ শেষে মহান রাব্বুল আলামিনের দরবারে দোয়া করার জন্য খতিব ও ইমামদের অনুরোধ করা হলো;

১২. খতিব, ইমাম, মসজিদ পরিচালনা কমিটি ও স্থানীয় প্রশাসনকে বিষয়গুলো বাস্তবায়ন নিশ্চিত করার অনুরোধ করা হলো; এবং

১৩. পশু কোরবানির ক্ষেত্রে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা যথাযথভাবে পালন করতে হবে।

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে স্থানীয় প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণকারী বাহিনী, জনপ্রতিনিধি, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং সংশ্লিষ্ট মসজিদের পরিচালনা কমিটি উল্লিখিত নির্দেশনা বাস্তবায়ন করবেন।

ভয়েসটিভি/নিউজডেস্ক/ডিএইচ

Categories
ধর্ম সারাদেশ

৮০০ বছরের পুরনো হারুলিয়া মসজিদ সংস্কার দাবি

নেত্রকোনা : কেন্দুয়া উপজেলা সদর থেকে প্রায় সাত কিলোমিটার পূর্বদিকে হারুলিয়া গ্রাম। মোজাফরপুর ইউনিয়নের হারুলিয়া দক্ষিণপাড়া গ্রামে অবস্থিত ৮০০ বছরের পুরনো হারুলিয়া মসজিদ। প্রত্নতত্ত অধিদপ্তরের উদ্যোগে সঠিক সংরক্ষণ ও মেরামতের অভাবে জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে এই মসজিদটি। সংস্কারের মাধ্যমে ঐতিহাসিক মসজিদটিকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

নতুন প্রজন্মের কাছে মসজিদটি প্রাচীন ঐতিহ্য ও কালের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। ইখতিয়ার উদ্দিন মুহম্মদ বিন বখতিয়ার খলজির শাসন আমলে শাইখে মো. ইয়ার নামে এক ধর্মপ্রাণ ব্যক্তি এই মসজিদটি নির্মাণ করেন।
দেয়ালে ১২০০ খ্রিষ্টাব্দ লেখা দেখে স্থানীয়রা মনে করেন সিমেন্টবিহীন চুন ও লালি দিয়ে ১২০০ খ্রিষ্টাব্দে নির্মাণ করা হয়েছে।

নওপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, আমার পিতামহ আফজাল হাদিস, যিনি হেঁটে হজব্রত পালন করেছিলেন, তিনি আমাদের পূর্বপুরুষদের কাছে বলে গেছেন মসজিদটি রাজা লক্ষ্মণ সেনের আমলে নির্মিত। মসজিদটির গায়ে ফারসি এবং সংস্কৃতিতে বিভিন্ন উপদেশ-নির্দেশের লেখা দেখেও ধারণা করা হয় রাজা লক্ষ্মণ সেনের আমলেই নির্মিত হয় মসজিদটি।

ভয়েসটিভি/নেত্রকোনা প্রতিনিধি/দেলোয়ার

Categories
জাতীয় ধর্ম

এবারো স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের নামাজ মসজিদে

ঢাকা: বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে ঈদুল ফিতরের মতো আসন্ন ঈদুল আজহার নামাজ মসজিদে আদায় হবে। ১২ জুলাই রোববার ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

ঈদুল আজহা উদযাপন নিয়ে  ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসাইন সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে  ঈদের  দিন ঈদগাহ বা খোলা জায়গার পরিবর্তে স্বাস্থ্যবিধি ও শারিরীক দূরত্ব মেনে মসজিদে নামাজ আদায় করতে হবে। একই সঙ্গে ঈদের নামাজ শেষে কোলাকুলি করা যাবে না।

 

ভয়েস টিভি/নিজস্ব প্রতিবেদক/ডিএইচ

Categories
জাতীয় ধর্ম

নিবন্ধিত হজযাত্রীরা টাকা ফেরত নিতে পারবে

ভয়েস টিভি রিপোর্ট: বিশ্বের কোনো দেশ থেকে পবিত্র হজ করতে সৌদি আরবে কেউ যেতে পারছেন না। এবার সব মিলিয়ে এক হাজারেরও কম লোক পবিত্র হজ করার সুযোগ পাচ্ছেন। তাও আবার যারা বর্তমানে সৌদি আরবে অবস্থান করছেন, তাদের থেকেই সীমিত সংখ্যক এই মানুষ সুযোগ পাচ্ছেন।

মঙ্গলবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, সোমবার সন্ধ্যায় সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড একে আব্দুল মোমেনকে ফোন করেন।

ফলে বাংলাদেশ থেকে যারা নিবন্ধন করেছিলেন তাদের এবার হজ করা হচ্ছে না।চলতি বছর পবিত্র হজ পালনে যাওয়ার জন্য বাংলাদেশ থেকে যারা নিবন্ধন করেছিলেন, তারা তাদের টাকা যে কোনও সময় ফেরত নিতে পারবেন।

মঙ্গলবার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নুরুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, নিবন্ধিত ব্যক্তিদের মধ্যে কেউ যদি চান তারা টাকা তুলে নিতে পারবেন। আবার কেউ যদি চান আগামী বছর হজে যাওয়ার জন্য তা রেখে দেবেন, তাহলে সেটাও করা যাবে।

কেউ টাকা রেখে দেন তাহলে তিনি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আগামী বছর হজে যেতে পারবেন।

টাকা ফেরত নিয়ে কোনও হয়রানির সুযোগ নেই উল্লেখ করে সচিব বলেন, টাকা উত্তোলনে কারও সমস্যা যাতে না হয় সে বিষয়ে নজর রাখা হচ্ছে। ব্যাংকে টাকা সঠিকভাবে গচ্ছিত রয়েছে। কারো কোনা ভয় নেই।

উল্লেখ্য, করোনার মহামারির কারণে এ বছর বিশ্বের কোনো দেশ থেকে পবিত্র হজ করতে সৌদি আরবে কেউ যেতে পারছেন না। তবে এবার সব মিলিয়ে এক হাজারেরও কম লোক পবিত্র হজ করার সুযোগ পাচ্ছেন।

তাও আবার যারা বর্তমানে সৌদি আরবে অবস্থান করছেন, তাদের থেকেই সীমিত সংখ্যক এই মানুষ সুযোগ পাচ্ছেন।

Categories
ধর্ম ভিডিও সংবাদ

হজ হবে; কিন্তু যেতে পারবে না অন্য দেশের হাজীরা

আনজাম খালেক: শুধুমাত্র সৌদি আরবে যারা অবস্থান করছেন তারাই এবার হজ করার সুযোগ পাবেন- করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। স্থানীয় সময় সোমবার সৌদি আরবের হজ এবং ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এ ঘোষণা দেয় বলে জানায় আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। পাশাপাশি এবার হজে এক হাজারেরও কম লোক অংশ নেবেন বলে জানিয়েছেন সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ। তাই, চূড়ান্ত নিবন্ধন করা ৬৫ হাজার বাংলাদেশী হজযাত্রী চাইলে নিজেদের টাকা ব্যাংক থেকে তুলে নিতে পারবেন বলে জানিয়েছেন ধর্মসচিব মো. নূরুল ইসলাম।
এবছর শুধুমাত্র সৌদি আরবে অবস্থানরত বিদেশি নাগরিক এবং সৌদি নাগরিকরা হজ পালন করতে পারবেন। অন্য কোনো দেশ থেকে কেউ এবার হজ করতে আসতে পারবেন না। করোনা মহামারির জন্য এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি সরকার। গত বছর বিশ্বের প্রায় ২৫ লাখ মানুষ হজ করেছিলেন। কিন্তু এবার বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ এর বিস্তারের ব্যপকতায় হজের পরিসর সীমিত করা হয়েছে। বড় সমাবেশ থেকে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকির আশঙ্কা থাকে। তাই সৌদি সরকার এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে বলে জানায় দেশটির হজ এবং ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।
এদিকে, মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে এবার হজে এক হাজারেরও কম লোক অংশ নেবেন বলে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেনকে টেলিফোনে জানিয়েছেন সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, সোমবার সন্ধ্যায় সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী টেলিফোন করে করোনা ভাইরাসের কারণে ঐতিহ্যগত হজ বাতিলের বিষয়ে অবহিত করেন। পরে ড. মোমেন এই সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানান। অন্যান্য দেশের নাগরিকরা হজ করতে পারবেন না বলে ঘোষণা দেওয়ার পর চূড়ান্ত নিবন্ধন করা ৬৫ হাজার বাংলাদেশী হজযাত্রী নিজেদের টাকা ব্যাংক থেকে তুলে নিতে পারবেন বলে জানিয়েছেন ধর্মসচিব মো. নূরুল ইসলাম।
প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তিনি বলেন, টাকা ফেরত নিতে কারও সমস্যা যাতে না হয় সে বিষয়টা বিশেষভাবে নজর রাখবে ধর্ম মন্ত্রণালয়। ব্যাংকে টাকা সঠিকভাবে গচ্ছিত আছে, হজে যেতে ইচ্ছুকদের ভয় নেই। এ বছর বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ৩৭ হাজার ১৯৮ জনের বিপরীতে নিবন্ধন করেছিলেন মোট ৬৪ হাজার ৫৯৪ জন। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় তিন হাজার ৪৫৭ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬১ হাজার ১৩৭ জন।

ভিডিও সংবাদ দেখুন:

Categories
ধর্ম সারাদেশ

এবার হজ করতে পারবেন শুধু সৌদিতে অবস্থানরতরা

ভয়েস রিপোর্ট: শুধুমাত্র সৌদি আরবে যারা অবস্থান করছেন তারাই এবার হজ করার সুযোগ পাবেন। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। স্থানীয় সময় সোমবার সৌদি আরবের হজ এবং ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এ ঘোষণা দেয় বলে জানায় আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল জাজিরা।
ঘোষণায় বলা হয়, শুধুমাত্র সৌদি আরবে অবস্থানরত বিদেশি নাগরিক এবং সৌদি নাগরিকরা এবারের হজ পালন করতে পারবেন। অন্য কোনো দেশ থেকে কেউ এবার হজ করতে আসতে পারবেন না। করোনা মহামারির জন্য এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি সরকার। গত বছর বিশ্বের প্রায় ২৫ লাখ মানুষ হজ করেছিলেন। কিন্তু এবার বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ এর বিস্তারের ব্যপকতায় হজের পরিসর সীমিত করা হয়েছে।
এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়টি জানিয়েছে, বড় সমাবেশ থেকে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকির আশঙ্কা থেকে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে সরকার।

Categories
ধর্ম রাজনীতি

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ মারা গেছেন

ভয়েস রিপোর্ট: ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ ইন্তেকাল করেছেন। শনিবার রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ‍মৃত্যু হয়। প্রতিমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব শেখ নাজমুল হক সৈকত এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তার পিআরও আনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় শনিবার রাত ১০টায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) আইসিউতে ভর্তি করা হয় তাকে। শেখ আব্দুল্লাহ ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব লাভ করেন। রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালনে ব্যস্ততার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ৭ মে তার নির্বাচনী এলাকার (টুঙ্গীপাড়া-কোটালীপাড়া) উন্নয়নে প্রতিনিধির দায়িত্ব দেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহকে।
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ ১৯৪৫ সালের ৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জ জেলার মধুমতী নদীর তীরবর্তী কেকানিয়া গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত ধার্মিক মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা শেখ মো. মতিউর রহমান এবং মাতা মরহুমা আলহাজ্ব মোসাম্মৎ রাবেয়া খাতুন। চার ভাই তিন বোনের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়।
১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ফ্রন্ট মুজিব বাহিনীর সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত হয়ে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। বাঙ্গালীর স্বাধীনতা সংগ্রাম শুরু হলে তিনি মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৭৩ সালে স্বাধীন বাংলাদেশ সরকারের অধীনে অনুষ্ঠিত বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। কিন্তু রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে দেশ সেবা করার লক্ষ্যে চাকুরির পরিবর্তে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং তার নেতৃত্বে রাজনীতি করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। এরপর কাউন্সিলের মাধ্যমে গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। দীর্ঘদিন তিনি এ দায়িত্ব পালন করেন। তিনি জাতীয় পর্যায়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

Categories
জাতীয় ধর্ম

হজ নিয়ে সিদ্ধান্ত দেয়নি সৌদি আরব, কাটেনি বাংলাদেশীদের অনিশ্চয়তা

ভয়েস টিভি: বাংলাদেশ থেকে যারা নিবন্ধন করেছেন তারা সবাই কী শেষ পর্যন্ত হজে যেতে পারবেন, এমন প্রশ্ন ঘুরছে অনেকের মনে। কারণ, করোনার কারণে বিদেশিদের হজযাত্রা বাতিল হবে নাকি সীমিত আকারে সুযোগ দেওয়া হবে, এই বিষয়ে কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানায়নি সৌদি আরব। তবে এটা স্পষ্ট যে হজের সুযোগ মিললেও কঠোরভাবে মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি, বাড়বে খরচ। তাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত অপেক্ষার কথাই বলছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়।
মঙ্গলবার হজ নিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের একটি প্রতিবেদন নতুন করে আলোচনা সৃষ্টি করেছে। সেই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এবার সীমিত পরিসরে হজের আয়োজন করতে পারে সৌদি আরব। হজ পালনের জন্য প্রত্যেক দেশের যে নির্ধারিত কোটা আছে, তার ২০ শতাংশ ব্যক্তি এবার হজে যেতে পারবেন। সেই হিসেবে প্রতিবারের তুলনায় এবার হজের পরিসর হবে পাঁচ ভাগের একভাগ। রয়টার্স তাদের নিজস্ব সূত্রের বরাত দিয়ে আরও জানিয়েছে, করোনা মোকাবিলায় এবার হজ বাতিলের জন্য চাপ দিচ্ছেন কিছু সৌদি কর্মকর্তা। তবে সরকারিভাবে এখন পর্যন্ত ‘প্রতীকী সংখ্যক’ মুসল্লিদের হজের অনুমতি দেওয়ার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।
এ বিষয়ে সৌদি আরবে বাংলাদেশ হজ অফিসের কাউন্সিলর (হজ) মো. মাকসুদুর রহমান বলেন, ‘আমরা সকাল থেকেই সৌদি আরবের হজ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। বিভিন্ন ব্যক্তির সঙ্গে আলাপ করেছি, কিন্তু অফিসিয়ালি তারা কোনও সিদ্ধান্ত দিতে পারেননি। ফলে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না।’
জানা গেছে, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে এ বছর হজ হতে পারে ৩০ জুলাই। এর আগে, করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া রোধ করতে ২৭ ফেব্রুয়ারি বিদেশিদের ওমরাহ পালন স্থগিত করে সৌদি আরব। একই সঙ্গে পর্যটন ভিসা নিয়ে আসা বিদেশিদের প্রবেশও বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে দুই মাসেরও বেশি সময় পর করোনা সংক্রমণের বিস্তার রোধে আরোপিত বিধিনিষেধ শিথিল করে সৌদি আরবের মসজিদগুলো খুলে দেওয়া হয়। যদিও ফের ৫ জুন হজ ও ওমরাহ পালনের জন্য মক্কায় যাওয়ার প্রবেশপথ বন্দর নগরী জেদ্দায় নতুন করে লকডাউন ঘোষণা করে দেশটি।
জানা গেছে, এবার বাংলাদেশ থেকে মোট ১ লাখ ৩৭ হাজার ১৯৮ জন হজে যেতে পারবেন বলে জানায় সরকার। ২৪ ফেব্রুয়ারি হজ প্যাকেজ ঘোষণা করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব। সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ পালনে প্যাকেজ ১-এ ৪ লাখ ২৫ হাজার টাকা, প্যাকেজ ২-এ ৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা এবং প্যাকেজে ৩-এ ৩ লাখ ১৫ হাজার টাকা খরচ ধরা হয়।
২৭ ফেব্রুয়ারি বেসরকা‌রি ব‌্যবস্থাপনায় দু‌টি হজ প‌্যাকেজ ঘোষণা ক‌রে হজ এজে‌ন্সিজ অ‌্যা‌সো‌সি‌য়েশন (হাব)। এক‌টি হ‌লো সাধারণ, অন‌্যটি ইকোন‌মি। বেসরকা‌রি ব‌্যবস্থাপনায় হজযাত্রী‌দের জন‌্য সাধারণ প‌্যা‌কে‌জের মূল‌্য নির্ধারণ করা হ‌য়ে‌ছে ৩ লাখ ৬১ হাজার ৮শ’ টাকা। আর ইকোন‌মি প‌্যা‌কে‌জের মূল‌্য নির্ধারণ করা হ‌য়ে‌ছে ৩ লাখ ১৭ হাজার টাকা। এটিই সর্বনিম্ন বেসরকা‌রি হজ প‌্যা‌কেজ।
সূত্র জানায়, সৌদি আরব সীমিত পরিসরে হজের অনুমতি দিলেও আরোপ হবে নানারকম বিধিনিষেধ। স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে পরিচালিত হবে হজের কার্যক্রম। যাত্রীদের আবাসন, যাতায়াত, হজ কার্যক্রম পরিচালনায় থাকবে কঠোর নজরদারি। এসব কারণে বাড়তে পারে হজ পরিপালনের খরচ।
এ বিষয়ে সৌদি আরবে বাংলাদেশ হজ অফিসের কাউন্সিলর (হজ) মো. মাকসুদুর রহমান বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে সৌদি আরবে হজযাত্রীদের পরিবহন, আবাসনসহ বিভিন্ন বিষয়ে পরিবর্তন আসতে পারে। এ কারণে খরচও বাড়তে পারে। তবে সৌদি সরকার কীভাবে কী করবে তা চূড়ান্ত নয়। তাদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের ওপর সার্বিক বিষয় পরিষ্কার হবে।’
হজ এজে‌ন্সিজ অ‌্যা‌সো‌সি‌য়েশন (হাব) সভাপ‌তি এম শাহাদাত হোসাইন তস‌লিম বলেন, ‘সৌদি আরব এখন পর্যন্ত হজ নিয়ে কোনও ঘোষণা দেয়নি। তাদের ঘোষণা না আসা পর্যন্ত কোনও কিছুই পরিষ্কার নয়। সৌদি আরবের ঘোষণার ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’