Categories
প্রযুক্তি

পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে মুক্ত বিশ্বকোষ উইকিপিডিয়া

প্রায় দু’যুগ ধরে অনলাইনে তথ্য পাওয়ার বড় উৎসে পরিণত হয়েছে মুক্ত বিশ্বকোষ উইকিপিডিয়া । বিনামূল্যের এই  সাইটের লাখ লাখ নিবন্ধ যেমন প্রতিদিন বহু মানুষ পড়েন, তেমনি লেখার কাজটাও লাখ লাখ সেচ্ছাসেবীরাই করেন। প্রায় এক দশক পর পরিবর্তন হচ্ছে উইকিপিডিয়ার ডেস্কটপ সংস্করণ।

নতুন ব্যবহারকারীরা যেন সহজে উইকিপিডিয়া ব্যবহার করতে পারেন, সে লক্ষ্যেই এমনটা করা হচ্ছে বলে উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন নিয়ন্ত্রিত  মিডিয়াউইকি পোস্টে বলা হয়েছে। এ পোস্টে উইকিপিডিয়ায় প্রস্তাবিত পরিবর্তন দেখতে পাওয়া যাচ্ছে। সেখানে স্বেচ্ছাসেবীদের মতামতের ওপর ভিত্তি করে সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে।

দৃশ্যমান পরিবর্তনের চেয়ে নিবন্ধ পড়ার অভিজ্ঞতায় পরিবর্তন আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। আর এই পরিবর্তনগুলো আনা হবে দীর্ঘ সময় ধরে। এক ব্লগ পোস্টে উইকিপিডিয়ার মূল প্রতিষ্ঠান উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, পরিবর্তন আনার আগে ব্যবহারকারীদের তা পরখ করে দেখার সুযোগ দেওয়া হবে। পরিবর্তনের কাজটি শেষ হবে ২০২১ সালের শেষ নাগাদ।

আরও পড়ুন- গার্ডিয়ানে প্রধানমন্ত্রীর নিবন্ধ: বাংলাদেশে করোনাকালে ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলা

পরিবর্তন সম্পর্কে বলা হয়েছে ওপরের ডান দিকে যুক্ত হচ্ছে টেবল অব কনটেন্ট বা পাঠ্যসূচি। এতে সহজে দীর্ঘ নিবন্ধের বিভিন্ন অংশে যাওয়া যাবে। পুরোটা স্ক্রল করার দরকার পড়বে না।

প্রথম পরিবর্তন আসবে বাঁ পাশের সাইড বারে। চাইলে প্রতি পৃষ্ঠা থেকে সাইড বার বন্ধ রাখা যাবে। এতে মূল লেখা পড়ায় সময় অপ্রয়োজনীয় লিংকগুলো মনোযোগে ব্যাঘাত করবে না। তা ছাড়া একটি বোতামে ভাষা পরিবর্তনের সুবিধা আসছে। যে নিবন্ধটি পড়া হচ্ছে, তা অন্য কোন কোন ভাষায় পড়া যাবে, তা দেখাবে সেখানে।

প্রতি পাতায় উইকিপিডিয়ার লোগো ছোট করা হবে। তা ছাড়া নিবন্ধ খোঁজার সার্চ বারে পরিবর্তন আনা হবে। সহজে অন্যান্য পাতা খুঁজে পাওয়া যাবে বলে জানানো হয়েছে।

তবে মুঠোফোন সংস্করণ বদলাবে কি না, সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

ভয়েস টিভি/ডিএইচ

Categories
প্রযুক্তি

মিনিট-ঘণ্টায় কেনো ৬০!

৬০ সেকেন্ডে ১ মিনিট, আবার ৬০ মিনিটে ১ ঘণ্টা। এগুলো আমরা একদম ছোট্টবেলা থেকে শিখে আসছি। সেই হাজার হাজার বছর ধরে চলে আসা পদ্ধতিতেই এই হিসাব এখনও করা হয়।

কিন্তু এই নিয়ম চালু হওয়ার পেছনে ইতিহাসবিদরা অনেক মত পোষণ করেছেন এবং সংখ্যাগত ও জ্যামিতিক বর্ণনার মাধ্যমে এটি ব্যাখ্যা করা যায়।

  • সংখ্যাগত দিক বিবেচনায়- ১০ ভিত্তিক সংখ্যা পদ্ধতিটি এসেছে আমাদের হাতের যে ১০টি আঙ্গুল আছে তার কারণেই, কারণ এর ফলে কোনও কিছু গণনা করতে সুবিধা হয়। প্রায় সব কিছু পরিমাপের জন্যই আমরা দশমিক পদ্ধতির একক ব্যবহার করি। কিন্তু সময়ের ক্ষেত্রে আমাদের এককগুলো খুবই অদ্ভুত।

৩৬৫ দিনে ১ বছর, ৩০ দিনে ১ মাস, ৭ দিনে ১ সপ্তাহ, ২৪ ঘণ্টায় ১ দিন- কোনোটির সাথে কোনোটির মিল নেই। তাই প্রায় ৫ হাজার বছর আগে, সুমেরীয় সভ্যতা তাদের জটিল গাণিতিক এবং জ্যামিতিক হিসাব করার জন্য দশমিক সংখ্যা ব্যবহার করার পরিবর্তে ১২ এবং ৬০ ভিত্তিক সংখ্যা পদ্ধতি ব্যবহার করতো।

এই ১০ ভিত্তিক পদ্ধতির একটি সীমাবদ্ধতা হলো, এই সংখ্যাটিকে ২ ও ৫ ছাড়া অন্য কোনও সংখ্যা দিয়ে ভাগ করা যায় না। সেই তুলনায় কিন্তু দেখতে গেলে ১২ কে ২, ৩, ৪, ৬ দ্বারা এবং ৬০ কে ২ থেকে ৬ পর্যন্ত সব সংখ্যা দিয়েই ভাগ করা যায়।

ফলে এসব পদ্ধতিতে ভগ্নাংশের কাজের হিসেব করা অনেকটাই সহজ ছিলো। এছাড়া সুমেরীয় সভ্যতার মানুষদের পরবর্তীতে ব্যাবলনীয়রা তাদের হাতের বৃদ্ধাঙ্গুল দিয়ে আর যে বাকি চারটি আঙ্গুল আছে তার তিনটি করে বিভাজন হিসাব করে এক হাতে মোট ১২ পর্যন্ত গণনা করত।

এক হাতের ১২টি সংখ্যাকে যদি অন্য হাতের ৫টি আঙ্গুল দ্বারা গুণ করা হয় তাহলে দুই হাত মিলিয়ে সর্বোচ্চ ৬০ পাওয়া যায়। এটিও এই মিনিট-সেকেন্ড গণনা করার ক্ষেত্রে এই ৬০ সংখ্যাটি নির্বাচন করার একটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ হতে পারে।

  • জ্যামিতি ও জ্যোতির্বিদ্যা –

সুমেরীয় সভ্যতা পতন হয়ে যাওয়ার পরে খ্রিস্টপূর্ব অষ্টাদশ শতাব্দীতে ব্যাবলনীয়রা কোণ পরিমাপ করার জন্য ডিগ্রীর আবিষ্কার করে। সে সময় তারা মনে করত যে, পৃথিবী ৩৬০ দিনে মাত্র একবারই সূর্যকে প্রদক্ষিণ করে। অর্থাত্‍ যদি প্রতিদিনের কৌণিক আবর্তনকে ১ ডিগ্রি হিসেবে ধরা হয়, তাহলে একবার পূর্ন প্রদক্ষিণ করতে ৩৬০ ডিগ্রি সম্পন্ন হয়।

ইতিহাসবিদদের ধারণা অনুযায়ী, এখান থেকেই প্রথম বৃত্তের ৩৬০ ডিগ্রির ধারণাটি আসে। বৃত্তের এক ষষ্ঠাংশ, অর্থাত্‍ ৬০ ডিগ্রি একটি প্রকৃত কোণ তৈরী করে।

অর্থাত্‍ যদি ৬০ ডিগ্রী করে বৃত্তের ভিতরে ছয়টি ত্রিভুজ আঁকা হয়, তাহলে প্রতিটি ত্রিভুজই সমবাহু ত্রিভুজ হয়। এই কারণেই তখন থেকেই জ্যামিতি এবং জ্যোতির্বিদ্যায় এই ৬০ সংখ্যাটির একটি বিশেষ গুরুত্ব ছিল।

৩৩৫ থেকে ৩২৪ খ্রিস্টপূর্বের মধ্যে আলেকজান্ডার দ্য গ্রেট একটি বিশাল এলাকা জয় করেছিল, তার ফলে ব্যাবিলনের এই জ্যোতির্বিদ্যা গ্রীস এবং ভারতীয় উপমহাদেশে ছড়িয়ে পড়ে।

এরপর যখন ইসলামের আবির্ভাব ঘটে তখন মুসলিম বিজ্ঞানী ও জ্যোতির্বিদরাও রোম এবং ভারত থেকে ১২ এবং সময় পরিমাপের ক্ষেত্রে এই ৬০ সংখ্যাটিকে গ্রহণ করে। এভাবেই ধীরে ধীরে সারা বিশ্বে এই পদ্ধতি ছড়িয়ে পড়ে।

২৪ ঘন্টার একীভূত দিবারাত্রির ধারণা-

পৃথক পৃথকভাবে ১২ ঘণ্টার দিন এবং ১২ ঘণ্টার রাত নির্ধারণের পর ২৪ ঘণ্টার দিনরাত্রির ধারণাটি তৈরি হয়। কিন্তু বছরের সব সময় সমান দৈর্ঘ্যের ঘণ্টার কৃত্রিম ধারণাটি প্রথম ব্যবহার হতে দেখা যায় খ্রিস্টপূর্ব তৃতীয় শতকে, যখন গ্রীক জ্যোতির্বিদরা তাদের তত্ত্বীয় হিসেব-নিকেশের জন্য এ ধরনের আদর্শ সময়ের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেন।

১২৭ থেকে ১৪৭ খ্রিস্টপূর্বাব্দে গ্রীক জ্যোতির্বিদ হিপারকাস সর্বপ্রথম সমান দৈর্ঘ্যের ২৪ ঘণ্টার দিন ব্যবহার করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু চতুর্দশ শতকে ইউরোপে যান্ত্রিক ঘড়ি আবিস্কার হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত তার প্রস্তাব কার্যকর হয়নি।

  • ভয়েস টিভি/টিআর
Categories
অর্থনীতি প্রযুক্তি

৩৬ টাকায় মিলছে এক কেজি পেঁয়াজ!

টিসিবির অনলাইন ডিলারশিপ পাওয়া ৫টি ই-কমার্স প্লাটফর্মে মাত্র ৩৬ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে ১ কেজি পেঁয়াজ। প্লাটফর্মগুলো হল- যাচাই.কম, চালডাল, স্বপ্ন অনলাইন, সিন্দাবাদ.কম ও সবজি বাজার.কম।

একজন ক্রেতা সর্বোচ্চ ৩ কেজি পেঁয়াজ কিনতে পারবেন। তবে শিগগিরই এটি ৫ কেজি করা হবে। আর এই পেঁয়াজ বাসায় পৌঁছে দেওয়ার জন্যে অতিরিক্ত ৩০ টাকা ডেলিভারি চার্জ নেওয়া হবে। তবে একমাত্র যাচাই.কম ডেলিভারি চার্জ ছাড়া পেঁয়াজ সরবরাহ করছে। শুরুতে ঢাকা ও চট্টগ্রামের গ্রাহকরা এই সুবিধা পাচ্ছেন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, টিসিবি ও ই-ক্যাবের উদ্যোগে এই কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। ২০ সেপ্টেম্বর রবিবার অনলাইনে টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রির এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীনের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়য়ে অতিরিক্ত সচিব ওবায়দুল আজম, টিসিবির চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ আরিফুল হাসান ও ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ই-ক্যাব) সভাপতি শমী কায়সার।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, মধ্যবিত্ত পরিবারসহ অনেকেই ট্রাকসেলের পেঁয়াজ কিনতে পারেন না। সেক্ষেত্রে ই-কমার্সের মাধ্যমে সাশ্রয়ী দামের এই পেঁয়াজ তাদের বাসায় পৌঁছে যাবে।

ই-ক্যাব জানায়, টিসিবির কাছে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের তালিকা দেওয়া হয়েছে। শুরুতেই ৫টি প্রতিষ্ঠান ডিলারশিপ পেয়েছে। তবে মোট ৮টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ঢাকা ও চট্টগ্রামে অনলাইনে পেঁয়াজ বিক্রির সুযোগ পাবে। করতে পারবে। চাহিদা ও যোগানোর উপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে উল্লেখ করে ই-ক্যাব।

প্রতিটি প্রতিষ্ঠান দৈনিক আধা টন হারে তিনদিন পর পর টিসিবি থেকে পেঁয়াজ সংগ্রহ করবে। অনলাইন প্রতিষ্ঠানগুলো ১০ হাজার টন পেঁয়াজ বিক্রির প্রাথমিক লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে।

ভয়েস টিভি/এমএইচ

Categories
জাতীয় প্রযুক্তি

ফ্রিল্যান্সাররা পাবে পরিচয় পত্র

তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) খাতের সঙ্গে জড়িত প্রায় সাড়ে ৬ লাখ ফ্রিল্যান্সার পরিচয় পত্র দেয়া হবে। অল্প কিছু দিনের মধ্যেই তাদেরকে ভার্চুয়াল এই পরিচয় পত্র দেওয়া হবে।

২০ সেপ্টেম্বর রোববার বাংলাদশের ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার নিয়ে আপওয়ার্ক এর এক ভার্চুয়াল উদ্যোগে এক ভার্চুয়াল সভায় অংশ নিয়ে এ কথা জানান আইসিটি প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ফ্রিল্যান্সারদের মেধা ও প্রযুক্তিনির্ভর বাংলাদেশের মূল কারিগর। শ্রমনির্ভর অর্থনীতি থেকে মেধা ও প্রযুক্তিনির্ভর অর্থনীতির দিকে দেশকে এগিয়ে নিতে ফ্রিল্যান্সাররা আমাদের মূল কারিগর। ফ্রিল্যান্সারদের আপস্কেলিংয়ে সর্বাত্মক প্রয়াস চালিয়েছে সরকার।

তারুণ্যের শক্তি বাংলাদেশের সমৃদ্ধি উল্লেখ করে পলক বলেন, শ্রমনির্ভর অর্থনীতি থেকে মেধা ও প্রযুক্তিনির্ভর অর্থনীতির দিকে দেশকে এগিয়ে নিতে ফ্রিল্যান্সাররা আমাদের বড় শক্তি।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রশিক্ষণের পর ফ্রিল্যান্সারদের মেন্টরিংয়ের বিষয়ে তথ্য প্রযুক্তি বিভাগ বিভিন্ন কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। প্রায় সাড়ে ৬ লাখ ফ্রিল্যান্সারকে অল্প কয়েক দিনের মধ্যে ভার্চুয়াল কার্ড দেওয়া হবে। এই কার্ডের মাধ্যমে আত্মপরিচয়’র পাশাপাশি ব্যাংকের ঋণ সহায়তা এবং হাইটেক পার্কে অগ্রাধিকার পাবে।

এসময় ফ্রিল্যান্সারদের দাবি মোতাবেক দেশে পেপ্যাল সেবা আনার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান জুনাইদ আহমেদ পলক।

ফ্রিল্যান্সার সুলতান হোসেন নিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- ফ্রিল্যান্সার সোসাইটি ডেভেলপমেন্ট সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান, টপ রেটেড ফ্রিল্যান্সার ফাহিমুল করিম।

ভয়েসটিভি/এএস

Categories
প্রযুক্তি

উদ্ভাবনী স্টার্টআপের খোঁজে আইসিটি বিভাগ

তথ্যপ্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের আইডিয়া প্রকল্পের উদ্যোগে ‘আইডিয়াথন’ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক আগ্রহী স্টার্টআপগুলো অনলাইনে প্রাথমিক নিবন্ধন করতে হবে। ১৯ সেপ্টেম্বর শনিবার এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করা হয়।

‘লেটস স্টার্ট ইউ আপ’ স্লোগানে শুরু হওয়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন ৩০টির বেশি সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যালামনাই ও বিভিন্ন ট্রেড অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিরা।

আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালক সৈয়দ মজিবুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বিসিসির নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব, বিজিএমইএ সভাপতি রুবানা হক এবং স্টার্টআপ প্রকল্পের এডভাইজার টিনা এফ জাবিন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রতিযোগিতায় বিজয়ী পাঁচ উদ্যোক্তারা পাবেন দক্ষিণ কোরিয়ায় ছয় মাসের প্রশিক্ষণ, ইনকিউবেশন, ফান্ডিং, আন্তর্জাতিক পেটেন্টসহ কপিরাইট ও ট্রেডমার্ক নিবন্ধনের সহযোগিতা। এছাড়া সেরা ২৫ উদ্যোক্তা পাবেন বিশেষ মেনটরিং এবং সম্মাননাপত্র। তবে এজন্য বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক আগ্রহী স্টার্টআপগুলো অনলাইনে প্রাথমিক নিবন্ধন করতে হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, জাতিগতভাবে আমাদের তরুণদের ঝুঁকি নেয়ার যোগ্যতা রয়েছে। তারা নতুন নতুন উদ্ভাবনের মাধ্যমে বিশ্ব জয় করবে। দেশে ইনোভেশন এবং এন্টারপ্রেইনিয়রস ইকোসিস্টেম গড়ে তুলতে সরকার, একাডেমিয়া ও ইন্ডাস্ট্রিকে যৌথভাবে কাজ করতে হবে।

এ প্রতিযোগিতার জন্য ২১ নভেম্বর পর্যন্ত নিবন্ধন করা যাবে। নিবন্ধন শেষে তাদের অংশ নিতে হবে আইডিয়াথন প্রতিযোগিতার সেরা স্টার্টআপ বাছাইপর্বে। প্রতিযোগিতায় সহ-আয়োজক হিসেবে রয়েছে কোরিয়া প্রোডাক্টিভিটি সেন্টার (কেপিসি) এবং কোরিয়া ইনভেনশন প্রমোশন অ্যাসোসিয়েশন (কাইপা)। এছাড়া রয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ ও বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল এবং দক্ষিণ কোরিয়ার মিনিস্ট্রি অফ জাস্টিস ও গ্লোবাল স্টার্টআপ ইমিগ্রেশন সেন্টার।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
প্রযুক্তি

সারাদিন মোবাইলে চোখ, যত্ন নেবেন যেভাবে

প্রতিদিনই বিভিন্ন কাজের জন্যে আমাদের কম্পিউটার ও মোবাইলে চোখ রাখতেই হয়। কেউ কেউ প্রয়োজন ছাড়াও সময় কাটাচ্ছি মোবাইল, টেলিভিশন অথবা ল্যাপটপ নিয়ে। আর একারণে চোখের ওপর অনেক চাপ পড়ে।

মোবাইল-ল্যাপটপে চোখ রাখতেই কারও কারও চোখ জ্বালা, চোখ শুকিয়ে যাওয়া, চোখে অস্বস্তি, চোখ লাল হওয়া, ভারী ভাব, ঝাপসা দেখা, কপাল, ঘাড়, পিঠ, কোমর, মাথা ব্যথা সমস্যা দেখা দিচ্ছে।

তাই চোখের যত্ননিতে হবে। চোখের সুরক্ষায় কিছু বিষয় অনুসরণ করার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

যা করবেন- ১. প্রতি ২০ মিনিট পর অন্তত ২০ সেকেন্ড করে বিরতি নিন, ২০ ফুট দূরত্বে কোন জিনিসের দিকে তাকান। আবার ৩০ মিনিট পর ৫ মিনিটের বিরতি নিন।

২. প্রতি ৩০ মিনিট থেকে এক ঘণ্টা পর চোখে পানির ঝাপটা দিতে পারলে ভালো হয়। এটি চোখকে সুস্থ রাখার পাশাপাশি মানসিক স্বাস্থ্যেরও উপকার করবে।

৩. কাজের বিরতিতে নিয়মিত চোখের ব্যায়াম করলে চোখের পেশিগুলি শক্তিশালী হয়ে ওঠে। এতে চোখের নানা ধরনের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

৪. স্ক্রিনে কোন জিনিস লেখা বা দেখার সময় লেখার সাইজ বাড়িয়ে নিন। এতে চোখে চাপ কম পড়বে এবং চোখ সুস্থ থাকবে।

৫. আইপ্যাড, ট্যাবলেট, টিভি, কম্পিউটার বা ল্যাপটপ ব্যবহারের সময় চোখের খুব কাছাকাছি রাখবেন না।

৬. কম্পিউটারের স্ক্রিনটি আই লেভেল থেকে ১৫-২০ ডিগ্রি নিচে রাখুন। সেই সঙ্গে ২০ থেকে ২৮ ইঞ্চি পর্যন্ত দূরত্ব বজায় রাখুন।

৭. অতিরিক্ত বা কম আলো, চোখে বেশি চাপ সৃষ্টি করে এবং দৃষ্টির ক্ষেত্রে সমস্যা তৈরি করে। তাই স্ক্রিনে আলোর মাত্রা ঠিক রাখুন।

৮. কখনই কম বা বেশি আলোতে কাজ করবেন না।

৯. যারা মাত্রাতিরিক্ত কম্পিউটার বা মোবাইল ব্যবহার করেন তারা অ্যান্টি রিফ্লেকটিভ লেন্সযুক্ত চশমা ব্যবহার করুন। এই চশমা চোখের চাপ কমাতে, ঝাপসা ভাব, মাথা ব্যথা ইত্যাদি সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে।

১০. ভিটামিন এবং খনিজ সমৃদ্ধ খাবার খান। শাকসবজি, গাজর, পেঁপে, খেজুর ইত্যাদি খাবার চোখের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী।

১১. চোখে আর্দ্রতা বজায় রাখতে ওমেগা-থ্রি অয়েল, ফ্ল্যাকসিড অয়েল, স্যামন ও সার্ডিনের মতো মাছ খেতে পারেন।

১২. পর্যাপ্ত ঘুমাতে হবে। সারাদিনের কাজের পর অন্তত আট ঘণ্টা ঘুম জরুরি।

১৩. চোখের কোনও সমস্যা দেখা দিলে দেরী না করে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুন।

ভয়েস টিভি/টিআর

Categories
প্রযুক্তি

দেশের মোবাইলে বাড়ছে ম্যালওয়্যার আক্রমণ

ম্যালওয়্যার একটি ক্ষতিকারক সফটওয়্যার যেটি থার্ড পার্টির সুবিধার জন্য ইউজারের অনুমতি ছাড়া সংবেদনশীল তথ্য হস্তান্তর করতে পারে। ম্যালওয়্যার হলো এমন কিছু সফটওয়্যার যা মোবাইলের স্বাভাবিক কাজে বাধা সৃষ্টি করে।

সহজ ভাষায় আপনি একে ‘দুষ্ট’ সফটওয়্যার বলতে পারেন, যে দুষ্টুমির ছলে আপনার মারাত্মক ক্ষতি করে যায়। বিশ্বে ম্যালওয়্যার আক্রমণে এখনো সেই শীর্ষ তিনে রয়েছে বাংলাদেশ।

সিকিউরিটি ফার্ম ক্যাসপারস্কি তাদের চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের প্রতিবেদনে যে হিসাব দেখিয়েছে সেখানে আক্রমণের সংখ্যা অনেক বেশি দেখা গেছে। বছরের শুরুর প্রান্তিকে বাংলাদেশে মোবাইলে ম্যালওয়্যার আক্রমণ ছিল ১৮.৫৮ শতাংশ। সেটি দ্বিতীয় প্রান্তিকে এখন ১৯.৩০ শতাংশ।

শীর্ষ দশ দেশের তালিকাটা এমন: ইরান (৪৩.৬২ শতাংশ), আলজেরিয়া (২১.৯৭), বাংলাদেশ (১৯.৩০), মরক্কো (১৭.৫৭), নাইজেরিয়া (১৫.১২), ভারত (১৩.৫৪), সৌদি আরব (১৩.৫২), কেনিয়া (১২.৬১), ইন্দোনেশিয়া (১২.১৭), পাকিস্তান (১২.১৬)।

বাংলাদেশ প্রসঙ্গে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে যেসব ম্যালওয়্যার বেশি আক্রমণ করে তার মধ্যে শীর্ষে রয়েছে হিডেনঅ্যাড। অন্যগুলোর মধ্যে অন্যতম: AdWare.AndroidOS.Outad.c এব AdWare.AndroidOS।

ক্যাসপারস্কি তাদের বিবৃতিতে বলেছে, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে মোবাইল এবং ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা দিন-দিন বাড়তে থাকায় হ্যাকিংয়ের ঝুঁকিও বাড়ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার নিরাপত্তা গবেষণা প্রতিষ্ঠান কম্পারিটেকের ২০১৯ সালের প্রতিবেদন বলা হয়েছিল, বাংলাদেশের ৩৬ শতাংশ মোবাইল ফোন ম্যালওয়্যার আক্রান্ত। পিসির মধ্যে ১৯ দশমিক ৭ শতাংশ!

প্রযুক্তি জগতে বেশ কয়েক প্রকার ম্যালওয়্যার রয়েছে। তার মধ্যে ভাইরাস, ট্রোজান, স্পাইওয়্যার, র‌্যানস্যামওয়্যার এবং ওয়ার্ম বেশি পরিচিত।

ভয়েস টিভি/টিআর

Categories
জাতীয় প্রযুক্তি

নিউজ পোর্টালের নিবন্ধন ফি নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন

অনলাইন নিউজ পোর্টালের নিবন্ধন ফি নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে তথ্য মন্ত্রণালয়। নিবন্ধন ফি বাবদ ১০ হাজার টাকা নির্ধারণ করেছে সরকার। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই ফি জারি থাকবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়।

১৩ সেপ্টেম্বর রোববরা রাতে তথ্য মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত অনলাইন নিউজ পোর্টালের নিবন্ধন, স্থাপন ও পরিচালনার জন্য নি¤œবর্ণিত ফি নির্ধারণ করা হলো। নিবন্ধন ফি ১০ হাজার টাকা, প্রতিবছর নিবন্ধন নবায়ন ফি পাঁচ হাজার টাকা, এক মাসের মধ্যে পরিশোধ করলে সারচার্জ দুই হাজার টাকা ও এক মাসের মধ্যে পরিশোধ না করলে সারচার্জ পাঁচ হাজার টাকা।

গত ৩০শে জুলাই প্রথম ধাপে ৩৪টি অনলাইন নিউজ পোর্টালকে নিবন্ধনের অনুমতি দেয় তথ্য মন্ত্রণালয়। ৩রা সেপ্টেম্বর ঢাকা মহানগর ও বিভাগীয় শহরের ৯২টি দৈনিক পত্রিকার অনলাইন ভার্সনকেও নিবন্ধনের অনুমতি দেয়া হয়।

প্রথম ধাপে ৩৪টি অনলাইন পোর্টালকে নিবন্ধনের অনুমতি দেয়ার পর পোর্টালের নিবন্ধন ও পরিচালনার জন্য ফি নির্ধারণ করে তা অর্থ বিভাগে পাঠায় তথ্য মন্ত্রণালয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে অর্থ বিভাগ নিবন্ধন ফি ১০ হাজার টাকা নির্ধারণ করে।

জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা মোতাবেক কমিশন গঠন না হওয়া পর্যন্ত তথ্য অধিদপ্তরকে নিবন্ধন দেয়ার ক্ষমতা দেবে তথ্য মন্ত্রণালয়।

ভয়েস টিভি/টিটআর

Categories
প্রযুক্তি

টিকটকের মার্কিন অপারেশনের দায়িত্ব পেল ওরাকল

টিকটকের মার্কিন অপারেশনের দায়িত্ব পেল ওরাকল। তবে টিকটক প্রস্তুতকারী চীনা সংস্থা বাইটডান্সের সঙ্গে এই চুক্তি সম্পন্ন হবে কীনা তা নির্ভর করছে দুই দেশের সরকারের সিদ্ধান্তের ওপর।

মাসখানেক আগেই আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা করেছিলেন, বেশ কিছু চীনা অ্যাপ দেশের ডেটা চুরি করছে। ওই চীনা অ্যাপগুলোর জন্য আমেরিকার অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা ব্যাহত হচ্ছে।

ট্রাম্প বলেছিলেন, সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে টিকটকের মতো অ্যাপ দেশে নিষিদ্ধ করা হবে। তবে মার্কিন কোনো কোম্পানি যদি তা কিনে নেয়, তাহলে নিষিদ্ধ নাও করা হতে পারে।

মার্কিন প্রতিষ্ঠান কিনলে নিষিদ্ধ হবার সম্ভাবনা নেই এই ঘোষণার পর টিকটকের স্বত্ব কেনার প্রস্তুতি শুরু করে মাইক্রোসফট। রোববারের সেই নিলামে মাইক্রোসফট অংশ নিয়েছিল। কিন্তু রোববার রাতেই মাইক্রোসফট জানিয়ে দেয় তাদের নিলাম বাতিল হয়েছে।

এর কিছুক্ষণের মধ্যেই জানা যায় আর এক মার্কিন টেক জায়েন্ট ওরাকল একটি কনসোরটিয়াম বা অনেকগুলো সংস্থাকে নিয়ে তৈরি একটি মঞ্চ তৈরি করে টিকটকের মার্কিন শেয়ার বাইটডান্সের কাছ থেকে কিনে নিয়েছে।

ওরাকলের সঙ্গে বাইটডান্সের যে চুক্তি হয়েছে, তা ঠিক বিক্রি বলে মনে করছেন না বিশেষজ্ঞরা। তাদের বক্তব্য, আমেরিকায় টিকটক চালানো এবং তার ডেটার দায়িত্ব নিয়েছে ওরাকেল। সেখানে বাইটডান্স হস্তক্ষেপ করবে না, এমনই রয়েছে চুক্তিতে।

তবে ওরাকলের সঙ্গে বাইটডান্সের এই চুক্তি ফলপ্রসূ হবে কি না, তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ আছে।

মার্কিন এবং চীনের প্রশাসন রাজি হলেই এই চুক্তি চূড়ান্ত হবে। মার্কিন ও চীনাদের মাঝে যে অবস্থা বিরাজ করছে তাতে দুই দেশের প্রধান এই চুক্তিকে ছাড়পত্র নাও দিতে পারেন বলে অনেকেই মনে করছেন।

ট্রাম্প ঘনিষ্ঠদের বক্তব্য, প্রেসিডেন্ট চেয়েছিলেন টিকটকের দায়িত্ব মাইক্রোসফট নিক। যেভাবে কনসোর্টয়াম তৈরি করে ওরাকেল এর দায়িত্ব নিয়েছে, তা নিয়ে যথেষ্ট জটিলতা তৈরি হতে পারে।

সূত্র: ডয়চে ভেলে।

ভয়েস টিভি/টিআর

Categories
প্রযুক্তি

স্মার্টফোনের রেডিয়েশন লেভেল জানবেন যেভাবে

আধুনিক জীবন স্মার্টফোন ছাড়া অচল। বলতে গেলে এখন আমরা সবাই স্মার্টফোন ব্যবহার করি। নতুন স্মার্টফোন কেনার আগে সবাই প্রাধান্য দেয় ক্যামেরার মেগাপিক্সেল, ইন্টারনাল মেমরি কত জিবি, ব্যাটারি ব্যাকআপ কত ঘণ্টা দিবে এই সমস্ত বিষয়।

কিন্তু অনেক গুরুত্বপূর্ণ ফিচার থাকে, যা নিয়ে আমরা একদমই চিন্তাভাবনা করি না বললেই চলে। তার মধ্যে যেমন স্মার্টফোনের রেডিয়েশন কত? স্মার্টফোনের একটা অন্যতম প্যারামিটার হল রেডিয়েশন লেভেল।

ফোনের মধ্যে থাকা ট্রান্সমিটিং ডিভাইস থেকে সব সময় নির্গত হয় অদৃশ্য রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি তরঙ্গ। সেই তরঙ্গ নিঃসরণের হার একটি নির্দিষ্ট মাত্রা অবধি আমাদের শরীরের তেমন কোন ক্ষতি করে না।

কিন্তু এই রেডিয়েশন লেভেল অতিরিক্ত হলে, তখন আমাদের শরীরে মারাত্মক প্রভাব পড়ে। স্মার্টফোনের রেডিয়েশনের পরিমাপ করা হয় ‘এসএআর ভ্যালু’ দিয়ে।

আপনার ফোন আপনার জন্য কতটা নিরাপদ জেনে নিন আপনার স্মার্টফোনের মাধ্যমেই। ফোন থেকে টাইপ করুন *#০৭#, তারপর আপনার ফোনের স্ক্রিনে দেখতে পাবেন SAR ইনফরমেশন। তার নিচে দেখতে পাবেন আপনার ফোনের রেডিয়েশন লেভেল।

এ নিয়ে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা রয়েছে অনেক দেশেই। যেমন ভারতের সরকারের টেলি যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশিকা অনুসারে এই এসএআর ভ্যালু প্রতি কিলোগ্রামে ১.৬ ওয়াটের বেশি হলে চলবে না বলে নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়েছে।

ভয়েস টিভি/টিআর