Categories
বিশ্ব

মেক্সিকোতে করোনা আক্রান্ত ১০ জনে একজনের মৃত্যু

গত বছরের নভেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভারাস শনাক্ত হয়। এরপর বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে এ মহামারি। বছরের ব্যবধানে ১৪ লাখ ২৬ হাজারেরও বেশি মানুষের প্রাণ কেড়েছে ভাইরাসটি। মেক্সিকোতে করোনায় মৃত্যু লাখ ছাড়িয়েছে। দেশটিতে এক লাখ ৩ হাজার ৫৯৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর মেক্সিকোতে আক্রান্ত হয়েছে ১০ লাখ ৭০ হাজার ৪৮৭ জন।

আক্রান্তের দিক দিয়ে দেশটির অবস্থান ১১তম হলেও মৃত্যু বিবেচনায় চতুর্থ। দেশটিতে ১০ শতাংশ করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। অর্থাৎ প্রতি ৯.৬৭ বা প্রায় ১০ জনে এক জন করোনা রোগী মারা গেছে দেশটিতে। আক্রান্ত বিবেচনায় শতাংশের হিসেবে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে মেক্সিকোতে।

২৬ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিকে ইতালিতে এখন পর্যন্ত ৫২ হাজার ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ লাখ ৮০ হাজার ৮৭৪ জন। ফ্রান্সে মৃত্যু হয়েছে ৫০ হাজার ৬৫৮ জনের। আর আক্রান্ত হয়েছে ২১‌ লাখ ৭০ হাজার ৯৭ জন।

প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, ভাইরাসটিতে বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত ৬ কোটি ৭ লাখ ১৯ হাজার ৯৫৭ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৪ লাখ ২৬ হাজার ৮২৩ জনের। ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪ কোটি ২০ লাখ ৩১ হাজার ৩৯৩ জন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারস-এর তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ৩১ লাখ ৩৭ হাজার ৯৬২ জন। মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ৬৮ হাজার ২১৯ জনের।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
বিশ্ব

ব্রাজিলে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৪১

ব্রাজিলে যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে অন্তত ৪১ জন নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় ২৫ নভেম্বর বুধবার দেশটির সাও পাওলো রাজ্যের তাগুই শহরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সাও পাওলো পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। আল-জাজিরা।

এক বিবৃতিতে সাও পাওলো পুলিশ জানায়, বাস-ট্রাক সংঘর্ষের ঘটনায় ৩৭ জন ঘটনাস্থলেই মারা যান। আর বাকি ৪ জন হাসপাতালে ভর্তির পর মৃত্যুবরণ করেন। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

স্থানীয় এক টেলিভিশন প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থলে আরও বেশ কয়েকজন আহত ব্যক্তিকে দেখা গেছে। কিন্তু তাদের সংখ্যা কত তা জানা যায়নি। কীভাবে ঘটনাটি ঘটেছে তা নিশ্চিত হতে তদন্ত করবে পুলিশ।

স্থানীয় গণমাধ্যম বলছে, দুর্ঘটনার শিকার বাসটি একটি টেক্সাটাইল কোম্পানির ৫৩ জন কর্মীকে নিয়ে যাচ্ছিল। সংঘর্ষের পর উদ্ধারকারীরা ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর জখম যাত্রীদের সহায়তা করেছে।

স্থানীয় উদ্ধারকর্মীরা জানান, ঘটনাস্থলেই ৩৭ জন নিহত হয়েছেন। বাকি চারজন মারা যান জরুরি সেবা কেন্দ্রে।

টিভি ফুটেজে দেখা গেছে, ভাঙা কাচের গুঁড়ি, দুই গাড়ির বিভিন্ন অংশ রাস্তায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে।

সাও পাওলোর গভর্নর জোয়াও দোরিয়া এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি। এ নিয়ে তদন্ত চলছে।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
বিশ্ব

করোনা: মেক্সিকোতে লাখ, ইতালি-ফ্রান্সে অর্ধলাখ ছাড়াল মৃত্যু

গত বছরের নভেম্বরে চীনের উহান থেকে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে মহামারি করোনাভাইরাস। বছরের ব্যবধানে ১৪ লাখ ২৬ হাজারেরও বেশি মানুষের প্রাণ কেড়েছে ভাইরাসটি। সবচেয়ে বেশি মৃত্যু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে মৃত্যু দুই লাখ ৬৮ হাজারেরও বেশি।

এদিকে মেক্সিকোতে করোনায় মৃত্যু লাখ ছাড়িয়েছে। দেশটিতে এক লাখ ৩ হাজার ৫৯৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর মেক্সিকোতে আক্রান্ত হয়েছে ১০ লাখ ৭০ হাজার ৪৮৭ জন।

এছাড়া ইতালি ও ফ্রান্সে করোনায় মৃত্যু ৫০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। ইতালিতে এখন পর্যন্ত ৫২ হাজার ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ লাখ ৮০ হাজার ৮৭৪ জন। ফ্রান্সে মৃত্যু হয়েছে ৫০ হাজার ৬৫৮ জনের। আর আক্রান্ত হয়েছে ২১‌ লাখ ৭০ হাজার ৯৭ জন।

২৬ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, ভাইরাসটিতে বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত ৬ কোটি ৭ লাখ ১৯ হাজার ৯৫৭ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৪ লাখ ২৬ হাজার ৮২৩ জনের। ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪ কোটি ২০ লাখ ৩১ হাজার ৩৯৩ জন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারস-এর তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ৩১ লাখ ৩৭ হাজার ৯৬২ জন। মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ৬৮ হাজার ২১৯ জনের।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
বিশ্ব

বিশ্বে মৃত্যু ১৪ লাখ ২৬ হাজার ছাড়িয়েছে

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে। এ মহামারি ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা ইতোমধ্যে ১৪ লাখ ২৬ হাজার ছাড়িয়েছে। ২৬ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বের ২১৫টি দেশ ও অঞ্চল আক্রান্ত হয়েছে। ভাইরাসটিতে বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত ৬ কোটি ৭ লাখ ১৯ হাজার ৯৫৭ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৪ লাখ ২৬ হাজার ৮২৩ জনের। ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪ কোটি ২০ লাখ ৩১ হাজার ৩৯৩ জন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারস-এর তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ৩১ লাখ ৩৭ হাজার ৯৬২ জন। মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ৬৮ হাজার ২১৯ জনের।

আক্রান্তের হিসাবে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারত। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯২ লাখ ৬৬ হাজার ৭০৫ জন। এর মধ্যে এক লাখ ৩৫ হাজার ২৬১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
বিশ্ব

তামিলনাড়ু উপকূলে আছড়ে পড়ল ঘূর্ণিঝড় নিভার

আম্ফানের ভয়াল স্মৃতি ফিকে হওয়ার আগেই ভারতের পুদুচেরি-তামিলনাড়ু উপকূলে আছড়ে পড়ল ঘূর্ণিঝড় নিভার। ভারতের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া বিজ্ঞান বিভাগ এক বুলেটিনে জানায়, স্থানীয় সময় বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটা নাগাদ পুদুচেরির কাছাকাছি উপকূলবর্তী এলাকায় আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড়টি। তার ঝাপটা লেগেছে তামিলনাড়ুর উপকূলেও।

এদিন সকাল থেকেই বৃষ্টি শুরু হয়েছে চেন্নাই, পুদুচেরি, কাড্ডালোরসহ দেশটির বিভিন্ন এলাকায়। নিভারের দাপটে বৃষ্টির জোর আরও বেড়েছে। সঙ্গে আছে ঝড়ও।

আবহাওয়া দফতর এর আগে জানিয়েছে, প্রায় তিন ঘণ্টায় এর কেন্দ্র পুদুচেরি অতিক্রম করে যাবে। সে সময় বাতাসের গতিবেগ সর্বোচ্চ ১৪৫ কিলোমিটার হতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদরা এও জানিয়েছেন, নিভার এখন ক্রমশ শক্তিক্ষয় করবে। আগামী ৬ ঘণ্টার মধ্যে তা ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হবে বলে মনে করছেন তারা। ঝড়ের অভিমুখ উত্তর-উত্তর পশ্চিম দিকে। ঝড়ের শক্তিক্ষয় হলেও এখনো বিপদ কাটেনি বলে তারা জানান।

এখন পর্যন্ত রাজ্যের কয়েক লাখ মানুষকে উপকূলবর্তী এলাকা থেকে সরিয়ে নিয়েছে তামিলনাড়ুর রাজ্য সরকার সরকার। ইতিমধ্যেই ১৫০টি ত্রাণ শিবিরকে তৈরি রাখা হয়েছে।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাজ্যের উপকূলে রণতরী আইএনএস জ্যোতি মোতায়েন করেছে নৌবাহিনী। খাবারসহ উদ্ধারকাজের বিভিন্ন সরঞ্জাম রাখা হয়েছে জাহাজটিতে।

ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে চেন্নাই বিমানবন্দর সন্ধ্যা ৭টা থেকে ১২ ঘণ্টা পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে অধিকাংশ বড় সড়ক।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
বিশ্ব

শনাক্তের সংখ্যা ৬ কোটি ছাড়াল

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে বিশ্বের ২১৫টি দেশ ও অঞ্চল আক্রান্ত হয়েছে। ভাইরাসটিতে বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত ৬ কোটি ৯৯ হাজার ৭৭৫ জন মানুষ আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৪ লাখ ১৪ হাজার ৬২১ জনের। ইতোমধ্যে সেরে উঠেছেন উঠেছেন ৪ কোটি ১৫ লাখ ৪৯ হাজার ৯৩৬ জন। ২৫ নভেম্বর বুধবার সকাল ১০টা পর্যন্ত আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারসের দেয়া তথ্যে এ সংখ্যা জানা গেছে।

বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি যুক্তরাষ্ট্রে। বুধবার সকাল পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ২৯ লাখ ৫৫ হাজার ৭ জন। মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৬৫ হাজার ৮৯১ জনের।

যুক্তরাষ্ট্রের পর মৃত্যু বিবেচনায় করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হচ্ছে ব্রাজিল। আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় স্থানে থাকলেও মৃত্যু বিবেচনায় দেশটির অবস্থান দ্বিতীয়। লাতিন আমেরিকার দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৬১ লাখ ২১ হাজার ৪৪৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৭০ হাজার ১৭৯ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ভারত মৃত্যু বিবেচনায় আছে তৃতীয় স্থানে। এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৯২ লাখ ২১ হাজার ৯৯৮ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৩৪ হাজার ৭৪৩ জনের।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন উহান শহর থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী এ পর্যন্ত ১৮৮টি দেশে ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

ভয়েসটিভি/এএস

Categories
বিশ্ব

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে ১৪ লাখ মানুষের মৃত্যু

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১৪ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত ৬ কোটির কাছাকাছি। প্রতিনিয়ত করোনার পরিসংখ্যান প্রকাশ করে আসা ওয়ার্ল্ডোমিটার ২৪ নভেম্বর মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় সকাল ১১টা পর্যন্ত এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে এখন পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনায় ১৪ লাখ ২ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আর আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ কোটি ৯৫ লাখ ১৪ হাজার জন। এর মধ্যে সুস্থের সংখ্যা ৪ কোটি ১১ লাখ ৫৬ হাজার। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে মারা গেছেন প্রায় আট হাজার মানুষ। আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ লাখের বেশি।

করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এক কোটি ২৭ লাখ ৭৭ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ২ লাখ ৬৩ হাজারের বেশি লোক।

মৃতের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছে ব্রাজিল। দেশটিতে মৃতের সংখ্যা এক লাখ ৬৯ হাজার ছাড়িয়েছে। শনাক্তের সংখ্যা ৬০ লাখ ৮৮ হাজার ছাড়িয়েছে। আক্রান্তের দিক দিয়ে তৃতীয় অবস্থানে আছে দ্বিতীয় দেশটিতে।

আক্রান্তে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন এক লাখ ৩৪ হাজারের বেশি মানুষ। দেশটিতে ৯১ লাখ ৭৭ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে।

দেশে গত মার্চের শুরুর দিকে কভিড-১৯ এর সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পর রবিবার পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৬ হাজার ৩৮৮ জনে। আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ৪৭ হাজার ৩৪১ জন।

আরও পড়ুন- ছয় সবজি ছুঁয়েছে একশ’

ভয়েস টিভি/ডিএইচ

Categories
বিশ্ব

অবশেষে ক্ষমতা হস্তান্তরে সম্মত হলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

অবশেষে যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতা হস্তান্তরে সম্মত হলেন । চলতি বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী জো বাইডেনের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া শুরু করতে সম্মত হন ।

তিনি বলেছেন, ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়া দেখাশুনার দায়িত্বে থাকা সংস্থার ‘যা করার প্রয়োজন করুক’। একই সঙ্গে তিনি নির্বাচনে পরাজয়ের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের জেনারেল সার্ভিস এডমিনিস্ট্রেশন (জিএসএ) বলছে, তারা বাইডেনকে ‘আপাত বিজয়ী’ হিসেবে স্বীকৃতি দিচ্ছে। মূলত মিশিগানে নির্বাচনের ফল আনুষ্ঠানিকভাবে হাতে আসার পরপরই বাইডেনের বিজয় চূড়ান্ত স্বীকৃতি লাভ করেছে।

এদিকে ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু করার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে বাইডেন টিম। এক বিবৃতিতে তারা বলছে, মহামারি নিয়ন্ত্রণ ও অর্থনীতিতে গতি আনাসহ জাতির সামনে চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলায় আজকের এই সিদ্ধান্তটি ছিলো প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ।

ডোনাল্ড ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেছেন, ক্ষমতা হস্তান্তরের আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়ায় থাকা জিএসএ বাইডেন শিবিরকে জানিয়েছেন যে, তারা প্রক্রিয়া শুরু করতে যাচ্ছে। প্রশাসক এমিলি মারফি বলেছেন, তিনি নতুন প্রেসিডেন্টের জন্য ৬৩ লাখ ডলার অবমুক্ত করেছেন।

তবে ‘ভালো লড়াই’ চালিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে ট্রাম্প বলেছেন, ‘জাতির বৃহত্তর স্বার্থে এমিলি ও তার টিমের করনীয় কাজটাই করা উচিৎ। এবং আমার টিমকেও তাই বলেছি।’ এমিলি মারফিকে ট্রাম্পই জিএসএ প্রধান হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছিলেন।

তিনি নির্বাচনের ফল সার্টিফিকেশন ও আইনি চ্যালেঞ্জসহ সাম্প্রতিক ঘটনাপ্রবাহকে তার সিদ্ধান্তের ভিত্তি হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তবে হোয়াইট হাউসের দিক থেকে কোনো চাপের বিষয়টি তিনি প্রত্যাখ্যান করেছেন।

এমিলি বলেন, ‘আমি পরিষ্কার করতে চাই যে আমি প্রক্রিয়াটি বিলম্বিত করতে কোনো নির্দেশনা পাইনি। বাইডেনকে দেয়া তার চিঠিতে এভাবেই পুরো বিষয়টি উল্লেখ করেছেন তিনি।

তবে তিনি এও বলছেন যে, ‘অনলাইনে, ফোনে এবং ই-মেইলে হুমকি পেয়েছি যাতে আমার নিরাপত্তা, আমার পরিবার, কর্মকর্তা এমনকি আমার পোষা প্রাণীটিকে জড়ানো হয়েছে যাতে সময়ের আগেই আমি সিদ্ধান্ত নেই। এমনকি হাজার হাজার হুমকির মুখেও আমি আইনকে সর্বাগ্রে রাখতে অঙ্গীকারাবদ্ধ ছিলাম।’

নির্বাচনের পর রুটিন কাজ হিসেবে ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু করতে না পারায় যুক্তরাষ্ট্রের দুই রাজনৈতিক শিবির থেকেই এমিলি মারফির তুমুল সমালোচনা হচ্ছিল। ডেমোক্র্যাটরা এটি শুরু করতে তাকে গত সোমবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল।

ভয়েস টিভি/ডিএইচ

Categories
বিশ্ব

মিয়ানমারে শাসকদলের এমপিকে গুলি করে হত্যা

মিয়ানমারে বাড়িতে ঢুকে অং সান সু চির দল ক্ষমতাসীন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসির (এনএলডি) সদ্য নির্বাচিত এক সংসদ সদস্যকে (এমপি) গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। এই ঘটনার জেরে দেশটিতে তুমুল উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে।

এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে শাসকদল এনএলডি। তবে পুলিশ তদন্ত শুরু করলেও এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

২১ নভেম্বর শনিবার ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় একটি সূত্র। মিয়ানমারের উত্তরপ্রান্তে অবস্থিত শান প্রদেশের কিউকম শহরে এক সাংসদকে হত্যা করা হয়েছে।

বাড়ির সঙ্গে থাকা নিজের দোকানে বসেছিলেন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসি পার্টির স্থানীয় সাংসদ হিতকে ঝাও। সে সময় আচমকা সেখানে এসে হাজির হয় অজ্ঞাত এক ব্যক্তি।

এরপর এলোপাতাড়ি গুলি চালাতে থাকে ওই দুষ্কৃতী। গুলিতে আহত হয়ে ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন ঝাও। পরে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

এদিকে, এই ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়ার পরই প্রবল উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে পুরো এলাকায়। নতুন করে অশান্তি ছড়ানোর আশঙ্কায় বহু জায়গায় কারফিউ শুরু হয়েছে।

মিয়ানমারের শাসকদলের পক্ষ থেকে এই হত্যার তীব্র নিন্দা করে একে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জের ধরে হত্যাকাণ্ড বলে উল্লেখ করা হয়েছে। অবিলম্বে অপরাধীকে গ্রেফতার করে কড়া শাস্তি দেওয়ারও আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত এ বিষয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

ভয়েসটিভি/এএস

Categories
বিশ্ব

করোনায় মৃতের সংখ্যা ১৪ লাখ ছুঁইছুঁই

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে বিশ্বের ২১৫টি দেশ ও অঞ্চল আক্রান্ত হয়েছে। ভাইরাসটিতে বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত ৫ কোটি ৮৯ লাখ ৮৫ হাজার ৪৯৩ জন মানুষ আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৩ লাখ ৯৩ হাজার ৬৬১ জনের। ইতোমধ্যে সেরে উঠেছেন উঠেছেন ৪ কোটি ৭ লাখ ৬৬ হাজার ৮৯৯ জন। ২৩ নভেম্বর সোমবার সকাল ১০টা পর্যন্ত আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারসের দেয়া তথ্যে এ সংখ্যা জানা গেছে।

বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি যুক্তরাষ্ট্রে। সোমবার সকাল পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ২৫ লাখ ৮৮ হাজার ৬৬১ জন। মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৬২ হাজার ৬৯৬ জনের।

যুক্তরাষ্ট্রের পর মৃত্যু বিবেচনায় করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হচ্ছে ব্রাজিল। আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় স্থানে থাকলেও মৃত্যু বিবেচনায় দেশটির অবস্থান দ্বিতীয়। লাতিন আমেরিকার দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৬০ লাখ ৭১ হাজার ৪০১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৬৯ হাজার ১৯৭ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ভারত মৃত্যু বিবেচনায় আছে তৃতীয় স্থানে। এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৯১ লাখ ৪০ হাজার ৩১২ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৩৩ হাজার ৭৭৩ জনের।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন উহান শহর থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী এ পর্যন্ত ১৮৮টি দেশে ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

ভয়েসটিভি/এএস