Categories
জাতীয়

টিকা নিতে নিবন্ধন করেছে ১ কোটি ১৮ লাখ ৪৯ হাজার

দেশে করোনা টিকা গ্রহণের নিবন্ধনকারীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। ২৪ জুলাই শনিবার পর্যন্ত মোট নিবন্ধনকারীর সংখ্যা বেড়ে এক কোটি ১৮ লাখ ৪৯ হাজার ৯৭ জনে দাঁড়িয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (এমআইএস ও লাইন ডাইরেক্টর) অধ্যাপক ডা. মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত করোনার টিকা সংক্রান্ত এক তথ্যে বিষয়টি জানা যায়।

এতে বলা হয়, ফাইজারের প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন চার হাজার ১৪৮ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৯২ জন ও নারী ২১ জন। এ নিয়ে ফাইজারের প্রথম ডোজের টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা মোট ৫০ হাজার ২১৭ জন হয়েছে।

এদিকে শনিবার দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিয়েছেন ১৩৮ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৮৪ জন ও নারী ৩৪ জন।

এছাড়া শনিবার মডার্নার প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন ৩৬ হাজার ৫৮৬ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ২২ হাজার ৭৩২ জন ও নারী ১৩ হাজার ৮৫৪ জন। এ পর্যন্ত মডার্নার প্রথম ডোজের টিকা নিলেন ৩ লাখ ৬ হাজার ১২৩ জনে।

একই দিনে সিনোফার্মের প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন এক লাখ ২২ হাজার ৯৬৪ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৭৩ হাজার ১৮০ জন ও নারী ৪৯ হাজার ৭৮৪ জন।

এ পর্যন্ত সিনোফার্মের প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন এক লাখ ৭২ হাজার ৬২৪ জন। আর দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিয়েছেন এক হাজার ২২৮ জন।

তাদের মধ্যে পুরুষ ৬৮৬ জন ও নারী ৫৪২ জন। এ নিয়ে সিনোফার্মের দ্বিতীয় ডোজের টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৫৪৭ জনে।

Categories
সারাদেশ

নেত্রকোনায় হত্যা মামলার আসামিকে প্রকাশ্যে গলা কেটে খুন

নেত্রকোনার মদন উপজেলায় সুমন হত্যা মামলার প্রধান আসামি বেচু মিয়াকে (৫০) গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। ২৪ জুলাই শনিবার সন্ধ্যায় মদন উপজেলার তিয়শ্রী বাজারের একটি দোকানে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। রাতে মদন থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস আলম এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

নিহত বেচু মিয়া উপজেলার তিয়শ্রী ইউনিয়নের বালালী গ্রামের সওদাগরের ছেলে।

এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন বালালী গ্রামের রবিকুল, আসাদুল এবং ধনাই মিয়া নামে তিনজকে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে।

ওসি ফেরদৌস আলম জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে এবং আটকদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। চিকিৎসা শেষে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

সুমন হত্যার জেরেই এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে জানিয়ে ওসি আরও জানান, গত ১২ জুন উপজেলার বালালী গ্রামের সুমন মিয়া মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এলাকায় প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত হন। এ ঘটনায় সুমনের বড় ভাই পলাশ বাদী হয়ে একই গ্রামের বেচু মিয়াকে প্রধান আসামি করে মদন থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। ওই মামলায় বেচু মিয়া সম্প্রতি আদালত থেকে জামিনে এসে পাশের মাখনা গ্রামে এক আত্মীয়ের বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন। সেখানে থেকে প্রায়ই তিনি স্থানীয় তিয়শ্রী বাজারে যাতায়াত করতেন। ঘটনার শনিবার সন্ধ্যায় তিনি ওই বাজারের রবিউল আওয়ালের সিঙ্গাড়ার দোকানে বসতেই ১০-১২ জন দুর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিতভাবে তার ওপর হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা বেচু মিয়ার গলা কেটে এবং শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাত করে তাকে হত্যার পর পালিয়ে যাওয়ার সময় বাজারের লোকজন ওই তিনজনকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
বিনোদন ভিডিও সংবাদ

শিল্পা শেঠির স্বামীর পর্ন ব্যবসা ও কোটিপতি হওয়ার নেপথ্যে

পর্ন ছবি তৈরির অভিযোগে ভারতের জনপ্রিয় নায়িকা শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা গ্রেফতারের পর থেকেই চলছে নানা আলোচনা সমালোচনা। রীতিমত হইচই পড়েছে সবখানে। সেইসঙ্গে রাজ কীভাবে এত ধনী হলেন সেই আলোচনাও সামনে এসেছে।

রাজের বাবা ছিলেন বাস কন্ডাক্টর, মা ছিলেন কারখানার শ্রমিক। দারিদ্রকে দেখেছেন অনেক কাছ থেকে। আঠারো বছরের পর কলেজে পড়াশুনার সুবাদে দুনিয়া দেখতে শুরু করেন। নিজের জীবনকে নতুন রূপে পেতে গিয়েই ধনী হওয়ার লক্ষ্যে অবিচল ছিলেন তিনি। এরপরই বেআইনি কাজেও জড়িয়ে পড়েন তিনি।

রাজ কুন্দ্রার বাবা চেয়েছিলেন, ছেলে যেন নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারে। প্রথমে একটি হোটেলে কাজ করার কথা বলেন এবং রাজকে ছয় মাসের সময় দিয়ে নিজস্ব ক্ষমতায় কিছু করে দেখাতে বলেন। রাজ চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেন এবং প্রথমে ২০০০ ইউরো ক্রেডিট লিমিটেড কার্ড নিয়ে দুবাই পাড়ি দেন। হীরের ব্যবসা করাই লক্ষ্য ছিল রাজের।

দুবায়ে কাজ করার সময়ই নেপালে গিয়ে পশমিনা শাল দেখেন এবং সেই ব্যবসা তার কাছে উপযুক্ত বলে মনে হয়। তিনি সফলও হন। তবে কিছুদিনের মধ্যেই তাই আবার দুবাই ফেরত আসেন, হীরের উপর একটি কোর্সও করেন। কারণ প্রথম থেকেই এই ব্যবসা করার লক্ষ্যে এগিয়েছিলেন তিনি। লক্ষ্য পূরণের এগোতে থাকেন রাজ।

রাজের প্রথম স্ত্রী ছিলেন কবিতা। তার সঙ্গে সম্পর্কে জটিলতা তৈরি হয়। রাজের অভিযোগ তার বোনের স্বামীর সঙ্গে সম্পর্ক ছিল কবিতা কুন্দ্রার। অবশ্য কবিতার অভিযোগ, তাদের বিয়ে ভাঙার জন্য দায়ী শিল্পা শেঠি। ২০০৮ এ শিল্পাকে বিয়ে করেন রাজ কুন্দ্রা। ২০০৯ এ শিল্পা শেঠি ও রাজের প্রথম বিবাহবার্ষিকীতে শিল্পাকে সবচেয়ে উঁচু কমপ্লেক্স বুর্জ খালিফায় ১৯ তলায় একটি ফ্ল্যাট উপহার দেন রাজ। আবার সেই বছরই শিল্পার জন্মদিনে তাকে উপহার দেন লন্ডনে একটি দু’কামরার ফ্ল্যাট যার মূল্য ৭ কোটি টাকা।

রাজের সাতমহলা অভিজাত ম্যানসন আছে সেন্ট জর্জেস হিলে। ক্লিফ রিচার্ডস ও এলটন জন তাদের প্রতিবেশী। যদিও এই রাজমহল তার প্রথম স্ত্রী কবিতার জন্য কিনেছিলেন তিনি। তার প্রথম পক্ষের একটি সন্তানও আছে যার নাম ডিলীনা। যদিও তাদের বিচ্ছেদের আগে মাত্র তিরিশ দিন তিনি সন্তানকে দেখতে পেয়েছিলেন রাজ।

রাজ কুন্দ্রার কোম্পানি তার ছেলের নামে, কোম্পানির নাম ভিয়ান ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। এই কোম্পানির মোট ১০ জন পরিচালক রয়েছেন। যার মধ্যে একজন হলেন শিল্পা শেঠি কুন্দ্রাও।

১৯ জুলাই পর্নকাণ্ডে মামলায় শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তার করে মুম্বাই পুলিশ। তাকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেয় আদালত। এই মামলায় এখনও পর্যন্ত ১১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেফতারের পর প্রচুর তথ্য প্রমাণ হাতে নিয়ে রাজ ও তার সহকারীকে আদালতে তোলে পুলিশ।

মুম্বাই পুলিশের পক্ষ থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পর্নগ্রাফি সিনেমা তৈরি এবং বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে তা প্রকাশ করা নিয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে একটি মামলা দায়ের করেছিল ক্রাইম ব্রাঞ্চ। তদন্তের পর রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রাজ এই মামলায় মূল ষড়যন্ত্রকারী বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গত ফেব্রুয়ারিতেই এই পর্নগ্রাফি চক্রের সন্ধান পায় পুলিশ। এরপর অভিযান চালিয়ে এক এক করে অভিযুক্তদের পাকড়াও করেন তারা। গ্রেফতার হওয়া রাজ কুন্দ্রা একজন ভারতীয়-ব্রিটিশ ব্যবসায়ী। ২০০৯ সালে বলিউড তারকা শিল্পা শেঠি তাকে বিয়ে করেন। তাদের সংসারে দুই সন্তান রয়েছে।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
জাতীয়

সাগরে লঘুচাপ, তিন দিন ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা

সাগরে লঘুচাপ থাকায় ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার আশংকা উপকূলে। তাই দেশের সকল সমুদ্রবন্দরে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

দেশে প্রায় সকল স্থানেই লঘুচাপের কারণে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বেড়েছে। রাজধানীতেও সাড়ে এগার দিকে এলোমেলো বাতাসের সঙ্গে বৃষ্টি নেমে আসে বেলা এগারটার পরপর। তবে বৃষ্টির তুলনায় বাতাসের দাপট বেশি।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি বর্তমানে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উত্তর উড়িষ্যা-পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে সুস্পষ্ট লঘুচাপ রূপে অবস্থান করছে। মৌসুমী বায়ুর অক্ষের বর্ধিতাংশ রাজস্থান, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, পূর্ব মধ্যপ্রদেশ, সুস্পট লঘুচাপের কেন্দ্রস্থল, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল হয়ে উত্তর-পূর্ব দিকে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী বায়ু দেশের দক্ষিণাঞ্চলের ওপর সক্রিয়। মৌসুমী বায়ু উত্তর বঙ্গোপসাগরে প্রবল অবস্থায় বিরাজ করছে।

এই অবস্থায় আবহাওয়াবিদ আব্দুল হামিদ মিয়া জানান, রোববার সকাল নাগাদ খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়; ঢাকা বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা ও ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

সেই সঙ্গে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের কোথাও কোথাও ভারী বর্ষণও হতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে। ঢাকায় দক্ষিণদক্ষিণপূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় এ সময় বাতাসের গতিবেগ থাকবে ১০-১৫ কিমি, যা দমকা আকারে ২৫ কিমিতে উঠে যেতে পারে। আগামী তিন দিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা আরো বাড়বে।

এদিকে উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকার লঘুচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে ও গভীর সঞ্চারণশীল মেঘমালা সৃষ্টি হচ্ছে।

বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। তাই চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে তিন নম্বর (পুনঃ) তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারসমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

অন্যদিকে রংপুর, রাজশাহী, বগুড়া, পাবনা, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, নোয়াখালী, পটুয়াখালী, কুমিল্লা অঞ্চলের উপর দিয়ে দক্ষিণ অথবা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিমি বেগে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে বজ্র অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। তাই এসব এলাকার নদীবন্দরসমূহকে এক নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

ভয়েসটিভি/এএস

Categories
বিশ্ব

ফিলিপাইনে শক্তিশালী ভূমিকম্প

ফিলিপাইনে ৬ দশমিক ৭ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। তবে ভূমিকম্পের কারণে কি পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। এনডিটিভির খবরে জানা গেছে এ তথ্য।

২৪ জুলাই স্থানীয় সময় শনিবার ভোর ৪টা ৪৮ মিনিটে প্রধান দ্বীপ লুজন থেকে সৃষ্ট ভূমিকম্প ১১২ কিলোমিটার দূরত্ব পর্যন্ত আঘাত হানে বলে জানায় মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ-ইউএসজিএস। এর কিছুক্ষণ আগে একই অঞ্চলে ৫ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে।

ফিলিপাইনের বাটানগাসের কালাটাগান মেট্রোপলিটন পুলিশ প্রধান জানিয়েছেন, এটি খুব শক্তিশালী ভূমিকম্প বলে ধারণা করা হচ্ছে যেটি ম্যানিলার দক্ষিণাঞ্চল পর্যন্ত আঘাত হানে। তবে স্থানীয়রা ভূমিকম্পের ঘটনার সঙ্গে অভ্যস্ত বলে তারা সতর্ক থাকেন সব সময়। আমরা নিম্নাঞ্চলগুলো খতিয়ে দেখছি ভূ-কম্পনের ফলে সুনামি আঘাত হেনেছে কি না।

পৃথিবীতে যতো ভূমিকম্প হানে তার অধিকাংশই ‘রিং অফ ফায়ার’ এলাকাজুড়ে। এটি জাপান থেকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলজুড়ে প্রসারিত। প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ‘রিং অফ ফায়ার’ এর অবস্থানের কারণে এই দ্বীপপুঞ্জে প্রায়ই ভূ-কম্পন অনুভূত হয়।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
সারাদেশ

৬৫ দিন পর সাগরে যাবেন জেলেরা, উপকূলজুড়ে উৎসবের আমেজ

সাগরে মাছের প্রজনন ও উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ইলিশসহ সব প্রজাতির মাছ ধরা বন্ধ ছিলো। তাই গত ৬৫ দিন মাছ শিকারে যেতে পারেনি জেলেরা। উপকূলের জেলেরা অপেক্ষা করছিলেন কবে মাছ ধরা শুরু হবে, কবেই বা জাল-ট্রলার ফিশিং বোর্ট নিয়ে সাগরে নামবেন। এখন সেই অপেক্ষার পালা শেষ। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মাছ ধরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তারা। ২৩ জুলাই শুক্রবার মধ্যরাত থেকেই নতুন উদ্যামে সাগরে মাছ শিকারে যাবেন জেলেরা। দীর্ঘ দিন মাছ ধরা বন্ধ থাকায় কষ্টে থাকা জেলেদের মুখে ফুটে উঠেছে হাসি। ব্যস্ততা দেখা গেছে বরফ কলগুলোতেও।

সাগরে গিয়ে কাঙ্খিত ইলিশ পেলেই বিগত ২ মাসের ধার-দেনা পরিশোধে পাশাপাশি ক্ষতি পুশিয়ে ঘুরে দাড়াতে পারবেন বলেও আশাবাদি জেলেরা।

সাগর উপকূলের বিভিন্ন ঘাটে দেখা গেছে জাল প্রস্তুতের পাশাপাশি ফিশিং বোট মেরামত করছেন জেলেরা। মাছ ধরার প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম, উপকরণ এবং খাদ্য সামগ্রী ট্রলারে তুলছেন কেউ কেউ। অনেকে আবার নতুন করে জাল বুনছেন।

জেলেরা জানান, নিষেধাজ্ঞা শুরুর আগে জালে যে হারে ইলিশ ধরা পড়েছিল, এখন তার চেয়ে বেশি ইলিশ জালে আটকা পড়তে পারে। ইতোমধ্যে সাগরে প্রায় সব মা মাছই ডিম ছেড়ে দিয়েছে।

নিষেধাজ্ঞাকালীন সময়ে মাছ শিকার বন্ধ থাকায় এবার মাছের উৎপাদন বাড়বে বলে মনে করছেন ভোলা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা।

জেলায় সাগরে মাছ ধরেন নিবন্ধিত এমন জেলের সংখ্যা ৬৩ হাজার ৯৫৪ জন। মাছের প্রজনন ও উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ইলিশসহ সকল প্রজাতির মাছ গত ১৯ মে মধ্যরাত থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
বিশ্ব

আফগানিস্থানে আইএসের রকেট হামলায় ৫ শিশু নিহত

আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলীয় নানগারহার প্রদেশের এসপিন গড় জেলায় রকেট হামলা হয়েছে। নানগারহারের প্রাদেশিক কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা ইরনা জানিয়েছে, বৃহস্পতিবারের ওই হামলায় পাঁচ শিশু নিহত হয়েছে।

আফগানিস্তানের আঞ্চলিক কর্মকর্তা মোহাম্মাদ ইয়াসিন বলেছেন, উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠী দায়েশ (আইএস) এ রকেট হামলা চালিয়েছে। অবশ্য তালেবান এ হামলার জন্য আফগান সেনাবাহিনীকে দায়ী করেছে।

প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি যখন বৃহস্পতিবার নানগারহার প্রদেশ সফর করছিলেন তখন এ রকেট হামলা চালানো হয়। আফগান প্রেসিডেন্ট গত কয়েকদিন যাবত দেশটির সংঘর্ষপীড়িত প্রদেশগুলো সফর করছেন।

আফগানিস্তান থেকে বিদেশি সেনা প্রত্যাহার করা শুরু করার পর থেকে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দেশটির সেনাবাহিনীর ওপর তালেবানের হামলা বেড়ে গেছে। এরইমধ্যে দেশের বিস্তীর্ণ এলাকা দখল করার দাবি করেছে তালেবান। এমন সময় এ হামলা চলছে যখন তালেবান এর আগে বলেছিল, তাদের যুদ্ধ শুধু বিদেশি সেনা উপস্থিতির বিরুদ্ধে। বিদেশি সেনারা আফগানিস্তান ত্যাগ করলে তারা অস্ত্র সমর্পণ করে দ্বীনি শিক্ষায় ফিরে যাবে।

ভয়েস টিভি/এসএফ

Categories
জাতীয়

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী হলেন শামসুল আলম

প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়া পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের (জিইডি) সদ্য সাবেক সদস্য (সিনিয়র সচিব) ড. শামসুল আলমকে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

তাকে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী করে ১৮ জুলাই রোববার রাতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

এর আগে রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শামসুল আলম প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন। বঙ্গভবনে তাকে শপথ বাক্য পাঠ করান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

বর্তমানে পরিকল্পনা মন্ত্রীর দায়িত্বে রয়েছেন এম এ মান্নান। মন্ত্রিসভায় এখন প্রধানমন্ত্রী ছাড়া ২৫ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন উপমন্ত্রী রয়েছেন। শামসুল আলম যুক্ত হওয়ায় প্রতিমন্ত্রী হলেন ২০ জন।

ড. শামসুল আলম ১৯৭৩ সালে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃষি অর্থনীতিতে এমএসসি, ১৯৮৩ সালে ব্যাংককের থাম্মাসাট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ অর্থনীতি এবং ইংল্যান্ডের নিউ ক্যাসেল আপন টাইন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৯১ সালে অর্থনীতিতে পিএইচডি করেন।

কর্মজীবনে তিনি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, জার্মানির হামবোল্ট বিশ্ববিদ্যালয়, বেলজিয়ামের ঘেন্ট বিশ্ববিদ্যালয় এবং নেদারল্যান্ডের ভাগিনিঙ্গেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেভেলপমেন্ট ইকনোমিকস স্কুলে শিক্ষকতায় নিযুক্ত ছিলেন।

ড. আলম জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থায় ২০০২ সালের মার্চ থেকে ২০০৫ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত পূর্ণকালীন চাকরিতে ছিলেন। ইউএনডিপি বাংলাদেশে ১৪ মাস সিনিয়র স্কেলে পূর্ণকালীন জাতীয় কনসালটেন্ট হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

৩৫ বছরের অধ্যাপনার অভিজ্ঞতা শেষে শামসুল আলম ২০০৯ সালের ১ জুলাই পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য হিসেবে যোগদান করেন। পরে দফায় দফায় বাড়ে তার চুক্তির মেয়াদ। গত ৩০ জুন তার সর্বশেষ চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়।

এদিকে অর্থনীতিতে বিশেষ অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার শামসুল আলমকে ২০২০ সালে একুশে পদকে ভূষিত করে। এর আগে ২০১৮ সালে সাউথ এশিয়ান নেটওয়ার্ক ফর ইকোনমিক মডিউলিং তাকে ‘ইকোনমিক অব ইনফ্লুয়েন্স অ্যাওয়ার্ড’ দেয়।

এছাড়া, কৃষি অর্থনীতি বিষয়ে দক্ষতা ও অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে বাংলাদেশ কৃষি অর্থনীতিবিদ সমিতি ২০১৮ সালে শামসুল আলমকে স্বর্ণপদকে ভূষিত করে। তার গবেষণা, পাঠ্যপুস্তকসহ অর্থনীতি বিষয়ক প্রকাশিত গ্রন্থ সংখ্যা ১২টি।

ভয়েসটিভি/এএস

Categories
জাতীয়

‘দেশের সবাইকে ভ্যাকসিন দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছি’

বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পর্যায়ক্রমে সবাইকে ভ্যাকসিন দিতে সরকার উদ্যোগ নিয়েছি। কোনো মানুষ যেন ভ্যাকসিন থেকে বাদ না থাকে, আমরা সেভাবে পদক্ষেপ নিয়েছি।

১৮ জুলাই রোববার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে মন্ত্রণালয়/বিভাগসমূহের বার্ষিক কর্ম সম্পাদনা চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষর এবং শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে এ কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ভ্যাকসিন দিতে শুরু করেছি। ভ্যাকসিন আসছে। আমাদের দেশের সবাই যেন ভ্যাকসিনটা নিতে পারে, সে জন্য যত দরকার, আমরা তা কিনবো এবং আমরা সেই ভ্যাকসিনটা দেব।

শেখ হাসিনা বলেন, কোনো মানুষ যেন ভ্যাকসিন থেকে বাদ না থাকে, সেভাবে কিন্তু আমরা পদক্ষেপ নিয়েছি। আমরা চাচ্ছি যে আমাদের দেশের মানুষ যেন কোনো রকম ক্ষতিগ্রস্ত না হয়।

সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, করোনার এ পরিস্থিতিতে সবাই যেন স্বাস্থ্যবিধিটা মেনে চলে, সেদিক দৃষ্টি দিতে হবে।

ভয়েসটিভি/এএস

Categories
জাতীয়

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে ২৫ কিলোমিটার যানজট

ঘরমুখো মানুষ ও অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে ২৫ কিলোমিটার এলাকায় ঢাকামুখী লেনে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

১৭ জুলাই শনিবার ভোর রাত থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু থেকে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার আশেকপুর বাইপাস পর্যন্ত ২৫ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

শনিবার সকালে মহাসড়কের রাবনা, বিক্রমহাটি, রসুলপুর, পৌলি ও এলেঙ্গা এলাকায় এমন চিত্র দেখা যায়। মাঝে মাঝে উত্তরবঙ্গমুখী গাড়ি চললেও ঢাকামুখী গাড়ি আটকে রয়েছে।

এ দিকে যানবাহনের চাপ সামাল দিতে না পেরে শুক্রবার রাত থেকে দফায় দফায় টোল আদায় বন্ধ রাখে সেতু কর্তৃপক্ষ। যানজটের কারণে চালক ও যাত্রীদের পোহাতে হচ্ছে চরম ভোগান্তি। এছাড়াও গরু নিয়ে উত্তরাঞ্চল থেকে ঢাকা অভিমুখে যাত্রা করা ব্যবসায়ীরা পড়েছেন চরম বেকায়দায়। সড়কেই কেটে যাচ্ছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা।

ট্রাক চালক লেবু মিয়া বলেন, পাবনা থেকে গরু নিয়ে ঢাকায় যাচ্ছি। বঙ্গবন্ধু সেতু থেকে রাবনা আসতে সর্বোচ্চ ৫০ মিনিট সময় লাগে। সেখানে আজকে প্রায় দুই ঘণ্টা সময় লেগেছে। সামনে আরও যানজট রয়েছে। কতক্ষণে ঢাকায় যেতে পারবো তাও জানি না।

রসুলপুর এলাকায় পিকআপ চালক এরশাদ বলেন, ৭ কিলোমিটার আসতে সময় লেগেছে এক ঘণ্টা। গরমে খুব কষ্ট হচ্ছে।

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু সেতু পুর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম ও এলেঙ্গা হাইওয়ে থানার ইনচার্জ ইয়াসির আরাফাতের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের পাওয়া যায়নি।