Categories
খেলার খবর

৫০ করতেই বাংলাদেশের ৪ উইকেটের বিদায়

৫০ রান করতেই বাংলাদেশের ৪ উইকেট বিদায় হয়েছে। টি-টোয়েন্টিতে টাইগারদের  ব্যর্থতার পর আশা ছিল টেস্টে হয়তো তেমন কিছু দেখা যাবে না। শুরুটাও করেছিলেন বেশ ভালো। হাঁকিয়েছিলেন কয়েকটি বাউন্ডারি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শাহিন শাহ আফ্রিদির বাউন্সারে ফিরতে হয়েছে সাইফ হাসানকে।

চট্টগ্রাম টেস্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে শাহিন আফ্রিদির দ্বিতীয় বলকে কাভার দিয়ে চার মারেন সাইফ। কিন্তু পরের বলেই আফ্রিদির বাউন্সার সামলাতে পারেননি তিনি।

শর্ট লেগে দাঁড়ানো আবিদ আলীর হাতে বল তুলে দিয়ে সাজঘরে ফেরত গেছেন। ১২ বলে ১৪ রান করে ফিরেছেন সাইফ। এরপর বেশিক্ষণ স্থায়ী হননি তার উদ্বোধনী জুটির সঙ্গী সাদমান ইসলামও। হাসান আলীর বলটি সুইং করে এসে সাদমানের প্যাডে লাগে।

আম্পায়ারও আঙ্গুল তুলে দেন। কিন্তু রিভিউর সিদ্ধান্ত নেন সাদমান। যদিও শেষ পর্যন্ত বহাল থাকে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তই। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৩ বলে ৬ রান করে নাজমুল হোসেন শান্ত ও ০ রানে অপরাজিত আছেন ‍মুমিনুল হক।

১৬তম ওভারে মুমিনুল ১৯ বলে ৬ রান করে সাজিদের বলে কিপারের হাতে কট দিয়ে সাজ ঘরে ফেরেন। ১৭ তম ওভারে বল হাতে আসেন আলী। আলীর বলে শিকার হন শান্ত। তিনি ৩৭ বলে ১৪ রান করে সাজ ঘরে ফেরন। ১৭ তম ওভার শেষে ৪৯ রান করতে গিয়ে ৪ উইকেট বিদায় দিয়েছে বাংলাদেশ।

ভয়েসটিভি/এমএম

Categories
খেলার খবর

শেষ বলের রোমাঞ্চেও জয় অধরা বাংলাদেশের

ব্যাটিং ব্যর্থতায় বড় লক্ষ্য পায়নি বাংলাদেশ। পাকিস্তানকে জিততে করতে হতো মাত্র ১২৫ রান। এই লক্ষ্য তাড়ায় জয়ের পথেই এগিয়ে যাচ্ছিল তারা।

কিন্তু শেষ দিকে ম্যাচে জমিয়ে দেন শহিদুল ইসলাম ও মাহমুদউল্লাহ। জয়ের খুব কাছাকাছিও চলে যায় লাল-সবুজের দল। কিন্তু জয় পাওয়া হলো না।

করোনাকালে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে বাংলাদেশ থেকে ট্রফি নিয়ে ফিরতে পারেনি কোনো দল।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড সবাই পরাজিত সৈনিক। তবে মিরপুর জয় করেছে পাকিস্তান।

এক ম্যাচ হাত রেখেই সিরিজ নিজেদের করে নেয়।

শেষ ম্যাচটি ছিল হোয়াইটওয়াশ থেকে বাঁচার। তাও হলো না। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারলো ৩-০ তে।

এতে করে টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে নয় নম্বরে নেমে বাংলাদেশ।

Categories
খেলার খবর

পাকিস্তানকে ১২৫ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

ম্যাচ হারলেই হোয়াইট ওয়াশের লজ্জায় পড়তে হবে বাংলাদেশকে।

এই সমীকরণ সামনে নিয়েও পাকিস্তানকে বড় লক্ষ্য দিতে পারেনি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। আগে ব্যাট করে করেছে ১২৪ রান।

সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতেও ব্যর্থ বাংলাদেশের দুই উদ্বোধনী ব্যাটার।

গেল দুই ম্যাচের ব্যর্থতায় আজ বাদ পড়েছেন ওপেনার সাইফ হাসান। তাঁর বদলে নাঈমের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নামানো হয়েছে নাজমুল হোসেন শান্তকে। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। দলীয় ৭ রানেই সাজঘরে ফিরেছেন শান্ত। এরপর কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে ফেরেন শামীম হোসেন ও আফিফ হোসেন। তিন উইকেট হারালেও বড় লক্ষ্যের আশায় লড়ছে বাংলাদেশ।

পাকস্তানের বিপক্ষে আজকের একাদশে মোট তিনটি পরিবর্তন এনেছে বাংলাদেশ। একাদশে অভিষেক হয়েছে পেসার শহীদুল ইসলামের।

আগের ম্যাচে কিছুটা চোট পাওয়া দুই পেসার মুস্তাফিজুর রহমান ও শরিফুল ইসলাম আজ বিশ্রামে।

তাঁদের জায়গায় দলে ফিরেছেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান শামীম হোসেন ও বাঁহাতি স্পিনার নাসুম আহমেদ।

পাকিস্তান দলেও একজনের অভিষেক হয়েছে। তাঁদের দলে অভিষেক হয়েছে পেসার শাহনওয়াজ দাহানির। এ ছাড়া ফিরেছেন সরফরাজ আহমেদ, ব্যাটসম্যান ইফতেখার আহমেদ ও লেগ স্পিনার উসমান কাদির।

ছেলের অসুস্থতায় দুবাইয়ের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন শোয়েব মালিক। বিশ্রামে আছেন শাহীন শাহ আফ্রিদি, শাদাব খান ও ফখর জামান।

গত শুক্রবার সিরিজের প্রথম ম্যাচে আশা জাগিয়েও পারেনি বাংলাদেশ। অল্প পুঁজি নিয়ে লড়াই করে শেষ পর্যন্ত হেরে যায় ৪ উইকেটে।

দ্বিতীয় ম্যাচে তেমন লড়াই করতে পারেনি বাংলাদেশ। ব্যাটে-বলের দাপটে ৮ উইকেটের বিশাল জয় নিশ্চিত করে পাকিস্তান। সেই সঙ্গে এক ম্যাচ হাতে রেখে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জয় নিশ্চিত হয় বাবর আজমদের।

আজ শেষ ম্যাচে জিতলেই বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশ করবে পাকিস্তান। তাই হোয়াইটওয়াশ এড়াতে জয় ছাড়া বিকল্প নেই লাল-সবুজের দলের।

Categories
খেলার খবর

টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ। নিয়মরক্ষার এই ম্যাচে তিন পরিবর্তন এসেছে বাংলাদেশ একাদশে।

ইতোমধ্যে সিরিজ হাতছাড়া হওয়া বাংলাদেশের জন্য এই ম্যাচে প্রয়োজন ধবলধোলাইয়ের লজ্জা ঠেকানো।

শেষ ম্যাচে অভিষেক ঘটতে যাচ্ছে পেসার শহিদুল ইসলামের।

মোস্তাফিজের ইনজুরিতে কপাল খুলেছে শহিদুলের। এই অভিষেক ছাড়া আরও দুই পরিবর্তন রয়েছে। ফিটনেসের মানদন্ড উতরাতে না পারায় এই ম্যাচে নেই শরিফুল ইসলাম তার জায়গায় খেলানো হবে নাসুম আহমেদকে।

বাংলাদেশ (প্লেয়িং ইলেভেন): মোহাম্মদ নাইম, শামীম হোসেন, নাজমুল হোসেন শান্ত, আফিফ হোসেন, মাহমুদুল্লাহ (অধিনায়ক), নুরুল হাসান (উইকেটরক্ষক), মাহেদী হাসান, আমিনুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, শহীদুল ইসলাম, নাসুম আহমেদ।

পাকিস্তান (প্লেয়িং ইলেভেন): মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটরক্ষক), বাবর আজম (অধিনায়ক), হায়দার আলী, সরফরাজ আহমেদ, খুশদিল শাহ, ইফতিখার আহমেদ, মোহাম্মদ নওয়াজ, মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়র, উসমান কাদির, হারিস রউফ, শাহনওয়াজ দাহানি।

Categories
খেলার খবর

শ্বাসরুদ্ধ ম্যাচে পাকিস্তানকে হারালো টাইগ্রেসরা

বাংলাদেশের ছেলেরা যেখানে একে একে দুঃসংবাদ দিচ্ছে সেখানে সুসংবাদ এনে দিলো টাইগ্রেসরা। নারী ওয়ানডে বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ার ম্যাচে তারা পাকিস্তানকে হারিয়েছে ।

জিম্বাবুয়ের হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে শক্তিশালি পাকিস্তানকে ৩ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল।

পাকিস্তানি নারীদের ছুঁড়ে দেয়া ২০২ রানের লক্ষ্য ২ বল হাতে রেখেই পার হয়ে যায় বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটাররা। রুমানা আহমেদ এবং ফারজানা হকের দুর্দান্ত ব্যাটিং নৈপুণ্যে অসাধারণ জয়টি ধরা দিলো।

 

Categories
খেলার খবর

চাকরি হারালেন ম্যান ইউ বস সুলশার

দলের টানা ব্যর্থতার মধ্যেই গুঞ্জন উঠেছিল, চাকরি হারাতে যাচ্ছেন ম্যানইউর কোচ ওলে গুনার সুলশার।

অবশেষে সেটাই সত্যি হলো। সুলশারকে বরখাস্ত করল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

এক বিবৃতিতে খবরটি নিশ্চিত করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটি তাদের বিবৃতিতে জানিয়েছে, কঠিন হলেও সুলশারকে বহিস্কার করার দুঃখজনক সিদ্ধান্ত তাদেরকে নিতে হয়েছে।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী লিভারপুলের কাছে ৫-০ গোলে হারার পরও অবশ্য কোচ সুলশারের ওপর ভরসা রেখেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বোর্ড। ভরসা রেখেছিল নগরপ্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার সিটির কাছে ২-০ গোলে হারের পরও।

কিন্তু সেই ভরসা রাখতে পারলেন না সুলশার। আন্তর্জাতিক বিরতির পর মাঠে ফিরেই তাঁর অধীনে আরেকটি হার দেখল ম্যানইউ।

গতকাল শনিবার রাতে তারা হেরে গেল ওয়াটফোর্ডের বিপক্ষে। প্রিমিয়ার লিগে গত পাঁচ ম্যাচে এই নিয়ে চতুর্থ ম্যাচে হার দেখলে ক্লাবটি। ওয়াটফোর্ডের বিপক্ষে ৪-১ গোলে হারার পর শেষ পর্যন্ত সুলশারকে বরখাস্ত করল ম্যানইউ।

তাঁর বিদায়ে আপাতত অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন মাইকেল ক্যারিক।

Categories
খেলার খবর

৮ উইকেটের বড় হারে সিরিজ হারাল বাংলাদেশ

হতাশার ব্যাটিং। এরপর বল হাতে দারুণ শুরুর পর ক্রমেই নিস্তেজ হতে থাকলো বাংলাদেশ দল। চললো ক্যাচ মিসের মহরা। এতে যা হওয়ার কথা, সেটাই হলো। আরেকটি হতাশার গল্প লিখে পাকিস্তানের বিপক্ষে হার মেনে নিল বাংলাদেশ।

শনিবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরে গেছে বাংলাদেশ। এই হারে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ হারল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল।

আগামী ২২ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি পরিণত হলো নিয়ম রক্ষার ম্যাচে।

বাংলাদেশের দেয়া ১০৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে বাবর আজমকে হারায় পাকিস্তান। মোস্তাফিজুর রহমানের শিকার হয়েছেন তিনি আগের ম্যাচের মতো প্রায় একই ঢঙে, মাত্র ১ রান করে ইনসাইড এজ হয়েছেন তিনি। এরপরই ব্যাট করছেন রিজওয়ান ও ফখর।

এরইমধ্যে ফখর জামানের সহজ ক্যাচ মিস করেছেন সাইফ হাসান। আমিনুল ইসলাম বিপ্লবের বলে স্কয়ার লেগে ক্যাচ তুলেছিলেন তিনি। কিন্তু সহজ ক্যাচটি সাইফ হাসান মিস করার বাংলাদেশও হারায় ম্যাচে ফিরে আসার সুযোগ।

Categories
খেলার খবর

পাকিস্তানকে ১০৯ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ

তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয়টিতে পাকিস্তানকে ১০৯ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ।

শনিবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৭ উইকেটে ১০৮ রান তুলে বাংলাদেশ। উল্লেখযোগ্য রান করেছেন কেবল দুজন। বাকিরা বরাবরের মতোই ব্যর্থতার বৃত্তে বন্দি হয়ে ছিলেন।

টস জিতে আগে ব্যাটিং করতে নামা বাংলাদেশ প্রথম দুই ওভারের মধ্যেই দুই ওপেনার নাঈম শেখ ও সাইফ হাসানকে হারায়। শুরুর চাপ কাটিয়ে তৃতীয় উইকেটে ৪৬ রানের জুটি গড়েন নাজমুল হোসেন শান্ত ও আফিফ হোসেন ধ্রুব।

এই জুটি ভাঙার পর আবারও খোলসবন্দি হয়ে পড়ে বাংলাদেশ। ২১ বলে ২০ রান করে বিদায় নেন আফিফ। এরপর ১২ রান করে আউট হন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এক পাশ ধরে খেলে যাওয়া নাজমুল হোসেন শান্ত দলীয় ৮০ রান পরিয়ে আউট হন।

বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান ৩৪ বলে ৫টি চারে সর্বোচ্চ ৪০ রানের ইনিংস খেলেন। নুরুল হাসান সোহান ও শেখ মেহেদি এদিন রান করতে পারেননি। সোহান ১১ ও মেহেদি ৭ রান করেন। আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ৮ ও তাসকিন আহমেদ ২ রানে অপরাজিত থাকেন।

পাকিস্তানের বাঁহাতি পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি ৪ ওভারে ১৫ রান খরচায় ২টি উইকেট নেন। লেগ স্পিনার শাদাব খানের শিকারও ২ উইকেট। এ ছাড়া মোহাম্মদ ওয়াসিম, হারিস রউফ ও মোহাম্মদ নওয়াজ একটি করে উইকেট নেন।

Categories
খেলার খবর

টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ (প্লেয়িং ইলেভেন): মোহাম্মদ নাইম, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, আফিফ হোসেন, মাহমুদুল্লাহ (অধিনায়ক), নুরুল হাসান (উইকেটকিপার), মাহেদী হাসান, আমিনুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান

পাকিস্তান (প্লেয়িং ইলেভেন): মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটকিপার), বাবর আজম, ফখর জামান, হায়দার আলী, শোয়েব মালিক, খুশদিল শাহ, শাদাব খান, মোহাম্মদ নওয়াজ, শাহীন আফ্রিদি, মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়র, হারিস রউফ

Categories
খেলার খবর

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে চার উইকেটের হার বাংলাদেশের

আবারো নিজেদের আনপ্রেডিক্টেবলিটির প্রমাণ দিলো পাকিস্তান।

শ্বাসরুদ্ধ ম্যাচে বাংলাদেশকে ৪ উইকেটে হারিয়ে ৩ ম্যাচ সিরিজের টি-টোয়েন্টিতে ১-০ তে এগিয়ে গেলো।

বাজে ব্যাটিংয়ের পর বোলিংয়ের শুরুটা ছিল দুর্দান্ত। কিন্তু শেষ অবধি সেটা টেনে নিতে পারলেন না কেউ। সঙ্গে অধিনায়কত্বের ভুলভাল তো আছেই। সবমিলিয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ হেরেছে ৪ উইকেটে।

দাপুটে বোলিংয়ে পাকিস্তানকে কোণঠাসা করে রেখেছিল বাংলাদেশ দল। শেষ ৩ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ৩২ রান। ক্রিজে নতুন দুই ব্যাটসম্যান শাদাব খান এবং মোহাম্মদ নেওয়াজ। এ ম্যাচে শেষ দিকে এসে খেই হারাল স্বাগতিকরা। আর কোন উইকেট না হারিয়ে ৪ বল হাতে রেখেই ৪ উইকেটের জয় পাকিস্তানের।

মিরপুর মানেই যেন একচেটিয়া দাপট বাংলাদেশের। পাকিস্তানের বিপক্ষে আজ (শুক্রবার) মাঠে নামার আগে শের-ই-বাংলায় খেলা সবশেষ ১২ টি-টোয়েন্টি ম্যাচের ৯টিতেই জয় টাইগারদের।

বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে জয়ের পাশাপাশি ১০ ম্যাচে ৭ জয়। ভরপুর আত্মবিশ্বাস নিয়ে বিশ্ব মঞ্চে যায় অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। তবে বিশ্বকাপে একেবারেই সুবিধা করতে পারেনি। সুপার টুয়েলভ পর্বে পাঁচ ম্যাচে পাঁচটিতেই হার।