Categories
জাতীয়

দাম একটু বেশি, তবে খাদ্য সংকট নেই : কৃষিমন্ত্রী

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, খাদ্যের জন্য দেশে এখন আর হাহাকার নেই, খাদ্য সংকট নেই, তবে খাবারের দাম একটু বেশি।

১৫ অক্টোবর শুক্রবার রাজধানীর খামারবাড়িতে বিশ্বখাদ্য দিবস উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, পণ্যের চাহিদা যদি বেশি হয় এবং সেই তুলনায় যদি সরবরাহ কম থাকে তাহলে পণ্যের দাম কিছুটা বাড়বেই। হাজার চেষ্টা করেও তখন দাম কমানো সম্ভব নয়। যেমন বর্তমানে আলুর দাম কম, এখন কি সিন্ডিকেট করে দাম বাড়ানো সম্ভব? তারপরেও আমরা সরবরাহ বৃদ্ধি এবং মনিটরিংয়ের মাধ্যমে চেষ্টা করি বাজার নিয়ন্ত্রণ করতে। যারা ব্যবসা করেন তারা আরও বেশি মুনাফা করতে চাইবেন এটাই স্বাভাবিক। সারা পৃথিবীতেই এমন হয়।

তিনি আরও বলেন, একটা জিনিস আমাদের সবাইকে বিবেচনায় নিতে হবে, প্রতিবছর ২৪ লাখ জনসংখ্যা বাড়ছে। পৃথিবীর বহু দেশে ২৪ লাখ মানুষ নেই। আবার আমাদের কৃষি জমির পরিমাণ কমে যাচ্ছে। একই জমিতে শিল্প কলকারখানাও গড়ে তোলা হচ্ছে। দেশের উন্নয়নের ফলে মানুষের আয় বাড়ছে। জমি কমে যাওয়ার পরেও আমরা কিন্তু উৎপাদন বাড়িয়েছি। হাঁস-মুরগি এবং পশু পালন, মৎস্য চাষের ফলে খাদ্যের ব্যবহার এবং চাহিদা বেড়েছে।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, খাদ্যের দামের বিষয়টা আন্তর্জাতিক বাজারের ওপর নির্ভরশীল। খাদ্যের আন্তর্জাতিক বাজার মূল্য স্থানীয় বাজারের ওপর প্রভাব বিস্তার করে। এখন আশ্বিন কার্তিক মাস, এই সময়ে দেশে মঙ্গা শুরু হতো, কিন্তু আমরা মঙ্গা নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছি। খাদ্যের জন্য দেশে এখন আর হাহাকার নেই, খাদ্যের সংকট নেই, তবে খাবারের দাম একটু বেশি। বর্তমান সময়ে একজন শ্রমিক কিংবা রিকশাওয়ালা একদিনের আয় দিয়ে ১০ থেকে ১২ কেজি চাল কিনতে পারেন। সেটা কিনতে পারেন বলেই দেশের মানুষের মধ্যে খাদ্য নিয়ে হাহাকার নেই, মানুষ না খেয়ে নেই। কুড়িগ্রাম নীলফামারী অঞ্চলের মানুষ এখন বলে দেশে মঙ্গা নেই আমরা ভালো আছি।

কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, খাদ্যে বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ কিনা সেটা আমরা বলছি না, কিন্তু আমাদের দেশে খাদ্যের উৎপাদন বাড়ছে। চালের দাম একটু বেশি হলেও, চাল নিয়ে দেশে অস্থিরতা নেই।

সংবাদ সম্মেলনে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ব খাদ্য সংস্থার বাংলাদেশে প্রতিনিধি মি. রবার্ট ডি. সিম্পসন এবং সভাপতিত্ব করেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মেসবাহুল ইসলাম।

ভয়েসটিভি/এএস

Categories
জাতীয়

বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত-পাকিস্তানের অবনতি : এগিয়ে বাংলাদেশ

দক্ষিণ এশিয়ায় ‘গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স’ বা বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে উপরের দিকে অবস্থান বাংলাদেশের। ২০২১ সালের বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ১১৬টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৭৬তম। অন্যদিকে এই সূচকে পাকিস্তানের অবস্থান ৯২তম ও ভারতের ১০১তম।

২০২০ সালের ১০৭টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৭৫তম। সেই হিসেবে চলতি বছর বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে বাংলাদেশের একধাপ অবনতি হয়েছে। এছাড়া নেপালও যৌথভাবে বাংলাদেশের সঙ্গে ৭৬ নম্বরে রয়েছে।

বিশ্ব ক্ষুধা সূচকের ক্রমতালিকায় প্রকাশিত হয় প্রতিবেদনটি। প্রতিবেদনে দেখা যায়, বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে আরও অবনতি হয়েছে ভারতের। সর্বশেষ প্রকাশিত রিপোর্টে সাত ধাপ অবনতি হয়েছে দেশটির। ২০২১ সালে বিশ্বের ১১৬টি দেশের মধ্যে ভারতের অবস্থান ১০১তম। ২০২০ সালে দেশটি এই তালিকার ৯৪ নম্বরে ছিল।

প্রতি বছর আয়ারল্যান্ডের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড’ এবং জার্মান সংস্থা ‘ওয়েল্ট হাঙ্গার হিলফ’ যৌথভাবে বিশ্বের দেশগুলোর মধ্যে ক্ষুধার পরিমাণ নির্ধারণ করে। এ ক্ষেত্রে নির্ণায়ক ভূমিকা পালন করে যে কোনো দেশের সমসাময়িক অর্থনৈতিক অবস্থান, শিশু স্বাস্থ্য এবং সম্পদ বণ্টনের ক্ষেত্রে বৈষম্যের মতো বিষয়গুলো।

চারটি বিষয়কে সামনে রেখে মূলত তৈরি হয় গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স (জিএইচআই)-র এই সূচক। এগুলো হল অপুষ্টি, পাঁচ বছরের কমবয়সী শিশুদের উচ্চতা, মৃত্যুহার, উচ্চতার তুলনায় ওজন। তবে সামগ্রিক ভাবে ভারতের অবস্থান হতাশাজনক হলেও পাঁচ বছরের কমবয়সীদের মৃত্যুহার কিংবা অপুষ্টির হারে আগের থেকে উন্নতি করেছে দেশটি।

২০২১ সালের তালিকায় ভারতের স্থান গতবারের চেয়ে ৭ ধাপ নেমে হয়েছে ১০১তম। তালিকা প্রস্তুতকারীরা একে ‘ভয়াবহ’ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। বিশ্ব ক্ষুধার ক্রমতালিকায় ভারতের পেছনে রয়েছে পাপুয়া নিউগিনি, আফগানিস্তান, নাইজেরিয়া, কঙ্গো, লাইবেরিয়া, মোজাম্বিক, ইয়েমেন, সোমালিয়ার মতো ১৫টি দেশ।

২০২০ সালে ১০৭টি দেশের মানুষের মধ্যে ক্ষুধার সমীক্ষা চালানো হয়েছিল। সে বার ভারত ছিল ৯৪ নম্বরে। ভারতের গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স বা জিএইচআই স্কোরের ধারাবাহিকভাবে পতন হচ্ছে। ২০০০ সালে ভারতের জিএইচআই স্কোর ছিল ৩৮ দশমিক ৮, সেখানে ২০১২ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে ভারতের স্কোর কমে ২৮ দশমিক ৮ থেকে ২৭ দশমিক ৫-এর মধ্যে রয়েছে।

তবে প্রতিবেশী দেশগুলোর অবস্থা ভারতের থেকে অনেকটা ভালো। বিশ্ব ক্ষুধা সূচকের সর্বশেষ এই তালিকায় মিয়ানমার রয়েছে ৭১ নম্বরে, নেপাল ও বাংলাদেশ যৌথভাবে ৭৬ নম্বর স্থানে এবং পাকিস্তান রয়েছে ৯২ নম্বরে।

অবশ্য বিশ্ব ক্ষুধা সূচকের এই তালিকায় সবচেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে চীন, ব্রাজিল, কুয়েতের মতো ১৮টি দেশ। এসব দেশের জিএইচআই স্কোর ৫-এরও নিচে রয়েছে।

বর্তমান জিএইচআইয়ের পূর্বাভাস অনুযায়ী, ২০৩০ সালের মধ্যে ক্ষুধার হার কমিয়ে আনার লক্ষ্য অর্জন করতে পারবে না বিশ্বের ৪৭টি দেশ। রিপোর্টে বলা হয়েছে, বিভিন্ন দিক থেকে খাদ্য নিরাপত্তা ব্যাহত হয়েছে। এই কারণগুলোর মধ্যে রয়েছে, সংঘর্ষ, জলবায়ু পরিবর্তন, করোনাভাইরাস মহামারি সংক্রান্ত স্বাস্থ্য ও আর্থিক চ্যালেঞ্জ।

ভয়েস টিভি/এমএম

Categories
জাতীয়

কমিশনের নির্ধারিত এলপিজির দাম কার্যকরের দায় কে নেবে?

এলপিজির দর নির্ধারণের ব্যবসায়ীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে গণশুনানির পর ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। প্রত্যাশা ছিল এবার অন্তত বিইআরসি’র ঘোষণা কার্যকর হবে। কিন্তু মাঠ পর্যায়ে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নির্ধারিত দাম ছাড়িয়ে অতিরিক্ত দামে এখনও এলপিজি বিক্রি হচ্ছে। দর নিয়ন্ত্রণে বারবার হস্তক্ষেপের ঘোষণা দিলেও বিইআরসি এবং সরকার কোনও ব্যবস্থাই নেয়নি।

কমিশনের চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল এলপিজির দরের ব্যাপারে সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, কমিশনের জনবল মাত্র ৩৫ জন। এত স্বল্প জনবল দিয়ে তাদের পক্ষে সারাদেশে দর নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়। এরপরও সীমিত আকারে হলেও তারা এবার মাঠে নামবেন।

একইসঙ্গে তিনি জানান, দর কার্যকরে সবচেয়ে বড় ভূমিকা নিতে হবে সরকারকে। জেলা প্রশাসন যদি এ বিষয়ে সহায়তা করে তাহলে সারাদেশে কমিশনের ঘোষণা বাস্তবায়ন সম্ভব। কমিশন আদালতের আদেশে সারাদেশে এলপিজির দর নির্ধারণ করছে। কিন্তু ব্যবসায়ীরা যে আদেশ মানছেন না —সে বিষয়টি এখনও আদালতের নজরে আনেনি কমিশন।

আরও পড়ুন : ৬ মাসে ১২ কেজি এলপিজির দাম বাড়ল ৬৬৮ টাকা

কাঁঠালবাগান বাজারের একজন খুচরা এলপিজি সিলিন্ডার বিক্রেতা জানান, ১২ কেজি এলপিজির সিলিন্ডার ১ হাজার ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায় বিক্রি করছেন। কেন সরকারি দামের চেয়ে অতিরিক্ত দামে বিক্রি করছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, দামতো ১ হাজার ২৫৯ টাকা করেছেন। আমাদের তো কিছু লাভ রাখতেই হয়। খুব বেশি তো আমরা রাখছি না।

বসুন্ধরা এলপিজির সেলস অব হেড জাকারিয়া জালাল বলেন, আমরা যা দাবি করেছিলাম কমিশন তার পুরোটা রাখেনি। কিন্তু আন্তর্জাতিক বাজারে যে হারে দাম বাড়ছে তাতে করে ভবিষ্যতে এলপিজি গ্রাহকই আমরা হারাতে পারি। তাই এর চেয়ে বেশি দামে এলপিজি আমরা বিক্রি করতেও চাই না। বাজারে এখনও আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে।’

বাজারে যে নির্দেশনা মানা হচ্ছে না এ বিষয়ে কমিশনের কি করার আছে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কমিশনের চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল বলেন, আমরা অভিযোগ পেলেই বিইআরসির আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবো। জনবল না থাকায় সবাইকে সচেতন হওয়ার পাশাপাশি জেলা প্রশাসনসহ সবাইকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলছি আমরা।

ভোক্তা অধিকার সংগঠন কনজুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) জ্বালানি উপদেষ্টা শামসুল আলম বলেন, এবার কমিশন যে দাম নির্ধারণ করেছে তা একেবারেই ব্যবসায়ীদের পক্ষে। এই দাম ভোক্তাদের স্বার্থে করা হয়নি। আমরা পুরো বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছি। পরবর্তী করণীয় বিষয়ে সবাইকে জানানো হবে।

ভয়েস টিভি/এমএম

Categories
বিশ্ব

হাসপাতালে বিল ক্লিনটন

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন ক্যালিফোর্নিয়ার একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে তিনি করোনা আক্রান্ত নন বলে জানিয়েছেন সাবেক এই প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র। খবর বিবিসির।

ইউসি ইরভিন মেডিকেল সেন্টারে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার ভর্তি হন বিল ক্লিনটন। ৭৫ বছর বয়সী যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট সুস্থ ও প্রাণবন্ত আছেন বলে জানিয়েছেন তার মুখপাত্র অ্যাঞ্জেল ইউরেনা।

যদিও বিষয়টি স্পষ্ট নয় কী চিকিৎসার জন্য তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন, তবে প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের হৃদরোগজনিত সমস্যা রয়েছে বলে জানা গেছে।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের চিকিৎসক জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের অ্যান্টিবায়োটিক ও ফ্লুইড নেওয়া চলছিল। নিয়মিত মনিটরিংয়ের জন্য হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। দুইদিনের চিকিৎসাসেবার পর এখন তিনি ভালোবোধ করছেন।

ইউসি ইরভিন মেডিকেল সেন্টার, সাবেক এই প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের নিউইয়র্ক মেডিকেল টিমের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে এবং তারা জানিয়েছে, শিগগিরই হাসপাতাল থেকে ছাড় পাবেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক এই প্রেসিডেন্ট ১৯৯৩ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন। ২০০১ সালেই হোয়াইট হাউজ ত্যাগ করেন তিনি।

২০০৪ সালে বুকে ব্যথা এবং শ্বাসকষ্টের জটিলতা দেখা দিলে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের বাইপাস সার্জারি করা হয়। এরপর আরও বেশ কয়েকবার শারীরিক জটিলতার কারণে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে যেতে হয় তাকে। তবে সব সময় প্রফুল্ল থাকেন সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বিশ্বজুড়ে ব্যাপক জনপ্রিয়তাও রয়েছে তার।

২০১৬ সালে, যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রেসিডেন্ট পদে প্রথম নারী প্রার্থী ছিলেন হিলারি ক্লিনটন। এই ইতিহাস গড়ার সময় হিলারির সঙ্গী ছিলেন তার স্বামী, সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনও। অবশ্য তিনি নির্বাচনে হেরে যান। বিল ও হিলারির দাম্পত্য জীবন চার দশকেরও বেশি সময় পার করছে। এই দম্পতির একমাত্র মেয়ে চেলসি ক্লিনটন।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
জাতীয়

মিরপুরে খালে পড়া নিখোঁজ ব্যক্তিকে ছয় ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার

রাজধানীর মিরপুরের কালশীতে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ছয় ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। বিকেল ৩টার দিকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

ফায়ার সার্ভিসের দায়িত্বরত কর্মকর্তা লিমা খানম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ওই খালে টানা ছয় ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে জীবিত উদ্ধার করেছেন ডুবুরিরা । তার বয়স আনুমানিক ৪০ বছর। তবে নাম-পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি। তাকে পল্লবী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

সকাল ৯টার দিকে মিরপুরের কালশীতে ২২তলা গার্মেন্টসের পাশে খালে পড়ে নিখোঁজ হন এক ব্যক্তি। এরপর খবর পেয়েই সঙ্গে সঙ্গে সেখানে উদ্ধার অভিযান শুরু করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

ভয়েস টিভি/এমএম

Categories
জাতীয়

কুমিল্লার ঘটনায় কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কুমিল্লায় হামলার ঘটনায় সন্দেহভাজন কয়েকজনকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি বলেছেন, ‘আমরা কয়েকজনকে চিহ্নিত করেছি, আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা তাদের শনাক্ত করে শিগগির গ্রেফতার করতে সক্ষম হবে বলে মনে করছি।’

১৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা শতভাগ নিশ্চিত নই। আমরা মনে করছি, এটা উদ্দেশ্যমূলকভাবে কোনো স্বার্থান্বেষী মহল, কোনো ষড়যন্ত্রকারী, চক্রান্তকারীর কর্ম। আমরা তদন্ত শেষে আপনাদের সব ঘটনা জানাতে পারবো।’

আসাদুজ্জামান খান কামাল আরও বলেন, ‘ইতোমধ্যে আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা, নিরাপত্তা বাহিনী, যেখানে যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছেন, তাদের নিয়ন্ত্রণ করার জন্য ব্যবস্থা নিয়েছেন। কুমিল্লার এ দুঃখজনক ঘটনায় যারা জড়িত, তাদের অবশ্যই খুঁজে বের করবো।’

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
জাতীয়

বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ বাড়তে পারে বৃষ্টি

বরিশাল বিভাগে বেড়েছে বৃষ্টি। বিচ্ছিন্নভাবে বৃষ্টি হচ্ছে ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগেও। এরই মধ্যে বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের সৃষ্টি হয়েছে। এই লঘুচাপের প্রভাবে আগামী তিনদিনের মধ্যে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

বুধবার সকাল ৬টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট বিভাগে কোনো বৃষ্টি হয়নি। এ সময়ে সবচেয়ে বেশি ১৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে পটুয়াখালীতে। ঢাকা বিভাগের ফরিদপুরে ১৫, মাদারীপুরে ২ মিলিমিটার এবং কিশোরগঞ্জের নিকলিতে অল্প বৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

সকাল থেকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তাপমাত্রা কম অনুভব করা হলেও স্বস্তি ফেরেনি জনজীবনে। বুধবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল সিলেটে ৩৬.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫.২ ডিগ্রি থেকে বুধবার কমে হয় ৩৩.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়াবিদ এ কে এম রুহুল কুদ্দুছ বলেন, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও কাছাকাছি এলাকায় একটি লঘুচাপের সৃষ্টি হয়েছে, এর বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত হয়েছে। দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু দেশের উত্তরাঞ্চল থেকে বিদায় নিয়েছে। মৌসুমি বায়ু দেশের দক্ষিণাঞ্চলে কম সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে দুর্বল।

আবহাওয়াবিদ আরও জানান, আগামী তিনদিনের মধ্যে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে এবং দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের অবশিষ্টাংশ থেকে বিদায় নেওয়ায় আবহাওয়াগত অবস্থা অনুকূলে রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা, বরিশাল, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে বলে ধারণা করা হয়।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়, এ সময় সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

আরও পড়ুন : সাগরে ফের লঘুচাপ, অব্যাহত থাকতে পারে বৃষ্টি

 ভয়েস টিভি/এমএম

Categories
সারাদেশ

একাই ৫৫০টি কেক কেটে রেকর্ড গড়লেন যুবক

জন্মদিন যে কোনো ব্যক্তির কাছেই বিশেষ একটি দিন। নিজের জন্মদিনে কেক কাটা মানেই একটি বিশেষ আনন্দের বহিঃপ্রকাশ। পরিবার, কর্মস্থল কিংবা বন্ধুবান্ধবের পক্ষ থেকে অনেকেই জন্মদিনে একাধিক কেক উপহার পেয়ে থাকেন। কিন্তু নিজের জন্মদিনে ৫৫০টি কেক কেটে রেকর্ড করেছেন ভারতের মুম্বাইয়ের এক যুবক। তেমনই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে ঘুরছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, মুম্বাইয়ের এলাকার বাসিন্দা সূর্য রাতুরি নামে এক যুবক নিজের জন্মদিনে ৫৫০টি কেক কেটেছেন।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, তিনটি টেবিলে একসঙ্গে রাখা ছিল কেকগুলো। একেকটি এক-একরকম ফ্লেভারের।

৫৫০টি কেক কাটার আসল কারণ জানা না গেলেও মনে করা হচ্ছে, এসবগুলো কেক উপহার হিসেবেই পেয়েছে ওই যুবক।

আরও পড়ুন : কেক না কাটায় জাতি এবার স্বস্তি পেয়েছে: ওবায়দুল কাদের

আড়াই মিনিটের ভিডিওতে দেখা যায়, দু’হাতে দুটি ছুরি দিয়ে বেশ দ্রুততার সঙ্গেই কেক কাটছেন ওই যুবক। আর তার চারদিক ঘিরে রয়েছে তার বন্ধুবান্ধব ও আত্মীয়স্বজনরা।

জন্মদিনে ব্যতিক্রমী আয়োজনের ঘটনা নতুন কিছু নয়। কয়েক দিন আগেই ভারতের কর্ণাটকের বিজেপির সংসদ সদস্য বাসভরাজ দাদেসুগুর ছেলে সুরেশের জন্মদিনের আইফোন দিয়ে কেক কাটার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

গত বছর অক্টোবরে তরোয়াল দিয়ে কেক কাটার জন্য ভারতের নাগপুরের নিখিল প্যাটেল নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। ২০১৯ সালে ভারতের উত্তর প্রদেশের বাঘপত জেলায় এক ব্যক্তির রাস্তার মাঝে জন্মদিনের কেক রেখে কেকের ওপর গুলি করার অভিনব ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল নেট দুনিয়ায়।

ভয়েস টিভি/এমএম

Categories
জাতীয়

ইভ্যালির নতুন কমিটি গঠনে সাবেক তিন সচিবের নাম

ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চেয়ারম্যান কারাবন্দি থাকার প্রেক্ষাপটে নতুন  কমিটি গঠনের জন্য সাবেক তিন সচিবের নাম আদালতে দাখিল করেছেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এদের মধ্যে আছেন- ভূমি মন্ত্রণালয়ের অবসরপ্রাপ্ত সচিব মাকছুদুর রহমান পাটওয়ারী, স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত সচিব মো. রেজাউল আহসান এবং ভূমি সংস্কার বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত সচিব ইয়াকুব আলী পাটোয়ারী।

বুধবার ১৩ অক্টোবর বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের একক হাইকোর্ট বেঞ্চে এসব নাম প্রস্তাব করা হয়।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানির সময় উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী এ এম মাছুম ও সৈয়দ মাহসিব হোসেন। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, রেজিস্ট্রার জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মস, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর ও প্রতিযোগিতা কমিশনের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী তাপস কান্তি বল।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর এক আদেশে ১২ অক্টোবরের মধ্যে ইভ্যালির নথিপত্র আদালতে দাখিল করতে রেজিস্ট্রার জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মসকে নির্দেশ দেয়া হয়। সে অনুযায়ী নথি দাখিল করা হয় আদালতে।

এর আগে গত ৩০ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির সব নথি তলব করেছিলেন হাইকোর্ট। সে আদেশের ধারাবাহিকতায় গত ১১ অক্টোবর ইভ্যালির যাবতীয় নথি হাইকোর্টে দাখিল করে জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ। তবে সবশেষ অডিট রিপোর্ট জমা দেওয়ার কথা থাকলেও ২০১৯ সাল পর্যন্ত অডিট রিপোর্ট হাইকোর্টে দাখিল করেন ইভ্যালি।

আরও পড়ুন : ইভ্যালির সব নথি তলব করেছে হাইকোর্ট

ইভ্যালিতে একজন ক্রেতা পণ্য অর্ডার করার পাঁচ মাস পরও তা বুঝে না পাওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নর, ই-ক্যাব, ভোক্তা অধিকারে বারবার অভিযোগ করেন। এতে কোনও প্রতিকার না হওয়ায় ইভ্যালির অবসায়ন চেয়ে হাইকোর্টে একটি আবেদন করা হয়। ওই আবেদনের শুনানি নিয়ে ইভ্যালির সব ধরনের সম্পদ বিক্রি-হস্তান্তরে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন আদালত। একইসঙ্গে ইভ্যালিকে কেন অবসায়ন করা হবে না, তা জানতে চেয়ে নোটিশ জারি করেন আদালত।

আবেদনে ইভ্যালি লিমিটেড, কনজুমার রাইটস প্রটেকশন ব্যুরো,  বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন, রেজিস্ট্রার জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মস, বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট,  নগদ, বিকাশ, ই-ক্যাব অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, বেসিস, বাংলাদেশ ব্যাংক ও বাণিজ্য সচিবকে বিবাদী করা হয়।

ভয়েস টিভি/এমএম

Categories
সারাদেশ

ব্যারিস্টারি পড়তে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন পঞ্চগড়ের ফাহাদ

বাবা-মা’র স্বপ্ন ছিলো ছেলে উচ্চ শিক্ষিত হয়ে ব্যারিস্টার হবে। সেই স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে ব্যারিস্টার অ্যাট ল ডিগ্রি নিতে ২০১৮ সালে ১২ সেপ্টেম্বর যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান ফাহাদ হোসেন প্রামাণিক (২৭)। পড়া শেষ না হতেই যুক্তরাজ্যের ব্রিস্টল শহরে একটি বাড়িতে দুর্বৃত্তের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন হন পঞ্চগড়ের সন্তান প্রামাণিক। হত্যাকাণ্ডের এক মাস পর তাঁর লাশ পৌঁছেছে বাড়িতে। মৃত্যুর একমাস পর সকল আইনি প্রক্রিয়া শেষ ফাহাদের নিথর দেহ দেশে এনে নিজ গ্রামের বাড়ি পঞ্চগড়ে সমাহিত করা হয়।

পরিবারের বরাত দিয়ে জানা যায়, গত ১২ সেপ্টেম্বর যুক্তরাজ্যের ব্রিস্টল শহরে একটি বাড়িতে দুর্বৃত্তের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন হন ফাহাদ। পরদিন পুলিশ ওই বাড়ির একটি কক্ষ থেকে ফাহাদসহ দুজনকে উদ্ধার করে। গত ১৫ সেপ্টেম্বর পঞ্চগড় জেলা প্রশাসন ও পুলিশের মাধ্যমে ফাহাদের খুন হওয়ার বিষয়টি জানতে পারেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে পুলিশ ইতোমধ্যে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে বলে সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর সকাল ১০টায় পঞ্চগড় শহরের দারুল উলুম মাদ্রাসার মাঠে ফাহাদের দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। বেলা সাড়ে ১১টায় সদর উপজেলার চাকলা হাট ইউনিয়নের নেকিপাড়া এলাকায় তৃতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়।

এর আগে গত ৮ অক্টোবর যুক্তরাজ্যের ব্রিকলেন জামে মসজিদে ফাহাদের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। ফাহাদের লাশটি বাংলাদেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করে বাংলাদেশ হাইকমিশন।

আরও পড়ুন : ফরিদপুরে ১০ ডাকাত গ্রেফতার, পিস্তল-গুলি উদ্ধার

ভয়েস টিভি/এমএম