Categories
জাতীয় ভিডিও সংবাদ

যত্রতত্র পশুরহাট নয়, মানতে হবে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি: ওবায়দুল কাদের

ঢাকা : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। আবারও স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, শেখ হাসিনা সরকার কোনো অন্যায়কারীকে ছাড় দেয়নি, ভবিষ্যতেও দেবে না। ১২ জুলাই রোববার তার সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এ মন্তব্য করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বরেন, আসন্ন কোরবানির ঈদে পশুরহাট এবং মানুষের ঈদযাত্রা করোনা সংক্রমণের মাত্রাকে উদ্বেগজনক পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারে, বিশেষজ্ঞদের এমন আশঙ্কায় করোনা বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি কয়েকটি জেলায় পশুরহাট না বসানোর পরামর্শ দিয়েছে। তাই যত্রতত্র পশুরহাট নয় । বিদ্যমান এ পরিস্থিতিতে এ পরামর্শ খুবই ব্যবহারিক এবং বাস্তবায়ন সম্ভব হলে ভাল ফলাফল বয়ে আনবে নিঃসন্দেহে।

তিনি বলেন, যত্রতত্র পশুরহাট বসানো যাবে না। সড়ক মহাসড়কের ওপর কিংবা পাশে অনুমতি দেয়া যাবে না। কেনাবেচায় কঠোর ভাবে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন নিশ্চিত করতে হবে।

ভয়েসটিভি/নিয়ামুল সাদেক/দেলোয়ার

Categories
ভিডিও সংবাদ সারাদেশ

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীরা পেলো প্রধানমন্ত্রীর উপহার

জয়পুরহাট: রাজশাহী বিভাগের উত্তর-পশ্চিম সীমান্ত ঘেঁষা প্রায় সাড়ে আট লাখ জনগণের বসবাস জয়পুরহাট। এখানে মুসলিম ও হিন্দু সম্প্রদায়ের পাশাপাশি রয়েছে বহু ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর মানুষ। বিশ্বমহামারী করোনা দুর্যোগে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা যাতে লেখাপড়া বিমুখ না হয় সেজন্যে প্রধানমন্ত্রী তাদের একটি করে বাই-সাইকেল, ক্রীড়া সামগ্রী ও শিক্ষা বৃত্তির নগদ টাকা উপহার হিসেবে দেন। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে এ উপহার তুলে দেন স্থানীয় এমপি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট শামছুল আলম দুদু। দুর্যোগের এ মুহূর্তে এসব উপহার পেয়ে আনন্দিত শিক্ষার্থীরা।

প্রধানমন্ত্রীর দেয়া এসব উপহার শিক্ষার্থীদের মাঝে পৌঁছে দিতে পেরে খুশি স্থানীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা প্রশাসন। এসব উপহার পেয়ে দূরের শিক্ষার্থীরা নিয়মিতভাবে বিদ্যালয়ে যেতে পারবে। সেই সাথে তাদের শিক্ষার মানেরও উন্নয়ন ঘটবে বলে আশা করছেন তারা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া এসব আনুপ্রেরণামূলক উপহারের যথোপযুক্ত ব্যবহারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় আগ্রহ বাড়ার পাশাপাশি শিক্ষার মান উন্নয়ন হবে, এমনই প্রত্যাশা স্থানীয়দের।

ভয়েসটিভি/জয়পুরহাট প্রতিনিধি/হ্যাপি/দেলোয়ার

Categories
খেলার খবর ভিডিও সংবাদ সারাদেশ

হাডুডু খেলার জনপ্রিয়তা ফেরানোর উদ্যোগ

আধুনিকতার ছোঁয়ায় হারিয়ে যাচ্ছে বাংলার ঐতিহ্যবাহী সব খেলা। এরমধ্যে অন্যতম বাঙ্গালির প্রাণের খেলা ও জাতীয় খেলা হাডুডু বা কাবাডি খেলা। তরুণ প্রজন্মের মাঝে এই খেলাটি আবারো জনপ্রিয় করতে মেহেরপুর সুবিদপুর গ্রামে আয়োজন করা হয় হাডুডু প্রতিযোগিতা।

হাডুডু প্রতিযোগিতায় ১২ টি দল অংশগ্রহণ করে। আর এই খেলা উপভোগ করতে জড়ো হয় মাঠ ভর্তি দর্শক। তবে নবীন খেলোয়াড়ের অংশগ্রহণ ছিলো তুলনামূলক কম।

এই খেলা দেখতে দুর দুরান্ত থেকে ছুটে আসে প্রবীণরা। তাদের সঙ্গে দর্শক সারিতে বসে খেলা উপভোগ করে শিশুরাও। বাংলার প্রতিটি গ্রামে নতুন প্রজন্মের মাঝে আবারো হাডুডু খেলা জনপ্রিয় হয়ে উঠুক এমনটাই গ্রামবাসীর প্রত্যাশা।

গ্রামের প্রবীণরা বলেন, বাংলাদেশের জাতীয় খেলা কাবাডি। কিন্তু আধুনিক সব খেলার ভিড়ে হারিয়ে যেতে বসেছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য এই হাডুডু খেলা। তাই এমন হাডুডু প্রতিযোগিতা তরুণদের দেশের জাতীয় খেলা খেলতে উদ্বুদ্ধ করবে।

আয়োজক বকুল হোসেন জানান, তরুণদের মাঝে হাডুডুর জনপ্রিয়তা ফিরিয়ে আনতে আর বাংলার সব গ্রামে খেলাটি ছড়িয়ে দিতে এই আয়োজন। এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পেরে খুশি খেলোয়াড় ও দর্শকরা।

 

ভয়েসটিভি/এএস

Categories
ভিডিও সংবাদ সারাদেশ

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে সেন্ট্রাল অক্সিজেন চালু

চাঁদপুর: চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভাষাবীর এম. এ. ওয়াদুদ মেমোরিয়াল ট্রাষ্ট এর উদ্যোগে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সরবরাহ প্লান্ট উদ্বোধন করা হয়েছে। ১১ জুলাই শনিবার দুপুরে এক ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে এই অক্সিজেন প্লান্টের উদ্বোধন করেন চাঁদপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমানের সভাপতিত্বে অক্সিজেন প্লান্ট উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন ভাষাবীর এম. এ. ওয়াদুদ মেমোরিয়াল ট্রাষ্ট্রের সভাপতি জে. আর. ওয়াদুদ টিপু।

হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ও করোনা ফোকাল পারসন ডা. সুজাউদ্দৌলা রুবেল বলেন, ‘এই সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্লান্টের মাধ্যমে এখানের আইসোলেশন ইউনিটে করোনা আক্রান্ত ৩০ রোগীকে একসঙ্গে অক্সিজেন সেবা দেওয়া সম্ভব হবে।’

ভয়েসটিভি/চাঁদপুর প্রতিনিধি/ডিএইচ

Categories
অর্থনীতি ভিডিও সংবাদ

সাভারে রপ্তানির অপেক্ষায় হাজার কোটি টাকার চামড়া

করোনার পরিস্থিতিতে প্রায় ৩ মাস বন্ধ থাকার পর সাভারের চামড়া শিল্প নগরীতে সীমিত পরিসরে কাজ ও রপ্তানি শুরু হয়েছে। তবে, রপ্তানি শুরু হলেও প্রায় ১ হাজার কোটি টাকার রপ্তানিজাত চামড়া কারখানায় মজুদ রয়েছে বলে জানায় ট্যানারি মালিকরা।

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের সহযাগিতা ছাড়া আসন্ন কোরবানি ঈদে চামড়া ব্যবসায়ী ও আড়ৎদারদের বকেয়া পরিশোধ করা সম্ভব হবে না বলেও জানান তারা। এতে চামড়া নষ্ট হওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরী হওয়ার আশংকা রয়েছে।

এমন অবস্থায় ট্যানারী মালিকেরা বলছেন- রপ্তানি বন্ধ থাকায় প্রায় ১ হাজার কোটি টাকার উপরে রপ্তানিজাত চামড়া কারখানায় মজুদ করে রাখতে বাধ্য হচ্ছে। এতে আড়ৎদারদের বকেয়া পরিশোধ সম্ভব হবে না বলে মনে করছেন মালিকরা।

বিটিএ সভাপতি শাহীন আহমেদ ভয়েস টিভিকে জানান, চামড়া শিল্প বাঁচাতে আসন্ন কোরবানির ঈদের আগে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক থেকে পর্যাপ্ত আর্থিক সহযোগিতা প্রয়োজন।

আর কাচা চামড়ার ব্যবসায়ীসহ আড়ৎদাররা বলছেন, ট্যানারী মালিকেরা যদি বকেয়া পাওনা টাকা পরিশোধ না করে তাহলে গেল কোরবানীর ইদের মতোই এবারও কাচা চামড়া নষ্ট হওয়ার মতো একটি পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।

নাটোর চামড়া ব্যবসায়ী গ্রুপের সহ সভাপতি লুৎফুল হাবিব ভয়েস টিভিকে জানান, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের কাচা চামড়া ব্যবসায়ী ও আড়ৎদারদের ২০১৭ সাল থেকে এখন পর্যন্ত অন্তত ১শ কোটি টাকা পাওনা রয়েছে।

ভয়েসটিভি/সাভার প্রতিনিধি/হ্যাপি/দেলোয়ার

Categories
ভিডিও সংবাদ সারাদেশ

ভরা বর্ষায়ও মাছ নেই নেত্রকোনার হাওরে

নেত্রকোনায় ভরা বর্ষায়ও হাওরাঞ্চলে মাছ না পেয়ে কষ্টে দিন কাটাচ্ছে জেলে পরিবারগুলো। জেলায় সহস্রাধিক উন্মুক্ত জলাশয় থাকলেও এসব জলাশয়ে মাছের দেখা মিলছে না।

জেলেরা জানান, হাওরসহ নদী, নালা, খাল-বিলে অবৈধ জাল ও বাধ দিয়ে পোনা মাছ নিধনের ফলে এ সংকট দেখা দিয়েছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ফজলুল কাবীর জানান, চলতি বছর জেলা ৮৫ হাজার মেট্রিকটন মাছ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে জেলা মৎস্য বিভাগ। এর মধ্যে জেলার চাহিদা মিটিয়ে প্রায় ৩৫ হাজার মেট্রিকটন মাছ রপ্তানি করা হয়।

এদিকে হাওরে মাছ না পেয়ে বেকার হয়ে পড়া জেলেরা তাদের কর্মসংস্থান ও সহযোগিতার জন্যে সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করছেন।

 

ভয়েসটিভি/এএস

Categories
অর্থনীতি ভিডিও সংবাদ

দাম কমাতে হিলি স্থলবন্দরে বাড়ছে মসলার আমদানি

দিনাজপুর: বিভিন্ন দেশ থেকে মসলা জাতীয় পণ্য আমদানি হলেও করোনা ভাইরাসের কারণে জাহাজ না আসায় সেসব দেশ পণ্যের এলসি নেয়া হতো না। এছাড়া করোনা মহামারী ঠেকাতে দেশে টানা ৬৬ দিন সাধারণ ছুটি আর ভারতে লকডাউনের কারণে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে দুই মাসেরও বেশি সময় আমদানি-রপ্তানি বন্ধ ছিলো।

এতে বেড়ে যায় মসলার দাম।এমন সংকট থাকলে কোরবানি ঈদের আগে আরেক ধাপ দাম বাড়তে পারে বলে ধারণা করছে ব্যবসায়ীরা।তাই দাম নাগালের মধ্যে রাখতে মসলা আমদানি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে হিলি স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ।

মসলা আমদানিককারক হারুন উর রশিদ জানান, দীর্ঘদিন আমদানি বন্ধ থাকায় দেশের বাজারে মসলা জাতীয় পণ্যের সরবরাহ কমে যায়।বাজারে চাহিদা থাকা সত্বেও সরবরাহ না থাকায় মসলার দাম বেড়ে যায়।

কয়েকজন খুচরা বিক্রেতার সাথে আলাপকালে জানা যায় আমদানি শুরু হওয়ার পর থেকে বাজারে কমতে শুরু করে মসলার দাম।আর আমাদানি বাড়ালে কোরবানি ঈদে মসলার সংকট হবে না বলে আশা ব্যবসায়ীদের।

হিলি স্থল শুল্ক স্টেশন সহকারী কমিশনার মো. আব্দুল হান্নান ভয়েস টিভিকে জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে গত ৮ জুন থেকে এ বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি শুরু হয়।কোরবানির ঈদে মসলার দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে ভারত থেকে মসলার আমদানি বাড়ানো হয়েছে। প্রতিদিন হিলি স্থলবন্দর দিয়ে জিরা, কালো জিরা, আদা, শুকনো মরিচ, মেথি, হলুদসহ বিভিন্ন ধরনের মসলা জাতীয় পণ্যের আমদানি হচ্ছে।এসব মসলা রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হচ্ছে।

ভয়েসটিভি/প্রতিবেদক/হ্যাপি/দেলোয়ার

Categories
ভিডিও সংবাদ সারাদেশ

অবৈধ ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে অভিযান

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় অবৈধভাবে গড়ে উঠা ডায়াগনষ্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

এ সময় অনুমোদনের কাগজপত্র দেখাতে না পারায় কাঞ্চনা ফুলতলা হেলথ ডায়াগনষ্টিক এন্ড ডায়াবেটিক সেন্টারকে জরিমানা করা হয়। এছাড়া পেশেন্ট বেড, অভিজ্ঞ ডাক্তার ও নার্স না থাকায় বেশ কয়েকটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এম.এ মজিদ ওসমানীকে সঙ্গে নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার আল-বশিরুল ইসলাম।

 

ভয়েসটিভি/এএস

Categories
ভিডিও সংবাদ সারাদেশ

জেলেদের নৌকা নিরাপদ রাখতে খাল খননের দাবি

ভোলা : নিরাপদে নৌকা ও ট্রলার রাখতে না পারায় প্রতিনিয়ত ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছেন ভোলার জেলেরা। মেঘনার তীরঘেঁষা জনপদ ভোলা সদরের পূর্ব ইলিশা ও রাজাপুর ইউনিয়ন। এখানে বসবাস ১০ হাজার জেলের।

এক সময় ইলিশা ও রাজাপুর ইউনিয়নের একটা অংশ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে কালুপুর, চডারমাথা, পাটোওয়ারীখাল, পন্ডিতের খাল ও গাজীপুর নামে ৫টি খাল। সেখানে নিরাপদেই নৌকা ও ট্রলার রাখতেন জেলেরা। কিন্তু নদী ভাঙ্গন থেকে রক্ষায় দুটি পয়েন্টে সাড়ে ৪ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বাঁধ নির্মাণ করায় অনেক খালের প্রবেশ মুখ বন্ধ হয়ে গেছে।

এতে বাধ্য হয়ে সিসি ব্লকে কিংবা নদীরে তীরে নৌকা রাখতে হয় জেলেদের। আর এতেই ভারী বাতাস, ঝড় কিংবা তীব্র ঢেউয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় নৌকা ।
অন্যদিকে ঝড়ের সময় বা তীব্র বাতাসেও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এসব নৌকা। এতে আর্থিকভাবে লোকসানের মুখে পড়ছেন জেলেরা। তাই খাল খনন বা স্লুইট গেইট নির্মাণের দাবি তুলেছেন জেলেরা।
ভোলা জেলা মৎস্য বিভাগের সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো:আসাদুজ্জামান ভয়েস টিভিকে জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের সাথে কথা বলে জেলেদের সমস্যার সমাধান ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


ভয়েসটিভি/ভোলা প্রতিনিধি/সাম্মা/দেলোয়ার

Categories
ভিডিও সংবাদ সারাদেশ

ফুলে ফলে ভরে উঠেছে কৃষক মোকারমের আনার বাগান

চুয়াডাঙ্গা: দেশে প্রথমবারের মতো বাণিজ্যকভাবে আনার চাষ শুরু হয়েছে চুয়াডাঙ্গায়। ঝুঁকি নিয়েই বড় পরিসরে চাষ শুরু করেছেন রাঙ্গিয়ারপোতা গ্রামের আদর্শ কৃষক মোকাররম হোসেন। এরইমধ্যে এ বাগান থেকে বাণিজ্যিকভাবে আনার বিক্রি শুরু হয়েছে। বাগানটি দেখতে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে শতশত মানুষ ভীড় জমাচ্ছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার রাঙ্গিয়ারপোতা গ্রামের কৃষক মোকাররম হোসেন দুই বছর আগে ৫ বিঘা জমিতে চাষ করেছেন বিদেশী ফল আনার। মানুষের দেহের রক্তচাপ কমানোসহ হাড়ক্ষয় ও ক্যান্সার প্রতিরোধের জন্য ফলটি বেশ উপকারী। প্রথম বারের মতো বাংলাদেশে চাষ হচ্ছে এই ফলের। এরই মধ্যে ফুলে ফলে ভরে উঠেছে কৃষক মোকারমের আনার বাগান।

২ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে বাগান থেকে বাণিজ্যিকভাবে ফল বিক্রিও শুরু হয়েছে। উদ্যোক্তা বলেছেন আনার বাগান তৈরিতে বিঘা প্রতি খরচ হয়েছে ১ লাখ টাকা।বছরে ফল বিক্রি হবে আনুমানিক ৫ লাখ টাকার।

আনার বাগানটির পরামর্শক হিসাবে কাজ করছেন ভারতের সয়েল চার্জার টেকনোলজি ফার্মের একজন কৃষিবিদ। তার মতে বাংলাদেশের মাটি ও আবহাওয়া আনার চাষের জন্য বেশ কঠিন ছিলো।

স্থানীয়রা বলছেন, গ্রামের অধিকাংশ মানুষ আগে মাদক কারবারের সাথে জড়িত ছিল। কিন্তু আনার বাগানটি হওয়াতে অনেকেই মাদকের ব্যবসা ছেড়ে বাগানটিতে কাজ করছে।

চুয়াডাঙ্গা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ আলি হাসান জানান, বাণিজ্যিকভাবে এ ফল চাষ সফল হলে কমবে আমদানি নির্ভরতা । সংশ্লিষ্ট কৃষককে সবধরনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

ভয়েস টিভি/চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি/সুফল/দেলোয়ার