Categories
পশ্চিমবঙ্গ

পশ্চিমবঙ্গের রেল দফতরে আগুন, নিহত ৯

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রেল দফতরে ভয়াবহ আগ্নিকাণ্ডে নয়জন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে রেলের ডেপুটি চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার পার্থসারথি মণ্ডল, দমকলের চার কর্মী, পুলিশের এক অফিসার এবং আরপিএফ-এর এক জন রয়েছেন। তবে এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানা গেছে

৮ মার্চ সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে কলকাতার ইডেন গার্ডেন স্টেডিয়াম সংলগ্ন স্ট্যান্ড রোডের একটি বহুতল ভবনের ১৩ তলায় আগুন লাগে। ভবনটি ভারতীয় রেলের পূর্বাঞ্চলীয় দফতর বলে জানা গেছে।

এদিকে নিহতদের জন্যে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তিনি নিহতদের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপুরণ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। ঘটনাস্থলে গিয়ে দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আনুমানিক রাত ৭টায় কলকাতা ইডেন গার্ডেন স্টেডিয়াম সংলগ্ন ভারতীয় রেলের পূর্বাঞ্চলীয় দফতরের বহুতল ভবনের ১৩ তলায় আগুন লাগে। আগুন নেভাতে ১৪টি ইউনিট কাজ করে। প্রায় দেড় ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে দমকল বাহিনী।

রাতে ঘটনাস্থলে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রেলের ভবনটি অনেক পুরনো। ভয়াবহ দুর্ঘটনা। আগুন নেভাতে আসা সাতজনের দেহ (তখনও অবধি) পাওয়া গিয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। এখনও দুজনের খোঁজ চলছে বলে পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন। তাঁরা (মৃতরা) লিফটে করে উঠতে গিয়েছিলেন। সেখানেই আগুন বিদ্যুতের ঝলকের মতো পুড়িয়ে দিয়েছে। খুবই দুঃখজনক। মৃতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপুরণ ছাড়াও পরিবারের এক জনকে সরকারি চাকরি দেয়া হবে। সকলেই খুব লড়াই করে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেছেন।

পশ্চিমবঙ্গের এ মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, রেলের ভবনে আগুন হলেও রেল মন্ত্রণালয় থেকে কেউ আসেননি। কেউ কোনো কথা বলেননি। এমন কি পুলিশও কোনো সহযোগিতা করেননি।

দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু জানিয়েছেন, তিনি রাতে দমকল ও পুলিশ অফিসারদের সঙ্গে ১৩ তলায় উঠে নিজে মৃতদেহ দেখে এসেছেন। তাঁর কথায়, লিফটে উঠে ১৩ তলায় পৌঁছে লিফটের দরজা খোলার পরে আগুনে ঝলসে প্রায় পুড়ে যান তাঁরা। আমরা উপরে উঠে দেখি, লিফটের মধ্যেই পাঁচজনের দেহ পড়ে রয়েছে। বাইরে পড়েছিল আরও দুজনের দেহ। পোশাক দেখে বোঝা গিয়েছে, তাঁদের মধ্যে চার জন দমকলকর্মী।

এ ছাড়াও একজন আরপিএফ এবং একজন হেয়ার স্ট্রিট থানার এএসআই। একজন ব্যক্তিকে চিহ্নিত করা যায়নি। রেলের দুই কর্মী আহত হয়ে শিয়ালদহে বিআর সিংহ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

আরও পড়ুন : সৌদি আরবে সোফা কারখানার আগ্নিকাণ্ডে সাত বাংলাদেশি নিহত

ভয়েস টিভি/এমএইচ

Categories
পশ্চিমবঙ্গ বিনোদন

জল্পনার অবসান ঘটিয়ে বিজেপিতে মিঠুন চক্রবর্তী

সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে ভারতীয় জনতা পার্টিতে (বিজেপি) যোগ দিয়েছেন মেগাস্টার মিঠুন চক্রবর্তী। ৭ মার্চ রোববার বিজেপির সমাবেশে মিঠুন চক্রবর্তীর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন দিলীপ ঘোষ।

এ সময় মিঠুনের পরনে ছিল ধুতি-পাঞ্জাবি আর মাথায় কালো টুপি। মঞ্চে আরও উপস্থিত ছিলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়, শুভেন্দু অধিকারীসহ অনেকে।

মিঠুন চক্রবর্তী এর আগে মমতা ব্যানার্জির দল তৃণমূল কংগেসের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তৃণমূলের রাজ্য সভার সদস্যও ছিলেন তিনি। তৃণমূলের ভোটের প্রচারের দেখা গিয়েছিল এ অভিনেতাকে। বছর পাঁচেক আগে একটি চিটফান্ড মামলায় নাম জড়ায় মিঠুনের। একটি অর্থলগ্নি সংস্থার কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা পাওয়ার অভিযোগ ওঠার কিছুদিন পরই ২০১৬ সালের শেষ দিকে সংসদ সদস্য পদ থেকে সরে দাঁড়ান মিঠুন।

মিঠুন চক্রবর্তীর বিজেপিতে যোগ দেওয়াকে এবারের ভোটের বড় চমক হিসেবে দেখছেন অনেকে। এর আগে ১৬ ফেব্রুয়ারি সকালে মিঠুন চক্রবর্তীর মুম্বাইয়ের বাড়িতে দেখা করেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত। তারপর থেকেই মিঠুনকে নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছিল।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
পশ্চিমবঙ্গ

প্রচারণায় নেমে মোদির সমাবেশ এলাকায় মিছিল করবেন মমতা

দলীয় প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেই নির্বাচনী প্রচারণায় নেমেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ৬ মার্চ শনিবার উত্তরবঙ্গের উদ্দেশে রওনা দেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রোববার শিলিগুড়ি শহরেই তার এক রাজনৈতিক কর্মসূচি রয়েছে। অনুষ্ঠানিকভাবে সেখান থেকেই নির্বাচনের প্রচার শুরু করবেন তিনি।

আনন্দবাজার জানিয়েছে, নির্বাচন ঘোষণার পর আর কোননো রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশ নেননি মমতা। কিন্তু ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে দলীয় প্রার্থীদের নামও প্রকাশ্যে এনেছেন তিনি। রোববার শিলিগুড়ির মিছিলে তার সঙ্গে থাকবেন এই কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অধ্যাপক ওম প্রকাশ মিশ্র। মুখ্যমন্ত্রী শিলিগুড়িতে এই কর্মসূচি করলেও রাজ্যজুড়ে তৃণমূল কর্মীদের সিলিন্ডার মিছিল করতে নির্দেশ দিয়েছেন।

এক সংবাদ সম্মেলনে মমতা জানিয়েছেন, সিলিন্ডারের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে ওই দিন শিলিগুড়ি শহরে সিলিন্ডার নিয়ে মিছিল করবেন তিনি। নারী তৃণমূলের উদ্যোগে এই মিছিল হবে শিলিগুড়ির প্রাণকেন্দ্রে।

এদিকে ওই দিনই বিজেপির ব্রিগেড সমাবেশে প্রধান বক্তা হিসেবে হাজির থাকবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ব্রিগেড সমাবেশ দিয়েই বিজেপি এ রাজ্যে নিজেদের নির্বাচনী প্রচার শুরু করতে চায়।

সূত্র বলছে, সেই সমাবেশ থেকে প্রধানমন্ত্রী যে সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকেই আক্রমণ করবেন সে ব্যাপারে নিশ্চিত তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব। তাই রোববার উত্তরবঙ্গে গিয়ে নির্বাচনী প্রচারের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর আক্রমণের জবাব দেবেন মমতা।

সোমবার সকালেই বিমানে কলকাতায় ফিরবেন মমতা। কলকাতায় নেমেই আরও একটি রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশ নেয়ার কথা তার। আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ভবানীপুর থেকে যাদবপুর পর্যন্ত একটি মিছিলে হাঁটবেন। এই মিছিল আয়োজনের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে তৃণমূলের নারী নেতৃত্বকেই।

৮ তারিখের কর্মসূচির পর ৯ তারিখ রাতে জেলার উদ্দেশে রওয়ানা দেবেন মুখ্যমন্ত্রী। ১০ মার্চ হলদিয়ায় নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী হিসেবে নিজের মনোনয়ন দাখিল করবেন তিনি। পরদিন শিবরাত্রি। তাই কলকাতায় ফিরে আসবেন মুখ্যমন্ত্রী। আবার নন্দীগ্রামে প্রচারসূচি তৈরি হলে সেই প্রচারে অংশ নিতে সেখানে যাবেন। সঙ্গে চলবে প্রথম ও দ্বিতীয় দফার ভোটের প্রচারও।

ভয়েস টিভি/এমএইচ

Categories
পশ্চিমবঙ্গ

করোনায় ১০ মাস পর মৃত্যু শূন্য পশ্চিমবঙ্গ

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ১ মার্চ সোমবার একজন রোগীও মারা যায়নি বলে জানা গেছে। প্রায় ১০ মাস পর এদিন কলকাতা মৃত্যু শূন্য হলেও সংক্রমণের হার নিয়ে উদ্বেগ বেড়েছে।

এর আগে ২০২০ সালের মার্চে প্রথম কোনো ব্যক্তির মৃত্যু হয়। এরপর ওই বছরের ৩ মে করোনায় কারও মৃত্যু হয়নি বলে দাবি করা হয়েছিল।

সোমবার সন্ধ্যায় পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে বলা হয়, এ রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় একজনেরও মৃত্যু হয়নি। রাজ্যে প্রথম করোনা আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছিল গত বছরের ২৩ মার্চ। অর্থাৎ ২২ মার্চ পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে করোনায় মৃতের সংখ্যা ছিল শূন্য।

তারপর মে মাস পর্যন্ত কখনও একাধিক মানুষ করোনায় মারা গেছেন, আবার এমন অনেক দিন ছিল যখন একজনেরও মৃত্যু হয়নি। তবে ৩ মে’র পর থেকে প্রতিদিন করোনায় কেউ না কেউ মারা গেছেন। এরপর গতকাল কেউ মারা যায়নি। ফলে পশ্চিমবঙ্গে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ২৬৮ জনই রয়েছে।

বুলেটিনে আরও বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৯৮ জন, রোববারের তুলনায় ছয়জন বেশি। সোমবারের সংখ্যা মিলিয়ে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৭৫ হাজার ৩১৬ জনে।

তবে ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যা খুব বেশি বাড়েনি। কিন্তু সংক্রমণের হারের দিকে নজর দিলেই বোঝা যাবে সংক্রমণের আসল প্রবণতা। প্রতিদিন যত সংখ্যক নমুনা পরীক্ষা হয়, তার মধ্যে যত প্রতিবেদন পজিটিভ আসে, তার শতকরা হিসাবকেই বলা হয় ‘পজিটিভিটি রেট’ বা ‘সংক্রমণের হার’।

সোমবারের বুলেটিনে এই হার ১.২৪ শতাংশ। রোববার এই হার ছিল ০.৯৭ শতাংশ। রোববার নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ছিল ১৯ হাজার ৭৬৪। সোমবার সেই সংখ্যা কমে হয়েছে ১৬ হাজার ১৪। এত সংখ্যক কম নমুনা পরীক্ষার পরও আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় সংক্রমণের হারও বেড়েছে।

এদিকে সুস্থতার হার অপরিবর্তিত রয়েছে। সোমবারের বুলেটিন অনুযায়ী এই হার ৯৭.৬৪ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২১২ জন। এ নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে সুস্থ হয়েছে ৫ লাখ ৬১ হাজার ৭৫৫ জন। এই মুহূর্তে রাজ্যে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ২৯৩ জন।

সোমবার রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় শীর্ষে ছিল কলকাতা। গত ২৪ ঘণ্টায় মহানগরে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬২। দ্বিতীয় স্থানে থাকা উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৮ জন। হাওড়ায় ১৪ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১১ জন, পশ্চিম বর্ধমানে ১০ জন, বাঁকুড়ায় ১০ জন এবং দার্জিলিংয়ে ১০ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

আরও পড়ুন : ভারতের তিন রাজ্যে ফ্লাইট চালুর ঘোষণা বিমানের

ভয়েস টিভি/এমএইচ

Categories
পশ্চিমবঙ্গ

২৭ মার্চ থেকে পশ্চিমবঙ্গে আট দফায় ভোট

ভারতে পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। ২৭ মার্চ থেকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত আট ধাপে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং ২ মে ফলাফল ঘোষণা করা হবে। ২৬ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার ভারতের নির্বাচন কমিশন এ সূচি ঘোষণা করে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা ও এনডিটিভির।

নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, রাজ্যে ২৭ মার্চ প্রথম দফায় ৩০টি আসনে, ১ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় ৩০টি আসনে, ৬ এপ্রিল তৃতীয় দফায় ৩১টি আসনে, ১০ এপ্রিল চতুর্থ দফায় ৪৪টি আসনে, ১৭ এপ্রিল পঞ্চম দফায় ৪৫টি আসনে, ২২ এপ্রিল ষষ্ঠ দফায় ৪৩টি আসনে, ২৬ এপ্রিল সপ্তম দফায় ৩৬টি আসনে এবং ২৯ এপ্রিল শেষ অষ্টম দফায় ৩৫টি আসনে ভোটগ্রহণ হবে। সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে ভোট গ্রহণ চলার পর ২ মে ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

এদিকে নির্বাচনকে সামনে রেখে পশ্চিমবঙ্গের নিরাপত্তা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে বলে শঙ্কা জানিয়ে রেখেছে কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)।

তাদের শঙ্কার ভিত্তিতেই নির্বাচনের সময়সীমা দীর্ঘায়িত করা হয়েছে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা জানিয়েছেন, তিনি কোনো দলের নাম উল্লেখ করতে চান না। কিন্তু নিরাপত্তা পরিস্থিতির ব্যাপারে কমিশন নজর রাখছে। গতবারের চেয়ে ভোট গ্রহণের সময়সীমা একদিন বাড়ানো হয়েছে। এতে তেমন কোনো প্রভাব পড়বে না।

তিনি বলেছেন, ইতোমধ্যেই নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে দুই পর্যবেক্ষক পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রয়োজনবোধে তৃতীয় আরেকজন পর্যবেক্ষকও পাঠাতে পারবে তারা।

অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন বিজেপির সঙ্গে রাজ্যে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের হাড্ডাহাড্ডি ভোটের লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে মমতা ব্যানার্জিকে সরাতে দফায় দফায় দিল্লি থেকে মোদি, অমিত শাহ ও জেপি নাড্ডার মতো হেভিওয়েট নেতাদের রাজ্যে ডেকে এনে নির্বাচনি প্রচারণা চালাচ্ছে বিজেপি।

এনডিটিভি জানিয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে জয় পেতে অর্থ, সময় এবং শক্তি খরচে কোনো কার্পন্য করছে না বিজেপি। কিন্তু বাইরের একটি দল এসে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতা চালাতে পারবে না নির্বাচনি প্রচারণায় এই তথ্য ব্যবহার করে নিজেদের পক্ষে ভোট চাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস।

আরও পড়ুন : ২৭ মার্চ শেখ হাসিনা-মোদির বৈঠকের সম্ভাবনা

ভয়েস টিভি/এমএইচ

Categories
পশ্চিমবঙ্গ

হোটেলে পাওয়া গেল সাত বারের এমপির মরদেহ

পশ্চিম ভারতের কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল দাদরা ও নগর হাভেলির সাত বারের সংসদ সদস্য মোহন দেলকরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ২২ ফেব্রুয়ারি সোমবার দুপুরে দক্ষিণ মুম্বাইয়ের মেরিন ড্রাইভ হোটেলের রুম থেকে তাঁর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

প্রাথমিকভাবে ৫৮ বছর বয়সী এ স্বতন্ত্র সাংসদ আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা পুলিশের। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

ভারতীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, মুম্বাইয়ের অভিজাত মেরিন ড্রাইভে একটি সি ফেসিং হোটেলে উঠেছিলেন এ প্রভাবশালী এমপি। সেখান থেকেই সোমবার বিকেলে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। গুজরাটি ভাষায় লেখা একটি সুইসাইড নোটও পাওয়া গেছে সেখানে। তবে ময়না তদন্তের পরই মৃত্যুর কারণ নিশ্চিতভাবে বলা যাবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আদিবাসীদের অধিকারের জন্যে আজীবন কাজ করেছেন তিনি। প্রথম দিকে ছিলেন ট্রেড ইউনিয়ন নেতা। ১৯৮৯ সালে প্রথমবার কংগ্রেসের টিকিটে লোকসভায় আসেন তিনি। ২০০৪ সাল পর্যন্ত টানা পেয়েছেন জনতার আশীর্বাদ। তবে এরপর হেরে যান ২০০৯ ও ২০১৪ সালে।

কিন্তু গত ২০১৯ সালে ফের জয়ী হন মোহন দেলকর। নিজের প্রতিষ্ঠিত ভারতীয় নবশক্তি পার্টির টিকিটে জয়যুক্ত হন তিনি। মাঝে তিনবার কংগ্রেস ও তিনবার বিজেপির টিকিটে জিতেছিলেন এ বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ। দেলকরের স্ত্রী ও দুই ছেলে-এক মেয়ে রয়েছে।

ভয়েস টিভি/এমএইচ

Categories
জাতীয় পশ্চিমবঙ্গ

সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুবাদ করবে ভারতীয় সফটওয়্যার

এখন থেকে বাংলাদেশের আদালতের রায় অনুবাদ করবে ভারতীয়  ‘আমার ভাষা’ অনুবাদ সফটওয়্যার। ১৮ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার  ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট এটি  উদ্বোধন করে।

এ সফটওয়্যার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে আদালতের আদেশ ও রায়গুলি ইংরেজি থেকে বাংলায় অনুবাদ করতে সক্ষম।

এই সফটওয়্যারটি তৈরি করেছে একস্টেপ ফাউন্ডেশন অফ ইন্ডিয়া, যাদের মূল

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের  প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন,  আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী জনাব আনিসুল হক, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব জনাব মো. গোলাম সারোয়ার এবং ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রী বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে ‘আমার ভাষা’ সফটওয়্যারটি নিয়ে একস্টেপ কর্তৃক নির্মিত একটি ভিডিও প্রদর্শিত হয়।

হাই কমিশনার শ্রী বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী বলেন, ভারতে তৈরি এই অনন্য অনুবাদ সফটওয়্যার ইনস্টলেশনে অংশীদার হতে পেরে এবং শুভেচ্ছাস্বরূপ বিতরণ করতে পেরে ভারত অত্যন্ত সম্মানিত।

তিনি আরও বলেন, এই ধরনের সহযোগিতা কেবল ভারত এবং বাংলাদেশের মধ্যেই সম্ভব হতে পারে কারণ বাংলা ভারতের অন্যতম স্বীকৃত ভাষা।

এছাড়া, ভারত এবং বাংলাদেশের উভয় বিচারিক ব্যবস্থার উৎস, বিধান এবং ভাষা অভিন্ন। হাই কমিশনার মহামারীকালীন ন্যায়বিচার নিশ্চিতকরণের জন্য ই-কোর্ট স্থাপনের মতো প্রযুক্তির ব্যবহারে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সাম্প্রতিক প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন।

তিনি স্মরণ করিয়ে দিয়েছিলেন যে, ২০২০ সালের নভেম্বরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশেষভাবে বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ ও বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের বাংলায় বিচারের রায় প্রদানের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করেছিলেন। তিনি একস্টেপ ফাউন্ডেশনের নির্দেশনা এবং প্রযুক্তিগত সহায়তায়, বাংলাদেশের মুক্তির ৫০তম বার্ষিকীতে এবং একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের তিনদিন আগে এই সফটওয়্যারটি চালুর বিষয়ে বিশেষ গুরুত্বারোপ করেন।

‘অনুবাদ’ সফটওয়্যারটি ভারতে একইভাবে ইংরেজি থেকে বাংলাসহ অন্যান্য ভারতীয় ভাষায় অনুবাদ করার জন্য ব্যবহৃত হয়।

অনুবাদ সফটওয়্যারটিকে ২৬ নভেম্বর ২০১৯ থেকে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট অনুবাদের জন্য SUVAS (সুপ্রিম কোর্ট বিধিক অনুবাদ সফটওয়্যার) হিসেবে ব্যবহার করার নির্দেশ দেয়।

ভয়েস টিভি/ডিএইচ

 

Categories
পশ্চিমবঙ্গ

ভারতে অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে বাস খালে, নিহত ৩৭

ভারতের মধ্যপ্রদেশে একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খালে পড়ে অন্তত ৩৭ জন নিহত হয়েছেন। ১৬ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকালে রাজ্যের সিধি জেলায় এ ঘটনা ঘটেছে।

বার্তা সংস্থা এএফপি ও ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যম এমন খবর দিয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, একটি সেতু থেকে পড়ে যাওয়া বাসটি খালের পানিতে পুরোপুরি ডুবে যায়।

জেলার পুলিশ সুপার ধরমবীর সিং বলেন, আমরা এখন পর্যন্ত ৩৭ জনের মরদেহ উদ্ধার করতে পেরেছি। উদ্ধার অভিযান চলছে। স্থানীয়রাও উদ্ধার কাজে সহায়তার হাত বাড়িয়েছেন। বাসটিতে অর্ধশতাধিক যাত্রী ছিল।

তবে চালকসহ সাত যাত্রী সাঁতরে তীরে আসতে সক্ষম হয়েছেন।

কী কারণে বাসের গতি হঠাৎ পরিবর্তন হয়ে গেছে, তা জানা সম্ভব হয়নি।

নিহতদের পরিবারকে দুই লাখ রুপি করে সহায়তা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

সড়কে প্রাণহানিতে ভারত বিশ্বের অন্যতম দেশ। ২০১৯ সালে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় এক লাখ ৫১ হাজার ১১৩ জন নিহত হয়েছেন। অর্থাৎ প্রতিদিন গড়ে ৪১৪ জন সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় দেশটিতে।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
পশ্চিমবঙ্গ

৫ টাকায় পেট পুরে খাওয়াবেন মমতা

‘মা‌’ নামে নতুন প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১৫ ফেব্রুয়ারি সোমবার ৫ টাকায় ‘পেট ভরা’ খাবার দেয়ার এই প্রকল্প শুরু করেছে রাজ্য সরকার।

কলকাতা ১৬টি বরোর ১৪৪টি ওয়ার্ডে এই সুবিধা চালু হচ্ছে। ওয়ার্ড প্রতি ৫০০ জন মানুষ দৈনিক এই পরিষেবা পাবেন। সব কটি ওয়ার্ড মিলিয়ে ৫০ হাজারের বেশি মানুষ ৫ টাকায় ২০০ গ্রাম ডাল, ভাত, তরকারি ও ডিম পাবেন। প্রতিদিন দুপুর ১টা থেকে ২টো পর্যন্ত এই প্রকল্প চালু থাকবে।

প্রাথমিক ভাবে এই প্রকল্প কলকাতার জন্য চালু হলেও, পরবর্তীকালে রাজ্যের বিভিন্ন অংশে এই প্রকল্প চালু করা হবে।

কলকাতা পৌরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য দেবাশিস কুমার জানিয়েছিলেন, ‘বরোর যেকোনও একটি পয়েন্ট থেকে আমজনতাকে খাবার বিলি করা হবে। যে সময় যেমন সবজি পাওয়া যাবে, তখন সেটিই দেয়া হবে পাতে।’

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
পশ্চিমবঙ্গ

২২১টি আসন পাওয়ার আশা দৃঢ়প্রত্যয়ী মমতার

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এর হিসেবকে ফু দিয়ে উড়িয়ে কমপক্ষে ২২১টি আসন পাবেন আগাম ঘোষণা দিলেন দৃঢ়প্রত্যয়ী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এর আগে পশ্চিমবঙ্গে এসে অমিত শাহ বারবার বলেছেন, বাংলায় ২০০টির বেশি আসন পাবে বিজেপি। এবার নরেন্দ্র মোদির সেনাপতির পশ্চিমবঙ্গ সফরের দিনেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করলেন, তৃণমূল ২২১টির বেশি আসনে জিতে ক্ষমতায় ফিরবে।

এমনকি নন্দীগ্রাম থেকে অমিত শাহকে তার বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার চ্যালেঞ্জও ছুড়ে দিয়েছেন এই মুখ্যমন্ত্রী। আর এমন পরিস্থিতিতে সরগরম হয়ে উঠেছে এই রাজ্যের রাজনীতি।

দৃপ্ত কণ্ঠে মুখ্যমন্ত্রী মমতা জানিয়েছেন, শেষ দুবার যা আসন পেয়েছি, এবার তার থেকেও বেশি পাব। অর্থাৎ রাজ্যে ফের তৃণমূল কংগ্রেসের ক্ষমতায় আসা নিশ্চিত। সেই সঙ্গে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে অমিত শাহকে তিনি বলেন, আসুন নন্দীগ্রামে লড়াই করুন।

তৃণমূল সুপ্রিমো পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রাম থেকে বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হবেন বলে নিজেই ঘোষণা করেছিলেন। সম্প্রতি শুভেন্দু অধিকারী অমিত শাহ এর হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তারপরেই এই ঘোষণা করেন মমতা।

বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতিতে ছিল ঘটনাবহুল একটি দিন। কারণ একদিকে বঙ্গসফরে এসে তৃণমূল সুপ্রিমোকে আক্রমণ করেন অমিত শাহ। মমতাও পাল্টা জবাব দিতে দেরি করেননি। দিনের দুই পর্বে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চড়া সুরে বিঁধেছেন।

পরে বিকেলে একটি বেসরকারি সংবাদমাধ্যমের সম্মেলনে স্পষ্ট ভাষায় বলেন, আমার আত্মবিশ্বাস এখন ১১০ শতাংশ। আগের দুবারের চেয়ে বেশি আসন পাব এবার। ২২১টির বেশি আসনেই জিতব।

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনকে তিনি আলাদা করে দেখছেন না বলেও দাবি করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, যার লড়াই করার সাহস আছে, সে কখনও ভয় পায় না। আমি স্ট্রিট ফাইটার। প্রত্যেকদিন রাস্তায় নেমে লড়াই করি। নির্বাচন একটা রুটিন ব্যাপার।

ভয়েস টিভি/এমএইচ